রাজ্য সম্পাদকের ছেলের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের প্রেক্ষিতে কেরল সিপিএমের ভূমিকা নিয়ে এ বার প্রশ্ন উঠল বঙ্গ সিপিএমে। কেরলে শাসক দলের রাজ্য সম্পাদকের ছেলেকে দুবাই থেকে ফিরতে দিচ্ছে না আমিরশাহির পুলিশ, এই ঘটনা গোটা দলের পক্ষেই খারাপ বার্তা বলে মন্তব্য করেছেন এ রাজ্যের সিপিএমের নেতাদের একাংশ। পলিটব্যুরো যাতে বিবৃতি দিয়ে এই বিষয়ে অবস্থান স্পষ্ট করে, সেই দাবিও তুলেছেন তাঁরা।

কেরল সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক কোডিয়ারি বালকৃষ্ণনের বড় ছেলে বিনয় বিনোদিনী বালকৃষ্ণনের বিরুদ্ধে ১৩ কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগ এনেছে দুবাইয়ের একটি সংস্থা। পরে তাঁর পাসপোর্ট জমা রাখতে বলেছে দুবাই পুলিশ। এই কেলেঙ্কারি নিয়ে হইচই শুরু হওয়ায় কোডিয়ারিকে দিল্লিতে ডেকে পাঠিয়েছিলেন দলের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। কিন্তু সম্মেলনে ব্যস্ততার কারণ দেখিয়ে কোডিয়ারি দিল্লি যাননি। উল্টে সিপিএমের তিরুঅনন্তপুরম জেলা সম্মেলনে কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন ও স্বয়ং কোডিয়ারির উপস্থিতিতে প্রতিনিধিদের বড় অংশ ইয়েচুরিকেই কড়া আক্রমণ শানিয়েছেন! কেরল সিপিএমের নেতাদের এমন ভূমিকা নিয়ে আলিমুদ্দিনে রাজ্য কমিটির বৈঠকে প্রশ্ন তোলেন মানব মুখোপাধ্যায়, মইনুল হাসান-সহ কয়েক জন নেতা। বৈঠকে জবাবি ভাষণে বৃহস্পতিবার রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র অবশ্য বলেন, বাংলার বিষয়েই তিনি বক্তব্য সীমাবদ্ধ রাখতে চান। কেরলের প্রশ্নে পলিটব্যুরো কী করবে, তা তাঁর পক্ষে এখানে বলা সম্ভব নয় বলে জানান সূর্যবাবু।