Advertisement
Crime

Karnataka: ভরা আদালতে স্ত্রীকে গলা কেটে খুন কর্নাটকে! চলছিল বিবাহবিচ্ছেদ মামলার শুনানি

চাঞ্চল্যকর ঘটনার সাক্ষী থাকল কর্নাটকের একটি পরিবার আদালত। হাড় হিম করা দৃশ্যের সাক্ষী হলেন আদালতে উপস্থিত মানুষজন।

বিবাহবিচ্ছেদের মামলা চলছিল আদালতে। হঠাৎ স্ত্রীর উপর ছুরি নিয়ে হামলা স্বামীর।

বিবাহবিচ্ছেদের মামলা চলছিল আদালতে। হঠাৎ স্ত্রীর উপর ছুরি নিয়ে হামলা স্বামীর। গ্রাফিক: সনৎ সিংহ।

সংবাদ সংস্থা

কর্নাটক শেষ আপডেট: ১৪ অগস্ট ২০২২ ১১:৫৪
Share:

ভরা আদালতে স্ত্রীর গলা কেটে খুন করলেন স্বামী! ঘটনায় তাজ্জব বিচারক থেকে আদালতে উপস্থিত অন্যানরা। শনিবার এমনই চাঞ্চল্যকর ঘটনার সাক্ষী থাকল কর্নাটকের হাসানের একটি পরিবার আদালত।

কর্নাটক পুলিশ সূত্রে খবর, ৩২ বছর বয়সি শিবকুমার এবং ২৮ বছরের চিত্রার বিবাহবিচ্ছেদের মামলা চলছিল। দু’পক্ষের আইনজীবীর সওয়াল-জবাব শোনার পর মামলার পরবর্তী দিন জানান বিচারক। ঠিক সেই সময়ই ঘটে যায় হাড় হিম করা কাণ্ড।

Advertisement

জানা গিয়েছে, শুনানির পর আদালতের শৌচালয়ে গিয়েছিলেন চিত্রা। সেই সময় তাঁর পিছু নেন শিবকুমার। হঠাৎ পকেট থেকে ছুরি বের করে সোজা কোপ বসান স্ত্রীর গলায়। তরুণীর আর্ত চিৎকারে দৌড়ে যান সবাই। রক্তাক্ত অবস্থায় চিত্রাকে অ্যাম্বুল্যান্সে করে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় হাসপাতালে। কিন্তু চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। চিকিৎসকেরা জানান, চিত্রার উভয় ধমনী কেটে গিয়েছিল।

অন্য দিকে, শিবকুমারকে বেশ কিছু ক্ষণের চেষ্টায় বাগে আনে পুলিশ। তাঁকে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় মামলা রুজু হয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, আগে গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগে শিবকুমারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিল পুলিশ।

Advertising
Advertising
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on:
আরও দেখুন
আরও পড়ুন
Advertisement