Advertisement
০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Durga Puja 2020

মোবাইলের স্ক্রিনে আঙুল ছোঁয়ান, যন্ত্র করবে ঘর ঝাড়পোঁছ

শাওমি ‘এমআই’-এর ‘রোবট ভ্যাকিউম মপ’ যন্ত্রটি কী ভাবে মোছার কাজ হবে এবং পাশাপাশি, কোথায় কোথায় মোছার কাজ হবে না তা-ও ঠিক করে দেয়। একে ‘ভার্চুয়াল ওয়াল’ বলা হয়।

শাওমি ‘এমআই’-এর ‘রোবট ভ্যাকিউম মপ’ যন্ত্র ঘরের মধ্যে ঘুরে ঘুরে ঝাঁট দেবে, মুছবে। ফাইল চিত্র।

শাওমি ‘এমআই’-এর ‘রোবট ভ্যাকিউম মপ’ যন্ত্র ঘরের মধ্যে ঘুরে ঘুরে ঝাঁট দেবে, মুছবে। ফাইল চিত্র।

অলোক ভট্টাচার্য
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৬:৩০
Share: Save:

গৃহপরিচারিকা বা পরিচারকদের এখনও অনেকে আসতে পারছেন না শহরে কাজ করতে। কেউ বা ভয় পাচ্ছেন। ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’-এর পাশাপাশি, ‘ওয়ার্ক ফর হোম’ও করতে হচ্ছে। কিন্তু মুশকিল হল, আমাদের মধ্যে অনেকেই রান্না করা, বাসন মাজা, ঘর ঝাঁট দেওয়া বা ঘর মোছায় অভ্যস্ত নই। এক দিকে দিনের পরে দিন এই কাজ করার বিরক্তি, অন্য দিকে এ সব করতে গিয়ে হাতে, পায়ে, কোমরে ব্যথাও হচ্ছে। কত দিন এ কাজ করা যাবে তা নিয়ে অনেকেই চিন্তিত। তবে প্রযুক্তি এর মধ্যে একটি সমস্যার সমাধান বার করেছে। অন্তত ঘর মোছার কাজটি পায়ের উপর পা তুলে বসেই ফেলা সম্ভব। মাঝে মাঝে মোবাইলে একটু নির্দেশ দিলেই হবে। শাওমি ‘এমআই’-এর ‘রোবট ভ্যাকিউম মপ’ এই কাজে আপনাকে সাহায্য করবে।

Advertisement

রোবট ভাবলে আবার হাত-পাওয়ালা রোবট ভেবে বসবেন না যেন। এটি আসলে গোল চাকতির মতো দেখতে একটি যন্ত্র। ঘরের মধ্যে ঘুরে ঘুরে ঝাঁট দেবে, মুছবে। আপনি চাইলে মোবাইলে নির্দেশ দিতে পারবেন। আর এ তো যেমন-তেমন চাকতি নয়, এ হল স্মার্ট। এর প্রাণভোমরা লুকিয়ে আছে চারটি কোরের কোর্টেক্স এ-৭ প্রসেসর-এ। সঙ্গে রয়েছে ডুয়েল কোর মালি ৪০০ জিপিইউ। এরা একসঙ্গে মস্তিষ্কের মতো কাজ করে।

এটি কাজ করে ‘এসএলএএম অ্যালগরিদম’-এর উপরে। এই বিশেষ অ্যালগরিদমটি ঘর মোছার মতো কাজকে যন্ত্রের কাছে সহজ করে তোলে। কাজটি করার জন্য যন্ত্রে রয়েছে ‘হাই প্রিসিশন সেন্সর’-এর ১২টির সেট। এর মধ্যে রয়েছে ‘অ্যান্টি কলিশন’ এবং ‘অ্যান্টি ড্রপ’ সেন্সর। ২ সেন্টিমিটার উঁচু যে কোনও জিনিসকে টপকে চলে যেতে পারে এই চাকতি, এমনই দাবি সংস্থার।

আরও পড়ুন : গ্রিল-বেকিং সহজে, বিদ্যুৎ খরচ সামান্য, কোন মাইক্রোওভেনে কী কী সুবিধা

Advertisement

এ বার আসি মূল কাজে। ময়লা টানার জন্য ‘২১০০পিএ সাকশন’ এবং ‘ব্রাসলেস মোটর’ রয়েছে। সংস্থার দাবি, এতে দ্রুত পরিষ্কারের কাজটি হয়ে যাবে। কিন্তু মুছতে গেলে তো জল লাগবে। এখানে বিদ্যুৎচালিত পাম্প রয়েছে। জলকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য তিনটি মোডের ‘গিয়ার’ আছে। কতটা ভাল ভাবে পরিষ্কার করাতে চান এবং কোন ধরনের মেঝে পরিষ্কার করাতে চান তার উপরে নির্ভর করে আপনার মোডটি বেছে নিতে পারেন। কোনও ভাবে জল আটকে না যায়, তার ব্যবস্থাও করা আছে বলে সংস্থার দাবি।

শাওমি ‘এমআই’-এর ‘রোবট ভ্যাকিউম মপ’ যন্ত্র দেখতে গোল চাকতির মতো।

যন্ত্রের সুবিধা হল তাকে নিজের মতো কাজ করানো যায়। যন্ত্রটি ঠিক থাকলে সে নির্দেশ অমান্য করে না। এ ক্ষেত্রে আপনাকে সাহায্য করে ‘এমআই-হোম’ অ্যাপটি। কোন জায়গাটি পরিষ্কার করতে হবে, কোনও একটি জায়গা ভাল ভাবে পরিষ্কার করতে হবে কি না, কী ভাবে যন্ত্রটি কাজ করবে এবং কখন কাজ করবে তা-ও ঠিক করে দেওয়া যায়। এটা যে বার বার বলে দিতে হবে তেমন নয়। ঘরের নির্দিষ্ট আকার আছে। ঘরের মধ্যে আসবাবও নির্দিষ্ট জায়গায় রাখা থাকে। প্রথম বার পরিষ্কার করার সময়ে যন্ত্রটি ঘরের এই বৈশিষ্ট্যগুলি বুঝে নেয়। ফলে পরের বার আর তাকে বলে দিতে হবে না। নিজের থেকেই পরিষ্কারের কাজটি সেরে নিতে পারবে। আপনাকে শুধু স্থানটি বলে দিতে হবে।

আরও পড়ুন : কেতাদুরস্ত এই রিস্ট ব্যান্ডে ধরা পড়বে করোনার উপসর্গ

এ বার হল, কী ভাবে মোছার কাজটি হবে। অনেক রকম ভাবে যন্ত্রটি এই কাজ করতে পারে। পাশাপাশি, কোথায় কোথায় মোছার কাজ হবে না তা-ও ঠিক করে দেওয়া যায়। একে ‘ভার্চুয়াল ওয়াল’ বলা হয়। এই যন্ত্রটি ব্যাটারির সাহায্য চলে। এটি ৩,২০০ এমপিএইচ-এর। মজার কথা হল, কাজ করতে করতে চার্জ ফুরিয়ে গেলে চার্জ দিয়ে দিলে আবার যে জায়গায় কাজ থামিয়ে ছিল সেখান থেকে কাজ শুরু করবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.