না, দলের সভাপতি অমিত শাহের বেঁধে দেওয়া টার্গেটে পৌঁছতে পারছে না বিজেপি। কিছুতেই হচ্ছে না ১৫০! 

গুজরাতে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে আসন-সংখ্যা অনেকটাই কমতে পারে টানা ৪ বারের শাসক দল বিজেপি’র। কংগ্রেসের ফল আগের চেয়ে ভাল হওয়ার সম্ভবনা যথেষ্টই উজ্জ্বল। গত বিধানসভা নির্বাচনের চেয়ে এ বার ৩ শতাংশ কমতে পারে বিজেপি’র ভোটের হার। কংগ্রেসের তা বাড়তে পারে ১ শতাংশ।

তবে প্রথম দফার ভোটের তিন দিন আগে তিনটি জনমত সমীক্ষারই ইঙ্গিত, গুজরাতে পঞ্চম বারের জন্য ক্ষমতায় আসছে বিজেপি’ই। প্রয়োজনীয় সংখ্যাগরিষ্ঠতার (৯২টি আসন) চেয়ে কিছু বেশি আসন নিয়েই। 

আরও পড়ুন- বিজেপি ভোলানোই লড়াই হার্দিকের​

আরও পড়ুন- গেরুয়া মিছিল যতই গর্জাক, রাজকোটে অস্বস্তিতে মুখ্যমন্ত্রী​

এটা ঠিক যে, অতীতে জনমত সমীক্ষার ফল সব সময় মেলেনি। কিন্তু ভোটারদের মানসিকতার আন্দাজ পেতে এই ধরনের সমীক্ষার গ্রহণযোগ্যতা মোটামুটি ভাবে স্বীকৃত।

১৮২ সদস্যের গুজরাত বিধানসভার ভোটের ফলাফলের আভাস পেতে দিনকয়েক আগে দফাওয়ারি জনমত সমীক্ষা করেছিল এবিপি-সিএসডিএস। তার শেষটির ইঙ্গিত ছিল, শাসক দল বিজেপি এ বার পেতে পারে বড়জোর ৯১ থেকে ৯৯টি আসন। আর বিরোধী দল কংগ্রেস জিততে পারে ৭৮ থেকে ৮৬টি আসনে। অন্যদের আসন-সংখ্যা হতে পারে ৩ থেকে ৭টি।

বুধবার প্রকাশিত হয়েছে আরও দু’টি জনমত সমীক্ষার ফলাফল। একটি ইন্ডিয়া টিভি’র। অন্যটি টাইমস নাও-ভিএমআরের।

টাইমস নাও-ভিএমআরের জনমত সমীক্ষা জানাচ্ছে, গুজরাতে এ বার বিজেপি পেতে পারে ১১১টি আসন। যা গত বারের (২০১২) তুলনায় ৪টি কম। অন্য দিকে গত বারের চেয়ে ৭টি আসন বাড়তে পারে কংগ্রেসের। রাহুল গাঁধীর দল পেতে পারে ৬৮টি আসন। অন্যরা পেতে পারে ৩টি আসন।

ও দিকে, ইন্ডিয়া টিভি’র জনমত সমীক্ষার ইঙ্গিত, বিজেপি’র আসন-সংখ্যা হতে পারে ১০৬ থেকে ১১৬টি। কংগ্রেস পেতে পারে ৬৩ থেকে ৭৩টি আসন। অন্যরা ২ থেকে ৪টি আসন ভাগাভাগি করে নিতে পারে।

তিনটি জনমত সমীক্ষার গড় হিসেব বলছে, গুজরাতে এ বার বড়জোর ১০৫/১০৬টি আসন পাওয়ার সম্ভাবনা টানা ২২ বছরের শাসক দল বিজেপি’র। গড়ে কংগ্রেসের ঝুলিতে আসতে পারে ৭৩/৭৪টি আসন। অন্যরা পেতে পারে ৪/৫টি আসন।

জনমতের ইঙ্গিত

দল

অগস্ট

অক্টোবর

নভেম্বর

ভোটপ্রাপ্তির হার (শতাংশে)

বিজেপি

৫৯

৪৭

৪৩

কংগ্রেস

২৯

৪১

৪৩

অন্যান্য

১২

১২

১৪

 

সম্ভাব্য অাসন

 

বিজেপি

১৪৪-১৫২

১১৩-১২১

৯১-৯৯

কংগ্রেস

২৬-৩২

৫৮-৬৪

৭৮-৮৬

অন্যান্য

৩-৭

১-৭

৩-৭

 

২০১২-য় বিজেপি জিতেছিল ১১৬টি আসনে। কংগ্রেস পেয়েছিল ৬০টি আসন। তবে বিজেপি গুজরাতে ভোটে সবচেয়ে ভাল ফল করেছিল ১৫ বছর আগে। ২০০২ সালে বিজেপি পেয়েছিল ১২৭টি আসন। এ বার বিজেপি ১৫০টি আসন পাবে বলে জানিয়েছিলেন দলের সভাপতি অমিত শাহ।

মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কাকে বেশি পছন্দ, টাইমস নাও-ভিএমআরের জনমত সমীক্ষায় তা জানতে চাওয়া হয়েছিল ভোটারদের কাছে। নিতিন পটেল, আনন্দীবেন পটেল ও শক্তি সিংহ গোহিলের চেয়ে অনেক বেশি ভোট (৩৬ শতাংশ) পেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপাণি। তার মধ্যে সবচেয়ে কম ভোট পেয়েছেন শক্তি সিংহ গোহিল। ৭ শতাংশ। আর নিতিন এবং আনন্দীবেন পটেল, দু’জনেই পেয়েছেন ১৬ শতাংশ ভোট।