সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, মাইকেল ক্লার্কের পর বিরাট কোহালি এবং তাঁর নেতৃত্বাধীন টিম ইন্ডিয়ার প্রশ‌ংসায় প্রাক্তন ক্রিকেটার মহিন্দর অমরনাথ। বিশ্বকাপ জয়ী এই অলরাউন্ডার মনে করেন বিরাটের নেতৃত্বে এই ভারতীয় দলের বিশ্বের যে কোনও প্রান্তে, যে কোনও দলকে হারানোর ক্ষমতা রাখে।

শুক্রবার টাইমস অফ ইন্ডিয়ায় নিজের কলামে অমরনাথ লেখেন, “ওডিআই ক্রিকেটে এই মুহূর্তে এক নম্বর দলের মতোই খেলছে ভারতীয় ক্রিকেটারেরা। যে ভাবে বিরাট খেলছে তা সত্যিই অসাধারণ। এক জন অধিনায়ক হিসেবে দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার পাশাপাশি ধারাবাহিক ভাবে ভাল ফল করা সব সময়ই কঠিন। একার দায়িত্বে বহু ম্যাচ ভারতকে জিতিয়েছে বিরাট। দলের পারফরম্যান্সের গ্রাফকে ও একটা আলাদা পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছে। এই দলের সুপারম্যান বিরাট।”

বিরাটের পাশাপাশি গোটা দলের পারফরম্যান্সেও মুগ্ধ অমরনাথ। তাঁর মতে, “সামগ্রিক ভাবে গোটা দলের পারফরম্যান্স অসাধারণ। শেষ টেস্ট জেতার ফলে যে আত্মবিশ্বাস বিরাটরা অর্জন করেছে তারই ছাপ দেখা যাচ্ছে এক দিনের সিরিজে ওদের খেলায়। এ ছাড়া সামনে থেকে অধিনায়কের নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষমতাও ভারতকে ভাল ফল করতে সাহায্য করছে।”

আরও পড়ুন: বিরাট-মন্দনা এবং ১৮ নম্বর জার্সি

আরও পড়ুন: বরফের মাঠে বিধ্বংসী ব্যাটিং 'বুড়ো' সহবাগের

বিরাট এবং গোটা দলের প্রশংসার পাশাপাশি আলাদা ভাবে দুই তরুণ স্পিনার কুলদীপ যাদব এবং যুজবেন্দ্র চাহালের প্রশংসা করেন অমরনাথ। প্রশংসা করেন যশপ্রীত বুমরারও। তাঁর কথায়, “আমার মনে হয় এই ভারতীয় দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ প্লেয়ার যশপ্রীত বুমরা। টেস্টের পাশাপাশি সীমিত ওভারের খেলাতেও ও ভাল পারফর্ম করেছে। এ ছাড়া কুলদীপ-চাহালদের স্পিন খেলতে বরাবরই সমস্যায় পড়তে হচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকাকে। স্পিন এবং পেসের যৌথ আক্রমণে বারবার সমস্যায় পড়ছে দক্ষিণ আফ্রিকা।”

ভারতের প্রশংসার পাশাপাশি দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটের ভবিষ্যত নিয়েও সন্ধিহান অমরনাথ। তিনি লেখেন, “দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য এটা খুবই চিন্তার বিষয়। এমন কোনও তরুণ প্রতিভাকে দেখতে পাচ্ছি না যে অদূর ভবিষ্যতে হাসিম আমলা বা এবি ডেভিলিয়ার্সের বিকল্প হয়ে উঠতে পারে। এই বিষয় ভবিষ্যতে সমস্যায় পড়তে হতে পারে দক্ষিণ আফ্রিকাকে। এই সিরিজে ফিরে আসতে হলে অলৌকিক কিছু করে দেখাতে হবে প্রোটিয়াদের। কিন্তু যে ভাবে ভারত খেলছে, আমার মনে হয় খুব সহজেই এই সিরিজ টিম ইন্ডিয়া জিতে নেবে।”