নতুন বছরের গোড়াতেই সুখবর। অনেক দিনের অপেক্ষার শেষে অবশেষে শহরে এল শীত। বুধবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি বেশি। স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি বেশি হলেও এখনও পর্যন্ত এটাই মরসুমের শীতলতম দিন। আগামী কয়েক দিনে পারদ আরও নামবে বলে আশ্বাস আবহাওয়া দফতরের।

দিল্লির মৌসম ভবনের একটি সূত্রে আগেই জানানো হয়েছিল, নতুন বছরের গোড়া থেকেই শীতের ফিরে আসার সম্ভাবনা রয়েছে। কলকাতা আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, বাংলাদেশের উপরে থাকা ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবে জলীয় বাষ্প ঢুকে আকাশ মেঘলা হচ্ছে। ফলে রাতের তাপমাত্রাও বেড়ে যাচ্ছে। ওই ঘূর্ণাবর্তটি সরে গেলে মঙ্গলবার থেকে আকাশ পরিষ্কার হবে।

আবহাওয়া দফতরের ওই পূর্বাভাসে বলা হয়েছিল, চলতি সপ্তাহেই কলকাতার রাতের তাপমাত্রা ১৩ ডিগ্রির কাছাকাছি পৌঁছে যেতে পারে। সেই পূর্বাভাসকে সত্যি প্রমাণ করেই মঙ্গলবার থেকে তাপমাত্রার পারদ নামতে শুরু করেছে।

আরও পড়ুন: কুয়াশায় স্তব্ধ ট্রেন, পেটে টান যাত্রীদের

এ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তেই নেমেছে তাপমাত্রার পারদ। আজ শ্রীনিকেতনের তাপমাত্রা ৯.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস (স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি কম), বাঁকুড়ায় তাপমাত্রা ১১.৩  ডিগ্রি সেলসিয়াস (স্বাভাবিক), জলপাইগুড়িতে ১১  ডিগ্রি সেলসিয়াস (স্বাভাবিক) এবং মালদায় তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি কম।

আরও পড়ুন: ​টানা পাঁচটি নববর্ষে শীতের মেজাজ গরম কেন

দেশের সমতলের তাপমাত্রায় পারদ সবচেয়ে নীচে যাচ্ছে রাজস্থানের সিকারে। সেখানকার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। পটনার তাপমাত্রা এখন ৭.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস (স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি কম)। দিল্লির মৌসম ভবনের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী কাল থেকে আরও নামবে পটনার তাপমাত্রা। আবহবীদদের মতে, পটনার শৈতপ্রবাহের ফলে আগামী কাল থেকে কলকাতা-সহ এ রাজ্যের বিভিন্ন অংশের তাপমাত্রা আরও কমতে পারে। কলকাতা আবহাওয়া দফতর সূত্রের খবর, চলতি সপ্তাহের শেষে শহরের তাপমাত্রা ১২-এ নেমে যেতে পারে।

অর্থাত্, সব মিলিয়ে এ রাজ্য-সহ পূর্ব ভারতে এখন পরিবেশ শীতের অনুকূলেই।