Advertisement
Durga Puja 2022

পুজোয় খাওয়াদাওয়ার ফাঁকেই যত্ন নিন শরীরের, হার্ট ভাল রাখতে নজরে থাকুক পটাশিয়াম

পুজোর দিনগুলোয় দেদার বাইরে খাওয়াদাওয়া হয় সকলেরই। পাশাপাশি খেয়াল রাখুন নিজের শরীরেরও। পরিসংখ্যান বলছে, বিশেষত মহিলাদের স্বাস্থ্যের জন্য অনেক বেশি প্রয়োজন পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবার।

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

আনন্দ উৎসব ডেস্ক
শেষ আপডেট: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৩:৪৯
Share: Save:

এই পাড়া, সেই প্যান্ডেল ঘুরে ঠাকুর দেখা আর রকমারি ভূরিভোজ। পুজোয় বাঙালির বরাবরের চেনা রুটিন। কিন্তু বাইরের দেদার খাওয়াদাওয়ার পাশাপাশি খেয়াল রাখা দরকার নিজের শরীরেরও। পরিসংখ্যান বলছে, বিশেষত মহিলাদের স্বাস্থ্যের জন্য অনেক বেশি প্রয়োজন পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবার।

Advertisement

তাই পুজোর আগে এবং পরে নিজের খেয়াল রাখতে দেখে নিন কোন ধরনের পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবার সুস্থ রাখবে শরীরকে।

  • হার্ট ভাল রাখতে পটাশিয়ামে নজর-

আজকাল ৪০-এর কম বয়েসি মহিলাদের মধ্যেও হার্টের সমস্যা কিংবা অন্যান্য সমস্যা নতুন নয়। কাজের চাপ কিংবা খাবারে সঠিক পরিমাণে পুষ্টি না থাকায় মহিলাদের স্বাস্থ্য ভেঙে পড়ার খবর এখন হামেশাই মেলে। ইউরোপীয় হার্ট জার্নালে বলা হয়েছে, অন্যান্য মৌলসমৃদ্ধ খাবারের মতো পটাশিয়াম যুক্ত খাবার বেশি খেলে মহিলাদের হার্টের স্বাস্থ্য অনেক বেশি ভাল থাকছে।

Advertisement

গবেষণায় উঠে এসেছে- যে মহিলারা বেশি পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবার খান, তাঁদের হার্টের রোগ হওয়ার সম্ভাবনা বাকিদের তুলনায় ১৩% কম।

  • রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখার মন্ত্র-

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবার একান্ত জরুরি। পটাশিয়াম যুক্ত খাবার খেলে তা শরীরে সোডিয়ামের পরিমাণ কমায়। এ ছাড়াও শিরা ধমনীতে চাপ কমিয়ে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতেও সাহায্য করে।

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

  • ডায়েটে থাক পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবার-

বাজারচলতি সাপ্লিমেন্ট ফুড খাওয়ার বদলে খুব সহজেই আপনার ডায়েটের রাখতে পারেন এমন খাবার, যা পটাশিয়ামে ভরপুর। যেমন- অ্যাপ্রিকট, অ্যাভোকাডো, দই, দুধ, আঙুর, সবুজ শাক, সবজি, মাশরুম, কমলালেবু, কড়াইশুঁটি, আলু, কিশমিশ, টমেটো, কলা, ভাত ইত্যাদি।

  • ডাক্তারের পরামর্শ নিন-

স্বাস্থ্য ভাল রাখতে পটাশিয়াম জরুরি। তবে খাবারে যে কোনও মৌল বেশি থাকলে তৈরি হতে পারে নানা ধরনের শারীরিক সমস্যা। যেমন, অতিরিক্ত পটাশিয়াম ডায়েটে থাকলে কিডনির ক্ষতি হয়ে যেতে পারে। পেটের সমস্যা, দুর্বল পালস রেট এবং মাথা ঘোরা ধরনের উপসর্গ নিয়মিত দেখা গেলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন। অনেক সময়ই রক্তে পটাশিয়ামের মাত্রা বেড়ে গেলে এ ধরনের সমস্যা তৈরি হতে পারে।

এই প্রতিবেদনটি 'আনন্দ উৎসব' ফিচারের অংশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.