Advertisement
Durga Puja 2022

জুহু হোক বা পুরী, কেপটাউন বা দীঘা, সমুদ্র সৈকতে গেলে সঙ্গে রাখুন এই জরুরি জিনিসগুলি

‘সাগর কিনারে দিল ইয়ে পুকারে’। তবে সমুদ্র সৈকতে গেলে খেয়াল রাখুন কয়েকটি বিষয়ে।

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

আনন্দ উৎসব ডেস্ক
শেষ আপডেট: ০১ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০০:০৯
Share: Save:

অনেকেই মনে করেন, সেই ব্যক্তি খুব ভাগ্যবান যার পাশে একটি সমুদ্র আছে। যিনি সকালের চায়ের কাপে চুমুক দিতে দিতে সমুদ্রের ঢেউ গুনতে পারেন। আসলে সবাইয়ের বাড়ি তো ‘মন্নত’ নয়! আর সকলেই শাহরুখ নন। অথবা মিস্টার ইন্ডিয়ার শ্রীদেবীর মতো, …আগে ব্যালকনি, ব্যালকনি কে আগে সমুন্দর… এ তো মধ্য়বিত্তের কল্পনা! স্বপ্ন! তাই তো ছুটে যাই যখন তখন। ভেসে যেতে চাই ঢেউয়ের মধ্যে আর তাই ,সমুদ্র ভ্রমণ এত প্রিয় এত মধুর। ‘সাগর কিনারে দিল ইয়ে পুকারে’। তবে সমুদ্র সৈকতে যেতে খেয়াল রাখুন কয়েকটি বিষয়ে।

Advertisement

বিমা

ইন্স্যুরেন্স বা বিমা ব্য়াপারটা কী, আমরা জানি প্রায় সকলেই। কিন্তু ভ্রমণেরও যে ইন্স্যুরেন্স হয়, আলাদা করে, সেটা অনেকেরই অজানা। শুধু সমুদ্রে নয়, যে কোনও জায়গায় যেতে বিমা প্রয়োজন। বিপদ কখন কী ভাবে আমাদের জীবনে আসতে চলেছে, কেউই আন্দাজ করতে পারি না। মেডিক্যাল পরিস্থিতি, ব্যাগ চুরি, পাসপোর্ট হারিয়ে যাওয়া– এই রকম অনভিপ্রেত পরিস্থিতিতে কাজে আসে ট্রাভেল ইন্স্যুরেন্স।

ড্রাই ব্যাগ

Advertisement

সমুদ্র সৈকতে যাওয়ার জন্য আদর্শ হল এই সিলিন্ডারের মতো দেখতে ড্রাই ব্যাগ। এটি আসলে কী? জলে কোনওভাবে পড়ে গেলেও ভেজে না। সমুদ্র পাড়ে যাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত জিনিসপত্র এই ছোট ব্যাগটিতে নিয়ে আপনি নির্ভয়ে সমুদ্রস্নান করতে পারবেন।

মাইক্রোফাইবারের তোয়ালে:

সাধারণ তোয়ালের তুলনায় মাইক্রোফাইবার তোয়ালে খুবই পাতলা ও হালকা। এই ধরনের তোয়ালে নিয়ে সমুদ্রে যাওয়া তুলনামূলকভাবে সুবিধাজনক। অতি সহজেই জল শুষে নেয় এটি, আবার শুকিয়েও যায় তাড়াতাড়ি, ফলে বাড়তি ঝামেলা থাকে না। তা ছাড়া খুবই হালকা হওয়ার কারণে এটি ট্র্যাভেল ব্যাগে নিতেও অসুবিধে হবে না।

সানস্ক্রিন, টুপি ও রোদ চশমা:

সমুদ্র ভ্রমণ মানেই সানবাথ, বিচে হাত পা ছড়িয়ে হারিয়ে যাওয়ার মুহূর্ত। ত্বকে যদি ট্যান না চান তবে একটা ভাল সানস্ক্রিন, টুপি, রোদ-চশমা অবশ্যই সঙ্গে রাখুন। অনেক ধরনের সানস্ক্রিন আছে, নিজের ত্বকের ধরন অনুযায়ী বেছে নিন। সৈকতে যেহেতু অনেকক্ষণ রোদ্দুরে থাকতে হবে তাই এসপিএফ একটু বেশি হলে ভাল। ত্বক অতিরিক্ত তৈলাক্ত হলে জেল বেস সানস্ক্রিন ভাল বিকল্প। যাঁদের সানস্ক্রিন ব্যবহারের অভ্যেস নেই তাঁরা অল্প সানস্ক্রিন নিয়ে কনুইয়ে লাগিয়ে স্কিন টেস্ট করে তবেই ব্যবহার করতে শুরু করুন।

রোদ-চশমার ক্ষেত্রেও যত্নশীল হতে হবে। ভাল চশমাগুলি ইউভি প্রোটেক্টেড হয়, যা আপনার চোখকে সুরক্ষিত রাখবে। সস্তারগুলি কিন্তু ইউভি প্রোটেকশন থাকে না। পাশাপাশি চুলের যত্নও নিতে হবে, সমুদ্রের নোনা জল থেকে চুল বাঁচাতে ভাল তেলই হল ভরসা।

হ্যান্ড ব্যাগ / কেবিন ব্যাগ:

বলার কিছুই নেই, কেবিন ব্যাগ তো নিতেই হবে। অন্তত এক জোড়া জামাকাপড় এবং অত্যন্ত প্রয়োজনীয় জিনিসগুলি আপনার হ্যান্ড ব্যাগ/কেবিন ব্যাগেই রাখুন। টাকা-পয়সা দু’–তিনটি জায়গায় আলাদা করে রাখুন, যাতে কোনওভাবে যদি একটি হারিয়ে যায়, অন্যটি ব্যবহার করতে পারেন।

আরও পড়ুন:

আপনি যদি ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করতে অভ্যস্ত থাকেন, তবে বেড়াতে যাওয়ার আগে অতি অবশ্যই নির্দিষ্ট ব্যাঙ্কের সঙ্গে কথা বলুন আপনার ট্রিপের বিষয়ে। বিদেশে বেড়াতে গেলে সেই দেশের টাকা ব্যবহার করুন। এই ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট দায়িত্ব ব্যাঙ্ককেই পালন করতে দিন।

কেমন পোশাক:

সমুদ্র সৈকত মানেই উজ্জ্বল রঙের পোশাক। কাফতান, ফ্লোরাল শার্ট, টু -পিস পরতেই পারেন। ফ্লুরোসেন্ট কালার, নিয়ন গ্রিন, ফুশিয়া অসাধারণ। বিকিনি পরতে হলে অতি অবশ্যই আগে গা-হাত-পা ওয়াক্সিং করে নেবেন।

এই প্রতিবেদনটি ‘আনন্দ উৎসব’ ফিচারের অংশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.