বিদেশে ছুটিতে। তবু জন্মদিনে আজ ঢালাও শুভেচ্ছা কুড়োলেন রাহুল গাঁধী। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সকালে টুইট করে শুভেচ্ছা জানালে ধন্যবাদ জানান রাহুলও। তবে বিজেপির অনেক নেতা এ দিনও সোশ্যাল মিডিয়ায় কংগ্রেস সহ-সভাপতির বিদেশ সফর নিয়ে কটাক্ষ করেছেন। অনেকেই বিঁধছেন, জন্মদিনটা বিদেশে কাটাতেই তিনি এখন দেশে নেই।

এই দফায় রাহুল ‘দিদা ও পরিবারের লোকজনের সঙ্গে সময় কাটাতে’ বিদেশে যাওয়ার কথা টুইট করে জানানোর পরেই বিজেপি নেতারা আক্রমণ শানিয়েছিলেন তা নিয়ে। ঢল নামে বিদ্রুপ-কটাক্ষের। কিন্তু আজ যখন মোদী ও অন্যান্য দলের নেতানেত্রীরা সকলেই তাঁকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন, তাঁদের উল্টো পথে হেঁটে বিজেপির ওই অতি-উৎসাহী নেতাদের কটাক্ষ ও মন্তব্যকে রাজনৈতিক অসৌজন্যের পরিচয় বলেই মনে করছেন অনেকে। কংগ্রেসের নেতারা শুধু নন, বিজেপির প্রবীণ নেতাদেরও কেউ কেউ ঘরোয়া আলোচনায় বলছেন, এ দিন অন্তত এমন আক্রমণের প্রযোজন ছিল না। আক্রমণটা রাজনীতির উঠোনে সীমাবদ্ধ রেখে চললেই ভাল হতো।

আরও পড়ুন: রাইসিনায় মোদীর তাস রামনাথ

প্রধানমন্ত্রী যেমনটি করেছেন। বিভিন্ন সময়ে রাহুলকে বিভিন্ন ভাবে কটাক্ষ করলেও জন্মদিনে শুভেচ্ছার বাইরে যাননি। রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী চূড়ান্ত করার আগেই সকাল সকাল তিনি শুভেচ্ছা জানান রাহুলকে। টুইটে লেখেন, ‘‘কংগ্রেসের সহ-সভাপতি রাহুল গাঁধীকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা। তাঁর দীর্ঘ ও সুস্থ জীবন কামনা করি।’’ জবাবে রাহুল লেখেন, ‘‘আপনার শুভেচ্ছার জন্য ধন্যবাদ প্রধানমন্ত্রীজি।’’ মোদী সরকারের কিছু মন্ত্রী, দলের নেতারাও শুভেচ্ছা জানান। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে লালু প্রসাদের মতো নেতাদের শুভেচ্ছা জানান টুইটারে। মমতাকে রাহুল লেখেন, ‘‘শুভেচ্ছার জন্য অনেক ধন্যবাদ মমতা দিদি।’’