বিজেপিতে যোগ দিয়ে দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে নিজের ক্যাপ্টেন বলেছিলেন মুকুল রায়। এ বার মুকুলকে দলের ‘গাইড’ বললেন দিলীপবাবু। বিজেপি-র রাজ্য ও কেন্দ্রীয় নেতারা মুকুলকে নিয়ে জেলা সফরে বেরিয়েছেন। শিলিগুড়িতে এসে দিলীপবাবুর মন্তব্য, ‘‘মুকুলবাবু আমাদের গাইড করছেন।’’ শিলিগুড়ির সভায় ছিলেন বিজেপি-র কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তিনিও বৃহস্পতিবার স্পষ্ট করে জানান, পঞ্চায়েত ভোটের রণনীতি তৈরিতে সাহায্য করছেন মুকুল।

উত্তরবঙ্গের জেলাগুলির সভাপতি, পর্যবেক্ষকদের এ দিন বৈঠকে ডেকেছিল বিজেপি। ছিলেন দলের কেন্দ্রীয় নেতা শিবপ্রকাশও। বর্ধমানে আজ, শুক্রবার পাঁচ জেলা নিয়ে বৈঠক রয়েছে। দিলীপ-কৈলাসের সঙ্গে এ দিন সাংবাদিক সম্মেলনে ছিলেন মুকুলও। দিলীপবাবু বলেন, ‘‘আমরা বিশেষ ভাবে মুকুলবাবুকে জেলায় জেলায় নিয়ে যাচ্ছি। তাঁর নিজের বিস্তর অভিজ্ঞতা রয়েছে। জেলা সফরের আগে তিনি পড়াশোনাও করছেন।’’ মুকুল তথ্য ঘেঁটেই দাবি করেছেন, উত্তরবঙ্গের ৬ লোকসভা আসনে পরের বার তৃণমূল হারবে। তাঁর ব্যাখ্যা, ‘‘গত বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি বেশি ভোট না পেলে তৃণমূল ২১১ কেন, ১৭৪টি আসনও পেত না। বিজেপি ভাল ভোট পেয়েছে বলেই তৃণমূল উত্তরবঙ্গের লোকসভাগুলি জিতেছে। এ বার বিজেপি আরও বেশি ভোট পাবে। তৃণমূল হারবে।’’

মুকুলবাবুর ফোন ট্যাপ সংক্রান্ত মামলার শুনানি ছিল এ দিন। সংবাদমাধ্যমের ফোনও ট্যাপ হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলে মুকুলের মন্তব্য, ‘‘এ রাজ্যে এখন সিদ্ধার্থ রায়ের আমলের চেয়েও বেশি সন্ত্রাস হচ্ছে!’’ মুকুলকে স্বাগত জানাতে নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশনে ভিড় উপচে পড়ে। তাতে তৃণমূলের কিছু চেনা মুখও ছিল বলে দাবি।