১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২২ বৃহস্পতিবার ২৮ মে ২০১৫

গল্পই যখন হিরো

তারকা বা অ্যাকশন-নাচাগানা নয়। টালিগঞ্জের নতুন হিরো এখন কনটেন্ট অর্থাৎ গল্প। লিখছেন ঋজু বসু।


১

রোজ ওয়েট মেশিন দেখবেন না

মন দিয়ে ওয়ার্কআউট করুন। ওজন হাসতে হাসতে কমবে। আপনার ফিটনেস বিশেষজ্ঞ এবার চিন্ময় রায়।


1

হাওয়া মে উড়তা যায়ে...

মৈনাক ভৌমিক পরিচালিত ‘মাছ মিষ্টি & মোর’-এর রাইমা সেনকে মনে আছে? এলোচুলে আলগা স্কার্ফ বাঁধা ফুরফুরে রাইমা এক গানের দৃশ্যে নায়ক পরমব্রতর সঙ্গে ঘুরে বেড়াচ্ছেন শহর কলকাতা। শুধু রাইমা কেন? বলিউডের কঙ্গনা রানাওত, করিনা কপূর খান, সুজান খান বা প্রিয়ঙ্কা চোপড়ারাও স্কার্ফের নানা ফ্যাশন স্টেটমেন্টে অহরহ সাজিয়ে তোলেন নিজেদের। ভারতীয় বা ওয়েস্টার্ন পোশাককে বাড়তি মাত্রা দিতে বা চুলকে আলগা যত্নে বেঁধে ফুরফুরে বোহেমিয়ান ফ্যাশনে বসন্তের মেজাজ ধরে রাখতে — স্কার্ফের কি সত্যিই কোনও বিকল্প আছে?


১

ফার্স্ট লুক

ক্যামেরাবন্দি সেলেবদের নানা মুহূর্ত।


logo

মৃত্যু যে কত কাছে হাড়ে হাড়ে বুঝলাম

বিজ্ঞান ভবনে জাতীয় পুরস্কার পাওয়ার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই ভয়াবহ অটো দুর্ঘটনা। তিন সপ্তাহ এইমস-এর ট্রমা সেন্টারে কাটিয়ে বৃহস্পতিবার কলকাতা ফিরছেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। তার আগে নয়াদিল্লির আইটিইউতে শুয়ে শুয়েও একমাত্র আনন্দplus-এর সঙ্গে হল ফোন আড্ডা। এ পারে ইন্দ্রনীল রায়


logo

কবি-উস্তাদের যুগলবন্দি

একজন রামপুর সেহসওয়ান ঘরানার ধারক ও বাহক। আর একজন এই সময়ের বিশিষ্ট বাঙালি কবি। উস্তাদ রাশিদ খান ও কবি শ্রীজাত। এবার আঁটঘাট বেঁধে অ্যালবাম তৈরির কাজে নামছেন দু’জন।


logo

শেষ পাতের মাংসটা ভাল

অচেনা উইকেটে ব্যাট করার নিয়ম হল প্রথমে দেখে খেলো। রান না উঠলেও ক্ষতি নেই। কিন্তু প্রথমেই উইকেটটা দিয়ে এসো না। পরিচালক অনিকেত চট্টোপাধ্যায়ও সেটাই করেছেন। ‘বাই বাই ব্যাঙ্কক’, ‘গোড়ায় গণ্ডগোল’‌য়ের মতো জনপ্রিয় কমেডি ছবির পরিচালকের এটাই প্রথম থ্রিলার। তাই তিনি ধরেই খেলেছেন। স্টেপ আউট করে ছয় মারার ঝুঁকি নেননি। তাই সেঞ্চুরি হয়নি বটে, তবে দরকারি ষাট-পঁয়ষট্টি রানের ইনিংস দিব্যি খেলে দিয়েছেন ‘রুম নম্বর ১০৩’ ছবিতে।


logo

চাকরি ছাড়ার ভাবনা ছাড়ুন

ইদানীং শহরে মোবাইল নেটওয়ার্কের সমস্যায় জেরবার সকলেই। ফোনের কানেকশন কেটে যাওয়ায় সব চেয়ে বেশি নাজেহাল শহরের অভিভাবকরা। কারণ কর্মরত বাবা মায়েদের কাছে, সন্তানের সঙ্গে যোগাযোগের প্রধান মাধ্যমই তো মোবাইল। মেয়ে নতুন ক্লাসে কোন টেবিলে বসল, কে ক্লাস টিচার, বা ছেলের ক্রিকেট কোচিং-এ যাওয়ার আগে খাবারের কথা মনে করিয়ে দেওয়া, এই সব ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ কথা কি মোবাইল ছাড়া হয়, বলুন তো। হ্যাঁ, কারণ কর্মরত বাবা মায়েদের কাছে সময় বলতে ওই টিফিন ব্রেক কিংবা ক্লায়েন্ট মিটের মাঝের সময়টুকু।


logo

ফার্স্ট টেক

সেলেবদের নানা মুহূর্ত


1

কানভাসি

কখনও ঝড় তুললেন ফ্যাশনে। আবার কখনও তাঁরাই ঝড়ে উড়ে গেলেন কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের রেড কার্পেটে। লিখছেন নাসরিন খান।


1

না রাখলে মিস

ফোনে এই তিনটে অ্যাপস মাস্ট। লিখছেন অরিজিৎ চক্রবর্তী।



1

বিরুষ্কাকে নিজেদের মতো থাকতে দিন

ফারহা খান: আমি যদি কিছু বলি তা হলে সেটা ভীষণ বিতর্কিত হয়ে যাবে। তাই দূরে দূরে থাকছি। আমি শুধু বিশ্বাস করি ব্যক্তিগত জীবনে মানুষকে স্পেস দিতে। এখানেও বা ব্যতিক্রম হবে কেন? ভাইচুং ভূটিয়া: মিডিয়া এই ব্যাপারটা নিয়ে বড় বেশি বাড়াবাড়ি করছে। কখনও কখনও মিথ্যে লেখা হচ্ছে, যেটা খুব অন্যায়। ওরা দুজনেই হাইপ্রোফাইল। তাই মিডিয়া লিখবেই।


2

অনুরাগ কাশ্যপের কাছে আরও অনেক আশা ছিল...

দশে পাঁচ। না, এর বেশি নম্বর দেওয়া যায় না। কিন্তু ছবির টেকনিক্যাল কাজ এত ভাল হয়েছিল যে আরও অনেক বেশি নম্বর দেওয়া যেত যদি ছবির মধ্যে ‘গল্প’টা সহজ সরল ভাবে বলা হত। মার খেয়েছে ওখানেই। গল্পটা ১৯৪৯ সাল থেকে ১৯৬৯ সাল পর্যন্ত একটা পিরিয়ডের। জ্ঞান প্রকাশের লেখা। বম্বে শহরের ওই সময়কার ছবিটা খুব সুন্দর ভাবে তুলে ধরেছেন পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ আর তাঁর সিনেমাটোগ্রাফার রাজীব রবি।


3

ছ’মাসে ছ’কেজি কমান

রনি ব্রোয়ারকে চেনেন? না, না, গুগল করতে হবে না। আমিই বলে দিচ্ছি। ক্লিভল্যান্ডের রনি ব্রোয়ার গত দু’দিন ধরে টুইটারের ট্রেন্ড। কারণ? গত একবছরে ২০০ কেজি ওজন কমিয়েছে সে! তাও শুধু কয়েকটা সাধারণ ব্যায়াম আর টেলার সুইফ্টের গানের তালে নেচে! এই ব্লগের লক্ষ্যও তাই।তবে আমরা পরে ব্যাট করব। মানে আগেই টার্গেট ঠিক করে, রান তাড়া করার মতো সেই লক্ষ্যে এগিয়ে যাব।


4

ফার্স্ট টেক

ফ্রেমবন্দি তারকারা।


author image

হোক অর্ণব

রেওয়াজ করেন ঢাকার গুলশনে বসে। অথচ সে গান কিনা আছড়ে পড়ে যাদবপুরের ক্যাম্পাসে! সায়ন চৌধুরী অর্ণব নিজেও জানতেন না তাঁর ‘হোক কলরব’ এই ভাবে ছাত্রছাত্রীদের প্রতিবাদের গান হয়ে উঠবে। ক’দিন আগে কলকাতা ঘুরে যাওয়া গায়কের মুখোমুখি স্রবন্তী বন্দ্যোপাধ্যায়।


logo

বিদ্যা-সুজয়ের অসমাপ্ত ‘কহানি’

গল্পের শুরু হয়েছিল রূপকথার মতো। আন্দাজ করা হয়েছিল শেষটাও অনিবার্যভাবে তেমন হবে। আমার কথাটি ফুরোল, নটে গাছটি মুড়োল। অথবা দেন দে লিভড হ্যাপিলি দেয়ারআফটার। বইয়ের শেষ পাতায় যেমন লেখা থাকে— তাহার পর তারা সুখেই কালাতিপাত করিতে লাগিল। ‘তারা’ মানে বিদ্যা বালন ও তাঁর ঘনিষ্ঠতম পরিচালক-বন্ধু সুজয় ঘোষ। বিদ্যা+সুজয় = নিবিড় বন্ধুত্ব। হঠাৎই অচল এতদিনকার সেই ফর্মুলা। ‘কহানি-২’-টাই হচ্ছে না। লিখছেন গৌতম ভট্টাচার্য


authors face

বেনারস গিয়ে মনে হল ইতিহাসের ওপর হাঁটছি

ফিরছি কলকাতায় গরমে তেতে, পুড়ে, সেঁকে, ভাজা ভাজা হয়ে। শ্যুটিংয়ের প্রথম পর্ব শেষ করে। পৃথিবীর অন্যতম প্রাচীন শহর বেনারস থেকে। ফ্লাইটের স্টুয়ার্টের কাছ থেকে কিছু পাতা চেয়ে আমতা আমতা করে খুব সংকোচে শুরু করলাম আমার প্রথম ব্লগ! কত ইতিহাস, কত বিস্ময়কর চরিত্র এই শহরের! পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লোক ছুটে আসে শুধুই বেনারস দেখবে বলে। পুরাণে আছে শিব-পার্বতীর বাসস্থান এই কাশী। অনেকের বিশ্বাস এখনও তাঁরা নিত্য বিরাজমান। আবার অনেকে বলে রাজা সুভদ্রর পুত্র কাশ্য এই নগর স্থাপন করেন। তার থেকেই কাশীর নামকরণ হয়। আর এক মত, বরুণা আর অসি নদী গঙ্গায় মিশেছে। এবং এই দুই নদীর মধ্যে অবস্থিত বলে কাশীর আর এক নাম বারাণসী।


logo

সাহসী হটপ্যান্ট না আলসেমির পালাজো

ছুটির জন্য হাপিত্যেশ বসেছিলেন অনেক দিন? নতুন কেনা স্ট্র্যাপি বা টিউব টপ হোক কিংবা সাধের ম্যাক্সিড্রেস, এই ছুটিতেই না হয় রোদের মুখ দেখল! হটপ্যান্ট কিংবা শর্ট স্কার্ট, নেকলাইনে বাড়তি সাহসী হয়ে ওঠা—সব অ্যালাউড। যে কোনও জায়গাতেই দিব্যি মানিয়ে যায় কেপ্রি বা অন্য ছাঁদের থ্রি কোয়ার্টার প্যান্ট, ক্যামিসোল, পালাজো বা স্কার্ট। আর শীতের ছুটিতে সঙ্গী হোক জ্যাকেট, কেপ বা রংচঙে স্কার্ফ। তবে হ্যাঁ, সমুদ্রের রিসর্ট হলে ব্যাগে একটা কায়দার স্যুইমওয়্যার কিন্তু মাস্ট।


1-2

সব বাবাই আসলে পিকুর বাবা

বলিউডি ছবিতে আবারও বাঙালি নস্টালজিয়া। বাংলায় করতে চান বায়োপিকও। লোকে সুজিত সরকারকে ভালবাসে বলে ‘পিকু’ দেখতে যাচ্ছে বা ‘পিকু’কে ভাল বলছে এমনটা নয়। সিনেমাটা যাঁরা ভালবাসেন, সেই সিনেমাপ্রেমী মানুষই আজ ‘পিকু’র জন্য উচ্ছ্বসিত। বললেন সুজিত সরকার। শুনলেন স্রবন্তী বন্দ্যোপাধ্যায়


2

নেচে উঠল কবিতা

নাচের মঞ্চ থেকে কবিতার স্তবকে তনুশ্রীশঙ্কর। কাণ্ডটা ঘটল কী করে? ‘‘রবীন্দ্রনাথ বিভিন্ন ছন্দে গান লিখেছেন। সেগুলো গাওয়াও হয়। কিন্তু গানের মতো কবিতারও যে নানা ছন্দ আছে সেটা ভুলতে বসেছে বাঙালি। সেই ছন্দকেই ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করেছি ‘রিদমস অব টেগোর’ অ্যালবামে,’’ বললেন আবৃত্তিকার শোভনসুন্দর বসু।


1-2

বিশ্বকাপের নোংরামির সময়ও মনকে অস্থির হতে দিইনি

আর্মি অফিসারের মেয়ে। বলিউডের অন্যতম সেরা নায়িকা। বিরাট কোহলি-র বান্ধবী। আনন্দবাজার অফিসে অনুষ্কা শর্মা-র মুখোমুখি নাসরিন খান। বললেন, পিঠে খুব ব্যথা। তা সত্ত্বেও দৌড়াদৌড়িটা তো করতেই হচ্ছে। সেদিন এয়ারপোর্টে আমাকে দেখে একজন টুইট করেছেন যে আমি নাকি ‘ব্যাড মুড’য়ে আছি। যিনি এ কথা লিখছেন তিনি তো জানেন না আমি কতগুলো ব্যথার ওষুধ খেয়ে কাজ করছি। সব সময় যে মুখে হাসি লেগে থাকবে এমনটা তো নয়।


2-1

কাদম্বরী অবশেষে উদ্ধার পেলেন বটতলার গ্রাস থেকে

এই কবিপক্ষের সবচেয়ে মধুর বার্তাটি বয়ে আনল সুমন ঘোষের ছবি ‘কাদম্বরী’। যখন রবি ও নতুন বৌঠানকে উদ্ঘাটন ও ঔপন্যাসিকতার দোহাই পেড়ে প্রায় শয্যাসঙ্গী করে এনেছে বঙ্গীয় লেখক-প্রকাশককুল, তখন সুমনের এই ছবি— প্রাপ্ত তথ্য ও কল্পনার সুস্থ সন্নিবেশে— জাহাজের জ্বলন্ত ডেকে একক কাসাবিয়াঙ্কার মতো হয়েছে। ইতিহাস ও কল্পনার সংস্রবে এক সূক্ষ্ম লক্ষ্মণরেখা টেনে নিয়েছেন সুমন, কাদম্বরীর আখ্যায়িকাকে বটতলায় গ্রাস হতে দেননি।


1logo

ভাল লাগা ‘পেছন’ই ছাড়ে না

আলোড়ন ফেলেছে দু’টো ফিল্মই! একটা বাংলায়। একটা বিশ্বজুড়ে। একটাতে প্রবীণ সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। অন্যটায় অমিতাভ বচ্চন। কোন রসায়নে? আনন্দplus কারণ খুঁজল। ‘পিকু’-র মতো ছবিকে দশে নম্বর দেওয়ার ইচ্ছে থাকে না। তাই সেটা উহ্য রাখলেন কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়।


2-3

যুগলবন্দির ইচ্ছেগুলো

‘বেলাশেষে’র স্কোরবোর্ড জ্বলজ্বল করছে। পরিচালক শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় ও নন্দিতা রায়-এর মুখোমুখি নাসরিন খান।


3

শুধু ভাষার জন্য

এই প্রথম দুই বাংলার সাহিত্য, সঙ্গীত, চলচ্চিত্র, নাট্য-আঙিনার বিশিষ্ট জনেরা সমবেত হলেন ভাষার জন্য, ভাষা-শহিদের জন্য, উনিশের জন্য। ১৯৬১-র ১৯ মে রবীন্দ্র জন্মশতবর্ষে শিলচর রেলষ্টেশনে এগারোজন মানুষ পুলিশের নির্মম গুলিতে মারা গিয়েছিলেন। শুধুমাত্র মাতৃভাষায় অধিকারের দাবিতে আরও কয়েকজন প্রতিবাদী যুবক-যুবতীর যে মৃত্যু ঘটেছিল সেদিন, তাঁদের কথা মনে রেখেছি আমরা ক’জন? দুই বাংলার মানুষকে নিয়ে এক অভিনব অ্যালবাম করছেন ‘দোহার’-এর কালিকাপ্রসাদ। লিখছেন স্রবন্তী বন্দ্যোপাধ্যায়


1-8

রণবীর আবার আনন্দplus-এ সঙ্গে অনুষ্কা

নিজেকে বলেন আনন্দplus পরিবারের সংযুক্ত সদস্য। শেষ আমাদের দফতরে এসেছিলেন দু’বছর আগে। কিন্তু শুক্রবার বিকেলে পা দিয়েই প্রথমবারের কথা মনে পড়ে গেল তাঁর। বললেন, ‘‘আরে, এখানে বসেই তো বাংলার বিখ্যাত ডিরেক্টর ইন্টারভিউ করেছিলেন আমায়।’’ তাঁকে জানানো হল, সেই সৃজিত মুখোপাধ্যায় আপাতত অটো-দুর্ঘটনার জেরে দিল্লির হাসপাতাল বন্দি। উত্তরটা ভালমতো শুনবেন কী ততক্ষণে ভালবাসার অত্যাচারে রণবীর নিজেই বন্দি! ৬ প্রফুল্ল সরকার স্ট্রিটের বাইরে হাজারের বেশি লোক জড়ো হয়ে গিয়েছে। নিরাপত্তা ব্যবস্থা যে কোনও সময় ভেঙে পড়তে পারে।


1

পুরুষদের জন্য ডিজাইন করাটা খুব বোরিং

সাধারণ বাঙালি ক্রেতাদের ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকেন আপনি... আমার জামাকাপড় শিক্ষিত বাঙালিদের বাড়িতেও প্রচুর বিক্রি। অনাবাসী ভারতীয় বাঙালিরা প্রচুর কেনেন। মেয়েদের জন্য কোনও কোনও সময় আপনি আপাদমস্তক ঢাকা পোশাক ডিজাইন করেন। এত ঢাকাঢুকি কীসের? তা নয়। আমি সাধারণ মেয়েদের কথা ভেবেই ডিজাইন করি।


1

ক্যাটরিনাকে পরের বছর বিয়ে করছি

রাত দেড়টা অবধি ভারতের নানা প্রান্তের সাংবাদিকদের সঙ্গে ‘বদতমিজ দিল..’ নেচেছেন। সকাল এগারোটার মধ্যে আবার রেডি হয়ে ব্রেকফাস্টে সবার সঙ্গে ইয়ার্কি। মাঝে মধ্যে সিগারেট আর ডাবের জল খেতে খেতে গোয়ার পার্ক হায়াত-এ শুরু হল আড্ডা... গোয়ার কটেজে একান্তে বসে রণবীর কপূর।


1

আঁতলামি নেই বিনোদন আছে

নন্দিতা রায়, শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের যুগ্ম পরিচালনার ছবি বলতে এই ক’বছরেই একটা ব্র্যান্ড দাঁড়িয়ে গিয়েছে। খুবই সমসাময়িক বিষয়, গোছানো গল্প, মাপাজোকা চিত্রনাট্য, বিনোদন ও চিন্তার ভারসাম্য, অযথা আঁতলেমি নয়, নির্মাণের পারিপাট্য এবং বাঙালির মন বোঝা। এর সবই ওঁদের সদ্যমুক্ত ‘বেলাশেষে’ ছবিতে আছে। মনে রাখার মতো অভিনয় করেছেন সৌমিত্র-স্বাতীলেখা। লিখছেন শঙ্করলাল ভট্টাচার্য।


1

টু হট টু কুল

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু অধিনায়কের ফেসবুক ভক্তসংখ্যা দু’কোটির বেশি। টুইটারে এক কোটি ছুঁইছুঁই। এর মধ্যে বেশির ভাগই যে মহিলা, সেটা বুঝতে আইনস্টাইন না হলেও চলে। ট্রেনিং সেরে মাঠ ছাড়ছেন, জনৈক টিনএজার ‘আই লাভ ইউ কোহলি’ পোস্টার নিয়ে সামনে দাঁড়িয়ে। ব্যাট হাতে নামছেন, গ্যালারিতে অবধারিত ‘ম্যারি মি বিরাট’ পোস্টার। আইপিএল-এর সেরা পাঁচ ‘সেক্সি’ ক্রিকেটার বাছলেন প্রিয়দর্শিনী রক্ষিত।


1

টলিসংসারে নতুন অতিথি

অনেকদিন ধরে কানাঘুষো শোনা যাচ্ছিল। শেষমেষ গত রবিবার দিল্লিতে অশোকা হোটেলে সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের জাতীয় পুরষ্কার পাওয়ার সময় সবার সামনে এলেন তিনি। দেবপ্রিয়া বসু। পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের বান্ধবী। এমনিতে সৃজিতের গার্লফ্রেন্ড কে, তা নিয়ে ইন্ডাস্ট্রিতে সব সময়ই আলোচনা চলতে থাকে। অবশেষে সেই গু়ঞ্জনকে থামালেন নিজেই। ‘‘প্রিয়াকে অনেকদিন ধরেই চিনি।


1

কাদম্বরী ও রাষ্ট্রপতি

তিনি কাদম্বরী— কঙ্কনা সেন শর্মা, ছিলেন। ছিলেন তাঁর স্বামী জ্যোতিরিন্দ্রনাথ— কৌশিক সেন। ছিলেন অন্যতম গায়ক বাবুল সুপ্রিয়। ছিলেন না তিনি বাংলাদেশে শ্যুটিংয়ে ব্যস্ত— রবীন্দ্রনাথের ভূমিকায় থাকা পরমব্রত। কিন্তু গত পয়লা মে রাষ্ট্রপতি ভবনে সুমন ঘোষ পরিচালিত ‘কাদম্বরী’র প্রথম এবং বিশেষ স্ক্রিনিংয়ের ঔজ্জ্বল্য তাতে এতটুকু কমেনি।


1

সপনো কি তিন রানি

ইন্দ্রাণী হালদার, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। কখনও দার্জিলিংয়ের টয় ট্রেনে। কখনও সুখনার জঙ্গলে। মঙ্গলবার দাপিয়ে চলল ‘আরও একবার’ ছবির শ্যুটিং। পরিচালক জন।


1

নওয়াজিয়ানা

দুপুরবেলা। এমনিই বসে বসে আমাদের মেক আপ ভ্যানে সিগারেট খাচ্ছিলাম আমি আর ও। সকালে শ্যুটিং স্পটে পৌঁছতেই পরিচালক সুজয় ঘোষ আমাকে আলাদা করে বলে দিয়েছিল, ‘‘পরম, ‘কহানি’র খুব গুরুত্বপূর্ণ সিনের শ্যুটিং কিন্তু আজকে। রেডি থাকিস।’’ সেইমতো ভ্যানে বসে কনসেনট্রেট করছি। এর মধ্যেই সুজয়ের অ্যাসিসটেন্ট এসে বলল শট রেডি। পরে ‘কহানি’র ওই সিন-টা নিয়ে বহু চর্চা হয়েছে।


1

বাঁচাতে চেষ্টা করলেন বব বিশ্বাস

অব তক এইট্টি নাইন। নানা পটেকরের ছিল ছাপ্পান, শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ের এইট্টি নাইন। তবে নানা ছিলেন কি না পুলিশ অফিসার, আর শাশ্বত সেজেছেন সিরিয়াল কিলার। বব বিশ্বাসের মতো ভাড়াটে খুনি না। ‘এইট্টি নাইন’-এ খুন করাটাই শাশ্বতর প্যাশন। তাঁর স্বপ্ন, পৃথিবীর পয়লা নম্বর সিরিয়াল কিলার হয়ে ওঠা। পরিচালক মনোজ মিশিগানের আগের দু’টি ছবি বক্স অফিসের তেমন দাক্ষিণ্য পায়নি।


1

রাধিকার কিছু যায় আসে না

ঝাউতলার একটা ছোট বাড়িতে আমি আর সিনেমাটোগ্রাফার অভীক মুখোপাধ্যায় গানটা কী ভাবে শ্যুট করব তার প্ল্যানিং করছি। কথাবার্তা শেষ। এ বারে টেকের জন্য ক্যামেরা রেডি। যে মেয়েটা এতক্ষণ সেটে সবার সঙ্গে বাচ্চার মতো মিশছিল, ক্যামেরা অন করতেই সে যেন পরিপূর্ণ, সদ্য প্রেমে পড়া এক নারীতে পরিণত হল। বাঙালি মনে রাধিকা আপ্তে মানে ‘যাও পাখি’র মেয়েটা। কিন্তু সেই মেয়ের নগ্ন ছবি হঠাৎ ছড়িয়ে গেল নেটে। ক্রুদ্ধ-ব্যথিত পরিচালক অনিরুদ্ধ রায়চৌধুরী লিখছেন তাঁর মনের কথা।


1

বাইশ গজে তারকারা

বুধবার বিকেলে সল্ট লেকের বিসি ব্লকে সেলিব্রিটি ক্রিকেট ম্যাচে ছিল টানটান উত্তেজনা। ভরপুর বিতর্ক। হাজির ছিল একমাত্র আনন্দplus




বিশেষ বিভাগ