Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৪ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

অতিরিক্ত স্যানিটাইজার-সাবানে ত্বকের ক্ষতি, কী কী মানতে বলছেন চিকিৎসকরা

স্নানের যে সাবানের গুণমান ভাল, তা দিয়ে হাত ধুলে ক্ষতির সম্ভাবনা অনেকটাই কম।

রোশনি কুহু চক্রবর্তী
কলকাতা ২৭ অক্টোবর ২০২০ ১৭:৩১
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

বার বার সাবান জলে হাত ধুলে কিংবা স্যানিটাইজার ব্যবহার করলেও মুশকিল হচ্ছে। ত্বকের নানা অসুখ নিয়ে চিকিৎসকদের দ্বারস্থ হচ্ছেন অনেকেই। ত্বকে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ আবার ভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকিও বাড়িয়ে দিচ্ছে। তাই ভারসাম্য মেনে চলার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎকরা।

বার বার সাবান জলে হাত ধোওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন মেডিসিনের চিকিৎসক অরিন্দম বিশ্বাস। তিনি বলেন, ''বাজার-চলতি অনেক স্যানিটাইজারেই গুণমানের সমস্যা রয়েছে সাধারণত ৬৫-৭০ শতাংশ অ্যালকোহলযুক্ত স্যানিটাইজার ব্যবহার করলে সেটি ভাইরাসনাশক হতে পারে।''

জনস্বাস্থ্য চিকিৎসক সুবর্ণ গোস্বামীর কথায়, ''স্নানের যে সাবানের গুণমান ভাল, তা দিয়ে হাত ধুলে ক্ষতির সম্ভাবনা অনেকটাই কম। কিন্তু ডিটারজেন্ট বা কাপড় কাচার সাবান দিয়ে আমাদের মতো তৃতীয় বিশ্বের দেশে অনেকেই হয়তো হাত ধুচ্ছেন। সমস্যাগুলো প্রকট হয়ে উঠছে তখনই।''

Advertisement



অ্যালকোহল-যুক্ত স্যানিটাইজার হাতের স্বাভাবিক তৈলাক্ত ভাব ধ্বংস করে দেয়

ত্বক চিকিৎসক অরিত্র সরকারের মতে, গ্লাভসের ভুল ব্যবহারেও সংক্রমণ বাড়ছে।

কী ধরনের সমস্যা

• হাত শুকিয়ে যাচ্ছে বা খসখস করছে

• হাতে চুলকানি

• চামড়া উঠে যাচ্ছে

• চামড়া লাল হয়ে গুটি গুটি লাল রঙের র‌্যাশ বেরচ্ছে

কেন এই হাল?

হাতের ত্বকে যে কেরাটিনোসাইট রয়েছে, তাতে লিপিডের স্তর থাকে। যে কোনও সাবান বা অ্যালকোহলে বার বার হাত ধুলে লিপিডের স্তর উঠে যেতে পারে, বিশেষ করে কড়া ডিটারজেন্ট হাতে লাগলে হাত শুকিয়ে যায়। ফলে ত্বকের যে আসল কাজ অর্থাৎ সুরক্ষা বা বেরিয়ার ফাংশন, তাতে ব্যাঘাত ঘটে। অ্যালকোহল-যুক্ত স্যানিটাইজার হাতের স্বাভাবিক তৈলাক্ত ভাব ধ্বংস করে দেয় বলে ত্বক শুকিয়ে গিয়ে সমস্যা হয়।

আরও পড়ুন: করোনা আবহে বাড়িতে অতিথি? কী কী খেয়াল রাখতেই হবে



যে কোনও সাবান বা অ্যালকোহলে বার বার হাত ধুলে লিপিডের স্তর উঠে যেতে পারে

অরিত্রর পরামর্শ-

• নখ বড় রাখা যাবে না।

• সাবান দিয়ে হাত ধোওয়ার পর ভাল কোনও ময়শ্চারাইজার (মেডিকেটেড) ব্যবহার করতে হবে। তবে খাবার খাওয়ার আগে কখনওই নয়।

• সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে হাত মুছে নিতে হবে পরিষ্কার কোনও কাপড়ে। ময়শ্চারাইজার না থাকলে পেট্রলিয়াম জেলি বা তরল প্যারাফিন বেসড অথবা নরম প্যারাফিন বেসড ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে।

• সুতির গ্লাভস ব্যবহার করতে হবে।

• ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করা তৃতীয় বিশ্বের দেশে সকলের পক্ষে সম্ভব নয়, সে ক্ষেত্রে নারকেল তেল ব্যবহার করা যেতে পারে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement