Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৪ জুলাই ২০২৪ ই-পেপার

Breakfasts in Kolkata: সকালের জলখাবার বাইরে সারবেন? রইল শহরের সেরা কিছু ঠিকানা

চাইনিজ জলখাবার না কি কচুড়ি-জিলিপি? দিন শুরু করুন যে ভাবেই, শহরে রয়েছে একাধিক গন্তব্য।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ১৯:৩১

শহরে কোথায় কোন ধরনের জলখাবার পাবেন, এক নজরে জেনে নিন।

ছুটির দিনে ভোরবেলা সপরিবারে বেরিয়ে পড়েছেন? তা হলে লং ড্রাইভের পাশাপাশি জলখাবারের পরিকল্পনা তো থাকবেই। শহরে কোথায় কোন ধরনের জলখাবার পাবেন, এক নজরে জেনে নিন।

চাইনিজ জলখাবার

সাতসকালে বেরিয়ে পড়লে টেরিটি বাজার আপনার খিদে মেটানোর জায়গা হতেই পারে। কলকাতার পুরনো চায়না টাউন হিসেবে পরিচিত টেরিটি বাজার হল অভিবাসী চীনা সম্প্রদায়ের আবাসস্থল এবং কলকাতার সাংস্কৃতিক ইতিহাসের একটি অপরিবর্তনীয় অংশ। প্রাতরাশের বাজার, যা সকাল ৬টায় খোলে, সেখানে আপনি পাবেন স্টিম্‌ড মোমো, চিকেন মোমো, ফিশ মোমো, পর্ক মোমো, চিকেন তাই পাও, শুমাই, সসেজ, প্রন ওয়েফার, হট স্যুপ নুডুলস, স্টিম্‌ড বাওজি বান, চিকেন রোল সসেজ, স্টাফড বান, শুয়োরের মাংসের রোল, ওয়ান্টনস ইত্যাদি বহু মুখরোচক খাবার। তবে সকাল ৭টার মধ্যে সব খাবার শেষ হয়ে যায়। তাই সময় ধরে পৌঁছতে হবে এই জায়গায়।

Advertisement
সাতসকালে বেরিয়ে পড়লে টেরিটি বাজার আপনার ক্ষুধা নিবারণের জায়গা হতেই পারে।

সাতসকালে বেরিয়ে পড়লে টেরিটি বাজার আপনার ক্ষুধা নিবারণের জায়গা হতেই পারে।


কচুরি-জিলিপি

জিভে জল আনা কচুরি-জিলিপি গরম গরম খেতে চাইলে শহরে রয়েছে একাধিক জায়গা। দক্ষিণ কলকাতায় দেশপ্রিয় পার্কের কাছে মহারানি কচুড়ির দোকান, পিজি হাসপাতালের কাছে বলওয়ান্ট সিংহ ধাবা, সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজের পিছনে অরুণ টি স্টল, বড়বাজারের একাধিক দোকান বা গিরিশ পার্কের মোড়ের কচুরি দোকান— সারা শহর জুড়ে নানা বিখ্যাত দোকান ছড়িয়ে রয়েছে। কোন দিকে সকালে বেড়াতে গিয়েছেন, সেই অনুযায়ী বেছে নিন।

জিভে জল আনা কচুরি-জিলিপি গরম গরম খেতে চাইলে শহরে রয়েছে একাধিক জায়গা।

জিভে জল আনা কচুরি-জিলিপি গরম গরম খেতে চাইলে শহরে রয়েছে একাধিক জায়গা।


কন্টিনেন্টাল

জলখাবারে টোস্ট-সসেজ-প্যানকেক খাবেন? কম খরচে খাওয়ার জন্য সদর স্ট্রিটের ব্লু স্কাই ক্যাফে বা রাজের স্প্যানিশ ক্যাফে চলে যেতে পারেন। তবে একটু বিলাসবহুল ভাবে জলখাবার সারতে পার্ক স্ট্রিটের ফ্লুরিজ দারুণ একটি জায়গা। তা ছাড়াও শহর জু়ড়ে রয়েছে আরও একাধিক রেস্তরাঁ এবং ক্যাফে যেখানে এই ধরনের খাবার পেয়ে যাবেন সহজেই।

কম খরচে খাওয়ার জন্য সদর স্ট্রিটের ব্লু স্কাই ক্যাফে বা রাজের স্প্যানিশ ক্যাফে চলে যেতে পারেন।

কম খরচে খাওয়ার জন্য সদর স্ট্রিটের ব্লু স্কাই ক্যাফে বা রাজের স্প্যানিশ ক্যাফে চলে যেতে পারেন।


ইডলি-দোসা

দক্ষিণী জলখাবার খেতে চাইলেও শহরের অনেক জায়গায় যেতে পারেন। যাদবপুর এইট-বি-র মোড়ে ইডলি-দোসা-সম্বর-বড়া পেয়ে যাবেন। রাসবিহারী অ্যাভিনিউয়ে রয়েছে ‘দ্য ব্যানানা লিফ’ রেস্তরাঁও। বিশাল লম্বা ‘ফ্যামিলি দোসা’ খেতে পারেন সপরিবারে। ধর্মতলার একাধিক দোকান খোলে সকাল সকালই। পেয়ে যাবেন মনের মতো দক্ষিণী খাবার।

দক্ষিণী জলখাবার খেতে চাইলেও শহরের অনেক জায়গায় যেতে পারেন। যাদবপুর এইট-বি-র মোড়ে ইডলি-ধোসা-সম্বর-বড়া পেয়ে যাবেন।

দক্ষিণী জলখাবার খেতে চাইলেও শহরের অনেক জায়গায় যেতে পারেন। যাদবপুর এইট-বি-র মোড়ে ইডলি-ধোসা-সম্বর-বড়া পেয়ে যাবেন।


Advertisement