Follow us on
Powered by
Co-Powered by
Co-Sponsors
Powered by
Co-Powered by
Co-Sponsors

শুধু শহরের রাস্তায় নয়, অন্দরসজ্জাতেও জনপ্রিয়তা বাড়ছে ‘দেওয়াল লিখন’-এর

ছবি স্মৃতির কাজ করে। তাতে আপনার আনন্দের মুহূর্ত গুলো আপনার অতিথিদের নজরেও খানিকটা আসবে।

শ্রুবা ভট্টাচার্য
কলকাতা| ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৮:৪২ শেষ আপডেট: ০২ মার্চ ২০২১ ১২:০২

বৈঠকখানা যদি আপনার অতিথিদের আকর্ষণ না করে তবে আপনার অবশ্যই মন খারাপ হবে। অথচ ফোটোফ্রেম ও ছবি দিয়েই বৈঠকখানা ও বাকি ঘরগুলোও গুছিয়ে সাজানো যায়। এখন যদিও বাজারে ছবির দাম অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। তাই অনেকেই চেষ্টা করেন যাতে ফোটোফ্রেম দিয়ে ঘরকে আরোও আকর্ষিত করে তোলা যায়। ছোটো থেকে বড়ো ফোটোফ্রেম দিয়ে আপনি ঘরকে সুন্দর ও চটকদার করে তুলতে পারে। ছবি স্মৃতির কাজ করে। তাতে আপনার আনন্দের মুহূর্তগুলো আপনার অতিথিদের নজরেও খানিকটা আসবে।

হালে বাঙালিদের অন্দরসজ্জায় জনপ্রিয়তা বাড়ছে ‘দেওয়াল-লিখন’-এর।


বৈঠকখানায় ঢুকতে একটি দেওয়াল খালি রেখে তাতে এমন একটি ফোটোফ্রেম রাখুন যা আপনার সবচেয়ে প্রিয় ছবিটি ধারণ করবে। বিরাট করে সেই ছবিটি রাখলে সকলেরই দৃষ্টি আকর্ষণ করবে। সেই বিরাট ছবির চারদিকে ছোটো ছোটো ফ্রেমে বাঁধিয়ে রাখুন আরোও কিছুর সুন্দর মুহূর্তের ছবি।

এ ছাড়া আপনি বাজারের থেকে বড় কোনও ছবি কিনে সেটাও সাঁটিয়ে দিতে পারেন একটি দেওয়ালে। আপনার দেওয়াল সেই দৃশ্যের কথা বলবে অসামান্য ভাবে। ছবিটি প্রাকৃতিক হতে পারে, হতে পারে কোনো মানুষের, কিংবা কারও আঁকা কোনো অ্যাবস্ট্রাক্ট ছবি।


শোওয়ার ঘরের বিছানার ঠিক ওপর দিকে আপনি রাখতে পারেন বিরাট একটি ছবি আপনার প্রিয়জনের সঙ্গে। অন্য দেওয়ালে টাঙিয়ে দিতে পারেন কিছু ‘অ্যাবস্ট্রাক্ট আর্ট’। যেগুলি আপনার ঘরের মাধুর্য অন্যমাত্রায় নিয়ে যাবে।

ছোটোদের ঘরের ক্ষেত্রে কিছু কার্টুনের ছবি বাঁধাই করে টাঙিয়ে দিতে পারেন। অথবা রাখতে পারেন ছোটোদের বন্ধুদের সঙ্গে কিছু ছবি। আপনার সন্তান ও আপনার ছবি। অথবা তার ছোটোবেলার কিছু ছবিও রাখতে পারেন আপনি।

এই ভাবে শুধু ছবি ও ফোটোফ্রেম দিয়ে সাজিয়ে তুলুন ঘরটিকে।

আরও পড়ুন