Advertisement
২৮ জানুয়ারি ২০২৩
E-Rupee

ই-টাকার লাভ-ক্ষতি, ব্যাখ্যায় অর্থনীতিবিদ সিদ্ধার্থ সান্যাল

সদ্য বাজারে আসা রিজার্ভ ব্যাঙ্কের ডিজিটাল মুদ্রা ‘ই-রুপি’ আসলে কী? কেনই বা ব্যবহার করবেন ই-টাকা? সহজ করে বুঝিয়ে দিচ্ছেন বন্ধন ব্যাঙ্কের মুখ্য অর্থনীতিবিদ।

প্রতিবেদন: প্রিয়ঙ্কর, চিত্রগ্রহণ: সুবর্ণা ও প্রিয়ঙ্কর, সম্পাদনা: সুব্রত

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৯ ডিসেম্বর ২০২২ ১৭:৪৫
Share: Save:

১ ডিসেম্বর বাজারে এসেছে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের ‘ই-রুপি’ বা ই-টাকা। আপাতত দিল্লি, মুম্বই, বেঙ্গালুরু ও ভুবনেশ্বরে পরীক্ষামূলক ভাবে এই পরিষেবা শুরু করেছে আরবিআই। স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া, ইয়েস ব্যাঙ্ক, আইসিআইসিআই ব্যাঙ্ক ও আইডিএফসি ফার্স্ট ব্যাঙ্ক আরবিআইয়ের অংশীদার হয়েছে এই পরিষেবা দেওয়ার জন্য। রিজার্ভ ব্যাঙ্কের ই-টাকা কি এক ধরণের ক্রিপ্টোকারেন্সি? এর সঙ্গে অন্যান্য ইউপিআই নির্ভর ডিজিটাল ওয়ালেটের পার্থক্য কোথায়? ই-টাকা ব্যবহারের সুবিধা কী? কতটা সুরক্ষিত এই ডিজিটাল মুদ্রা? আনন্দবাজার অনলাইনের দর্শকদের জন্য ই-টাকার ব্যাখ্যা দিলেন বন্ধন ব্যাঙ্কের মুখ্য অর্থনীতিবিদ ও রিজার্ভ ব্যাঙ্কের অর্থনৈতিক গবেষণা বিভাগের প্রাক্তন সদস্য সিদ্ধার্থ সান্যাল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
সর্বশেষ ভিডিয়ো

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.