Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৪ অক্টোবর ২০২২ ই-পেপার

প্রতিভাবানদের দুই হাতে বরণ করে নিতে পারে আমার শহর

বাংলার হয়ে দীর্ঘ দিন খেলার সুবাদে দেশের একাধিক রাজ্যে গিয়েছি। কিন্তু কলকাতার মতো মানুষের ভালবাসা, খাওয়া-দাওয়া কোথাও নেই।

সৌরাশিস লাহিড়ী
কলকাতা ০৩ মার্চ ২০২১ ১৮:৫৬

সৌরাশিস লাহিড়ী, ক্রিকেটার

আমার বাড়ি গঙ্গার ওপারে। হাওড়ায় বড় হলেও আমাদের এলাকা এতটাই কলকাতা লাগোয়া যে নিজেকে সবসময় কলকাতার ছেলে বলেই মনে হয়েছে। বাংলার হয়ে দীর্ঘ দিন খেলার সুবাদে দেশের একাধিক রাজ্যে গিয়েছি। কিন্তু কলকাতার মতো মানুষের ভালবাসা, খাওয়া-দাওয়া কোথাও নেই। বিশেষ করে কলকাতা ও আমাদের রাজ্যে ভাষা সমস্যা নেই। এই সমস্যার মুখোমুখি মারাত্মক ভাবে অন্য রাজ্যে হতে হয়েছে।

রাস্তাঘাট কিংবা নিকাশি ব্যবস্থার উন্নতির সঙ্গে কলকাতা আরও একটা বিষয়ে নিরাপদ। এই শহরে অনেক রাত পর্যন্ত ঘুরে বেড়ালেও কোনও দিন বিপদের মুখে পড়তে হয়নি। আরও একটা বিষয় এই শহরের খুব ভাল লাগে। এখানে ২০ টাকায় পেট ভর্তি খাবার পাওয়া যায়। তাই কেউ খালি পেট নিয়ে ঘুমোতে যায় বলে মনে হয় না।

Advertisement

সেই ছেলেবেলা থেকে ময়দানে ক্রিকেট খেলার সুবাদে সিএবি-র মানসিকতাও অনেক বদলে গিয়েছে। কেরিয়ারের শুরুর দিকে ভিন্‌ রাজ্যে রঞ্জি ট্রফি খেলতে গেলে ট্রেনে যেতে হত। এর আগে বয়সভিত্তিক প্রতিযোগিতা খেলার সময় ট্রেনের সাধারণ বগিতে ভারী কিট ব্যাগ নিয়ে উঠতে হত। ইদানীং কালে তো অনূর্ধ্ব ১৫, ১৭, ১৯, ২৩ দলের ছেলেমেয়েদের জন্যও বিমান পরিষেবার ব্যবস্থা থাকে। এটাও কিন্তু বড়সড় বদল।

আর একটা কারণে কলকাতার সুনাম আছে। কেউ যদি প্রতিভাবান হয় তাকে কিন্তু এই শহর দুই হাতে বরণ করে নিয়েছে। খেলাধূলা, সংবাদমাধ্যম, কর্পোরেট জগতে কাজ করা অনেক ছেলে-মেয়ে মফস্‌সল থেকে এখানে এসে রোজগার করে। ফলে এই কলকাতা কিন্তু আশা ও ভরসার শহর।

Advertisement