Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ মে ২০২২ ই-পেপার

Weekend Trip: সপ্তাহান্তে বেড়াতে যেতে যান? গিরিডি হতেই পারে আপনার পছন্দের ঠিকানা

ছোট-বড় অসংখ্য কয়লাখনি আছে ঝাড়খণ্ডের গিরিডি জেলায়। চারদিকে পাহাড়ে ঘেরা এই জেলার সৌন্দর্যে মুগ্ধ হবেন আপনিও।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ১৬:২৭

শহরের ভিড় থেকে দূরে খানিকটা স্বস্তির নিঃশ্বাস নিতে চাইলে গিরিডি হতেই পারে আপনার পছন্দের ঠিকানা।

অফিসে কাজের চাপে খুব বেশি দিন ছুটি নিয়ে ঘুরতে যাওয়ার অবকাশ নেই। ক্লান্তি কাটাতে কলকাতার আশপাশেই কোথাও ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন? আপনার পছন্দের তালিকায় থাকতেই পারে গিরিডি।

কালোসোনার জোরেই ঘুরছে গোটা বিশ্বের চাকা। আর এই কালোসোনার এক বৃহৎ উৎস গিরিডি। ঝাড়খণ্ডের রাজ্যের এই জেলা আজ পরিচিত এই খনিজ পদার্থের সূত্রেই। গিরিডি কথার অর্থ পাথরের ভূমি। ছোট-বড় অসংখ্য কয়লাখনি আছে ঝাড়খণ্ডের গিরিডি জেলায়। চারদিকে পাহাড়ে ঘেরা এই জেলার সৌন্দর্যে মুগ্ধ হবেন আপনিও। শহরের ভিড় থেকে দূরে খানিকটা স্বস্তির নিঃশ্বাস নিতে চাইলে গিরিডি হতেই পারে আপনার পছন্দের ঠিকানা।

গিরিডিতে গিয়ে কোথায় সময় কাটাতে পারেন রইল তারই হদিশ।

উস্রী জলপ্রপাত: সত্যজিত্ রায়ের অন্যতম সৃষ্টি প্রফেসর শংকুর বাড়ি ছিল এই গিরিডিতেই। তা ছাড়াও লেখকের অজস্র লেখনি এই ঝর্নার পাশে বসেই। গিরিডি স্টেশন থেকে ১৪ কিলোমিটার দূরে এই ঝর্নার। পৌঁছতে আধ ঘণ্টা মতো সময় লাগে। শান্ত নদীর জল ৪০ ফুট উঁচু পাহাড়ের ঢাল বেয়ে তিনটি ধারায় পড়ছে। চারদিকে ঘন জঙ্গল। দেখার মতো পরিবেশ।

Advertisement
 চারদিকে পাহাড়ে ঘেরা এই জেলার সৌন্দর্যে মুগ্ধ হবেন আপনিও।

চারদিকে পাহাড়ে ঘেরা এই জেলার সৌন্দর্যে মুগ্ধ হবেন আপনিও।


পরশনাথ পাহাড়: সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৪ হাজার ৪৮০ ফুট উঁচুতে অবস্থিত ঝাড়খণ্ডের সর্বোচ্চ পাহাড় পরশনাথ। এই পাহাড়ের মাথায় রয়েছে পরশনাথ মন্দির। জৈন ধর্মাবলম্বীদের কাছে এই মন্দিরটি একটি অত্যন্ত পবিত্র তীর্থস্থান। জৈন ধর্মের ২৪ জন তীর্থঙ্করের মধ্যে ২৩ জন তীর্থঙ্কর নাকি এই স্থানে এসেই সিদ্ধিলাভ করেন। তাঁরই নাম অনুসারে এই পাহাড়ের নাম হয় পরশনাথ পাহাড়। পরশনাথ মন্দির থেকে একটি পথ নেমেছে সীতানালায়। মনে করা হয়, বনবাসের পথে রাম ও সীতা এখানে বিশ্রাম নিয়েছিলেন। ট্রেকিংয়ের শখ থাকলে এই পাহাড় আপনার জন্য আদর্শ।

রানি সতী মন্দির: উস্রী জলপ্রপাতের কাছাকাছেই রানি সতী মন্দির অবস্থিত। ভক্তরা, যাঁরা পরশনাথ পাহাড়ের চূড়ায় জৈন মন্দির পরিদর্শন করতে আসেন, তাঁরা এই মন্দিরেও যেতে ভোলেন না। খুব বড় মন্দির না হলেও স্থানীয়দের মতে এই মন্দির অনেক জাগ্রত।

কী ভাবে যাবেন?

হাওড়া থেকে ধানবাদের যে কোনও ট্রেন ধরতে পারেন। ধানবাদ স্টেশন থেকে গাড়ি ভাড়া করেই পৌঁছে যাবেন গিড়িডি।

কোথায় থাকবেন?

গিরিডিতে অনেক হোটেল আছে। তবে সেখানে ধর্মশালার প্রচলন বেশি। কম টাকায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ঘর পাওয়া যায়। গিরিডি স্টেশনের পাশেই পেয়ে যাবেন বেশ কিছু ধর্মশালার হদিশ।

Advertisement