২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Techno India Group Public School

একুশ শতকের উপযোগী পঠনপাঠন, স্কুলশিক্ষার রূপান্তর ঘটাচ্ছে ‘টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপের স্কুলগুলি’

সল্টলেকে আমাদের গ্রুপের ‘টেকনো কিডস’ নামে একটি শিশুদের স্কুলও রয়েছে। বিদ্যালয়ের বিভিন্ন ইউনিট টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপ পাবলিক স্কুল বালুরঘাট, কোন্নগর, গড়িয়া, আড়িয়াদহ, মানকুণ্ডু, পানাগড়, গুশকরা, বর্ধমান, গুপ্তিপাড়ায় NCERT/ CBSE পাঠ্যক্রম অনুসরণ করে স্বমহিমায় অবস্থান করে চলেছে।

টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপ পাবলিক স্কুল

টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপ পাবলিক স্কুল

এবিপি ডিজিটাল ব্র্যান্ড স্টুডিয়ো
শেষ আপডেট: ২৮ অগস্ট ২০২৩ ১৩:১৯
Share: Save:

জীবনে সাফল্যের সঙ্গে সামগ্রিক বিকাশের পথ চেয়ে থাকা শিক্ষার্থীদের সঠিক পথে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলির অন্যতম টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপ। আজ, ৮০ হাজারেরও বেশি ছাত্রছাত্রী এবং ৫ হাজার কর্মচারী নিয়ে, গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা, পরামর্শদাতা তথা চেয়ারম্যান অধ্যাপক গৌতম রায়চৌধুরী এবং সহ-চেয়ারম্যান অধ্যাপক মানসী রায়চৌধুরীর দক্ষ নির্দেশনায় এটি পূর্ব ভারতের সর্ববৃহৎ শিক্ষামূলক গোষ্ঠী হিসাবে সম্মান ও পরিচিতি লাভ করেছে।

সল্টলেকে আমাদের গ্রুপের ‘টেকনো কিডস’ নামে একটি শিশুদের স্কুলও রয়েছে। বিদ্যালয়ের বিভিন্ন ইউনিট টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপ পাবলিক স্কুল বালুরঘাট, কোন্নগর, গড়িয়া, আড়িয়াদহ, মানকুণ্ডু, পানাগড়, গুশকরা, বর্ধমান, গুপ্তিপাড়ায় NCERT/ CBSE পাঠ্যক্রম অনুসরণ করে স্বমহিমায় অবস্থান করে চলেছে। পশ্চিমবঙ্গ উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা পর্ষদের অনুসরণকারী স্কুলটি হল দক্ষিণ কলকাতায় অবস্থিত টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপ একাডেমিয়া। এ ছাড়াও রাজ্য বোর্ড অনুসরণ করে স্কুল রয়েছে ইনদওর এবং ভোপালে। স্কুলের অভিজ্ঞ শিক্ষাকর্মীরা আন্তরিক উদ্যোগে তাঁদের বিষয়গত জ্ঞানের মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের ঋদ্ধ করে তাদের সর্বাঙ্গীন বিকাশ এবং ব্যক্তিত্ব পরিমার্জনের কাজটি সুচারুরূপে সমাধান করে চলেছেন।

স্কুলগুলি সুপরিসর শ্রেণিকক্ষ, অত্যাধুনিক গবেষণাগার, সমৃদ্ধ গ্রন্থাগার এবং সবুজ ক্যাম্পাস দ্বারা আবৃত। উদ্ভাবনী শিক্ষাবিদ্যার নতুন রূপগুলি অন্বেষণ করার লক্ষ্যে নির্মিত এই প্রতিষ্ঠানে আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি হল অভিনব দক্ষতার বিকাশ অর্জন করা, বিশেষত জটিল দক্ষতার বিকাশে শিক্ষাদান এবং শেখার পদ্ধতিগুলির উপযুক্ত ব্যবহার।

ফ্রেমওয়ার্কগুলি ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য নির্দিষ্ট দক্ষতা এবং দক্ষতার বিবরণ দিয়ে তৈরি করা হয়েছে, যার মধ্যে রয়েছে সমালোচনামূলক চিন্তাভাবনা, সমস্যা সমাধান, দলবদ্ধ কাজ, জনসংযোগ ও আলোচনার দক্ষতা; সাক্ষরতা, বহুভাষিকতা, STEM, ডিজিটাল, ব্যক্তিগত, সামাজিক, ‘শিখতে শেখার’ দক্ষতা, নাগরিকত্ব, উদ্যোগী হওয়া, সাংস্কৃতিক সচেতনতা এবং বিভিন্ন শিক্ষা-পদ্ধতির সঙ্গে সম্পর্কিত দক্ষতা।

শিক্ষার পদ্ধতি:

১. LMS- লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম, একটি সফ্টওয়্যার, যা সম্পূর্ণ রূপে টেকনো ইন্ডিয়া দ্বারা পরিচালিত প্রতি টেকনো ইন্ডিয়ান এবং বহিরাগতদের জন্য তৈরি করা হয়েছে।

  • মাল্টি-ডিসিপ্লিনারি অ্যাপ্রোচ- আমরা সব ধরনের বাচ্চাদের জন্য প্রতিটি পাঠ পরিকল্পনা তৈরি করি।
  • আর্ট ইন্টিগ্রেশন- আর্ট ইন্টিগ্রেশন আগ্রহভরে পাঠ পরিকল্পনায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।
  • সামগ্রিক বিকাশ- আমরা প্রতিটি শিশুর বিভিন্ন আন্তঃ-হাউস প্রতিযোগিতা, অলিম্পিয়াড, ক্রীড়া সভা, বিজ্ঞান প্রদর্শনী, শিল্প, সঙ্গীত এবং নৃত্য প্রতিযোগিতার মাধ্যমে তাদের বুদ্ধিবৃত্তি, মানসিক, শারীরিক এবং মানসিক দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সামগ্রিক বিকাশের দিকে লক্ষ্য রাখি। এটাই জীবনের চ্যালেঞ্জ।

২. অভিজ্ঞতামূলক শিক্ষা- এটি হল বিভিন্ন ক্রিয়াকলাপের হাত ধরে শেখার মাধ্যমে জ্ঞান অর্জন করা। আমরা বিভিন্ন হ্যান্ডস-অন কার্যক্রম পরিচালনা করি, যেমন: ফিল্ড ভিজিট, বিজ্ঞান প্রদর্শনী, শিল্প কারখানা পরিদর্শন এবং প্রকল্প ভিত্তিক শিক্ষা।

৩. অন্তর্ভুক্তিমূলক শিক্ষা- শিক্ষণ-শেখার প্রক্রিয়া বিশেষ শিশু-সহ সমস্ত শিক্ষার্থীদের সকল ক্ষেত্রের প্রয়োজন মেটাতে উদ্ভাবন করা হয়েছে। তাদের জন্য ওয়ান টু ওয়ান মুখোমুখি ক্লাসের ব্যবস্থা করা হয়েছে। স্কুলের সমস্ত উদযাপনে অংশগ্রহণের জন্যও উৎসাহিত করা হয় তাদের।

৪. কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা- ২১ শতকের দক্ষতা অনুযায়ী, আমরা শিক্ষণ-শেখানো প্রক্রিয়ার আরও বেশি কার্যকারিতার লক্ষ্যে AI অন্তর্ভুক্ত এবং প্রয়োগ করেছি।

৫. মূল্যায়ন- আমরা শেখার জন্য মূল্যায়নের লক্ষ্য রাখি, যেখানে শিক্ষার্থীরা শেখার প্রক্রিয়ার সাথে আরও বেশি জড়িত হয় এবং এর প্রতি আস্থা অর্জন করে তারা যাতে শিখতে পারে।

৬. আমরা সর্বদা তৃণমূল স্তর থেকে শিশুদের সুনির্বাচিত করে নিশ্চিত করি যেন তারা উন্নতির জন্য প্রকৃত শিক্ষাটি পায়।

আমাদের স্কুল সিবিএসই দ্বারা পরিচালিত জাতীয় অর্জন সমীক্ষা পরীক্ষার জন্য নির্বাচিত হয়েছে।

স্কুলগুলি ছাত্রদের অভ্যন্তরীণ বৈশিষ্ট্য এবং বুদ্ধিমত্তা প্রকাশ করার দায়িত্ব নিয়েছে এবং এর ফলে তাদের আচরণকে উন্নত করেছে। তাদের বিশিষ্ট তারকা ব্যক্তিত্বদের বিশেষজ্ঞ তত্ত্বাবধানে শিক্ষাদান করা হয়। মানসিক স্বাস্থ্য একটি গন্তব্য নয়, বরং একটি প্রক্রিয়া। মানসিক সুস্থতা প্ল্যাটফর্ম মনোসিজ দ্বারা প্রায়শই মানসিক স্বাস্থ্য সেশনগুলি পরিচালিত হয়, যা শিক্ষার্থীদের মানসিক সুস্থতার দিকে পরিচালিত করে।

তাই টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপের স্কুলগুলি এমন একটি বিক্ষণ তৈরি করে, যা শিক্ষার্থীদের জীবনে সাফল্য ও উন্নয়নের পথকে আলোকিত করে।

টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপ বর্তমানে প্রচলিত শিক্ষা পরিকাঠামোর অচলায়তনে এক মুঠো বিশুদ্ধ বাতাসের মতো কাজ করে চলেছে এবং ভবিষ্যতেও চলবে। কে.জি থেকে পি.জি, শিশু থেকে যুবক– সকল শিক্ষার্থীকে এমন এক সোনালী জীবনের উত্তরণে পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপ নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছে যা শিক্ষা ক্ষেত্রে এক স্বর্ণযুগের সূচনা করবে।

যোগাযোগ করুনঃ +91 98361 27900

বিশদে জানতে ক্লিক করুনঃ www.tigpublicschool.org

এই প্রতিবেদনটি ‘টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপ পাবলিক স্কুল’-এর সঙ্গে আনন্দবাজার ব্র্যান্ড স্টুডিয়ো দ্বারা যৌথ উদ্যোগে প্রকাশিত।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:

Share this article

CLOSE