• সুনন্দ ঘোষ
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নিয়োগ নিয়ে ক্ষুব্ধ এআইয়ের ইঞ্জিনিয়ারেরা, চিঠি মন্ত্রীকে

Air India engineer
প্রতীকী ছবি

নিয়মিত বিমান রক্ষণাবেক্ষণ বা সারানোর সঙ্গে যুক্ত নন, এমন ব্যক্তিকে ইঞ্জিনিয়ারিং সংস্থার মাথায় বসানো নিয়ে ক্ষোভ দানা বেঁধেছে। অভিযোগ, ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে অনভিজ্ঞ কাউকে দায়িত্ব দিলে ক্ষতি হতে পারে। এয়ার ইন্ডিয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং সংস্থার বিরুদ্ধে এই ক্ষোভ অল ইন্ডিয়া এয়ারক্র্যাফ্ট ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের। তাদের সম্পাদক দীনেশ চন্দ্র বিমানমন্ত্রী হরদীপ সিংহ পুরীকে চিঠি দিয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে আর্জি জানিয়েছেন। যদিও বিমান মন্ত্রকের মুখপাত্রের দাবি, ওই সংস্থা পেশাদারি মনোভাব নিয়ে চলে। তাদের কাজে হস্তক্ষেপ করতে রাজি নন পুরী। অভিযোগ আজ, বৃহস্পতিবার নতুন প্রার্থীদের ইন্টারভিউয়ের কথা। যাঁরা ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে অভিজ্ঞ, তাঁরা সিইও পদের জন্য আবেদন করলেও তা বাতিল হয়েছে।

এআইয়ের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ আলাদা সংস্থা, এয়ার ইন্ডিয়া ইঞ্জিনিয়ারিং সার্ভিসেস। আগের সব সিইও-র ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি ছিল, বিমান রক্ষণাবেক্ষণ ও সারানোয় অভিজ্ঞ। এ বছর বলা হয়, সিইও পদে সংস্থার অন্য বিভাগের কর্তারাও বসতে পারবেন। অভিযোগ, এত দিন যে সিনিয়র ইঞ্জিনিয়ারেরা এগ্‌জ়িকিউটিভ ডিরেক্টর বা জেনারেল ম্যানেজার পদে ছিলেন, তাঁদের আবেদনপত্র বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই বাতিল হয়েছে।

যেমন, কলকাতার প্রশান্ত পাল। এগ্‌জ়িকিউটিভ ডিরেক্টর হিসেবে অবসরের আগে ওই পদের জন্য আবেদন করেন। কিন্তু তাঁর বা অন্য আবেদনকারী ইঞ্জিনিয়ারদের অভিযোগ, তাঁদের আবেদনই গৃহীত হচ্ছে না। প্রশান্তবাবুর কথায়, “হতে পারে যিনি সিইও হলেন, তাঁর ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি আছে কিন্তু দীর্ঘদিন বিমান রক্ষণাবেক্ষণ বা সারাইয়ে যুক্ত নন।” দীনেশেরও অভিযোগ, সিইও-কে ডিজিসিএ বা অন্য বিমান সংস্থার সঙ্গে কথা বলতে হয়। বিমান সম্পর্কে খুঁটিনাটি জ্ঞান না-থাকলে সমস্যা হবে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন