শেয়ার বাজার নিয়ন্ত্রক সেবি, স্টক এক্সচেঞ্জ ও বিমান পরিবহণ মন্ত্রকের আতসকাচের তলায় আগেই এসেছে তারা। এ বার জেট এয়ারওয়েজ ঘিরে দুশ্চিন্তা আর এক ধাপ চড়ল কেন্দ্রীয় কোম্পানি মন্ত্রকের তরফে প্রাথমিক তদন্ত শুরুর ইঙ্গিত মেলায়। সরকারি সূত্র জানাচ্ছে, এপ্রিল-জুন ত্রৈমাসিকের আর্থিক ফল ঘোষণার দিন পিছনোর ব্যাপারে জেটের অডিটরদের কাছে ব্যাখ্যা চাইছে মন্ত্রক। সংবাদ মাধ্যমের খবর, তাদের আওতাভুক্ত মুম্বই রেজিস্ট্রার অব কোম্পানিজ খতিয়ে দেখছে সংস্থার হিসেবের খাতা।

তার উপর এ দিনই বিমান পরিবহণ মন্ত্রী সুরেশ প্রভু জানান, জেটের মতো বেসরকারি বিমান সংস্থাকে নিজেদের সমস্যা নিজেদেরই মেটাতে হবে। সরকারের ভূমিকা থাকবে শুধু নীতি নির্দেশক হিসেবে।

এ সবের জেরে জেটের আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে মঙ্গলবার আরও সন্ত্রস্ত হয়ে পড়েন লগ্নিকারীরা। বিএসই-তে সংস্থার শেয়ার দর প্রায় ৩% পড়ে যায়। দাঁড়ায় ২৯২.৩৫ টাকা।