Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

বেড়েছে ন্যূনতম জমা, জানেনই না গ্রাহকেরা

বড় ব্যাঙ্কের সঙ্গে মেশার পরে তুলনায় ছোট ব্যাঙ্কের গ্রাহকদের সেভিংস অ্যাকাউন্টে বাধ্যতামূলক ভাবে রাখা ন্যূনতম জমার (মিনিমাম ব্যালান্স) অঙ্ক

প্রজ্ঞানন্দ চৌধুরী
২০ ডিসেম্বর ২০২০ ০৪:৫৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
প্রতীকী চিত্র।

প্রতীকী চিত্র।

Popup Close

অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন থেকে শুরু করে বিভিন্ন ব্যাঙ্কের শীর্ষকর্তা— সকলেই বলেছিলেন রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক সংযুক্তির পরে গ্রাহকদের স্বার্থ কোনও ভাবেই ব্যাহত হবে না। আগে যে সব সুবিধা মিলছিল, পরেও তা বজায় থাকবে। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে বিপরীত ছবি। কোথাও বড় ব্যাঙ্কের সঙ্গে মেশার পরে তুলনায় ছোট ব্যাঙ্কের গ্রাহকদের সেভিংস অ্যাকাউন্টে বাধ্যতামূলক ভাবে রাখা ন্যূনতম জমার (মিনিমাম ব্যালান্স) অঙ্ক বেড়েছে (সারণি দেখুন)। যা না-রাখতে পারলে কাটা হচ্ছে জরিমানা। কোথাও বেড়েছে পরিষেবা খরচ। অভিযোগ উঠছে, বহু ক্ষেত্রে নিয়ম পাল্টানোর বিষয়টি গ্রাহকদের এসএমএস অথবা অন্য কোনও ভাবে সরাসরি জানানোই হয়নি। যেমন, মিনিমাম ব্যালান্সের ক্ষেত্রে শাখায় নোটিস ঝুলিয়েই দায়িত্ব সেরেছে অধিকাংশ ব্যাঙ্ক। সীমার নীচে নামায় টাকা কাটার কথা এসএমএসে জানানোর পরেই তা নজরে এসেছে।

সংশ্লিষ্ট মহলের প্রশ্ন, দেশের সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষকে ব্যাঙ্ক পরিষেবার আওতায় আনার কথা বারবারই বলে সরকার। কিন্তু করোনার আবহে যখন রুজি-রোজগার হারিয়ে ধুঁকছেন মানুষ, তখন এ ভাবে ন্যূনতম জমা বাড়ানো এবং তা না-থাকলে টাকা কাটায় তাঁরা আরও বেশি করে ব্যাঙ্ক বিমুখ হবেন না? এই সিদ্ধান্ত কি উল্টে তাঁদের আরও বেশি সঙ্কটের মুখে ঠেলে দেবে না? তার উপরে পরিষেবার খরচের কথা ঠিকমতো না-জানানো নিয়েও ক্ষোভ বাড়ছে গ্রাহকদের মধ্যে। অনেকেরই প্রশ্ন, অতিমারির কারণে ব্যাঙ্কেই যেতে পারননি গ্রাহক, বিশেষত প্রবীণেরা। সেখানে শুধু শাখায়

নোটিস ঝুলিয়ে দায়িত্ব সারলেই হবে?

Advertisement

পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন ব্যাঙ্ক ইউনিয়নও। এআইবিইএ-র সভাপতি রাজেন নাগর এবং আইবকের রাজ্য সম্পাদক সঞ্জয় দাস বলেন, ‘‘সংযুক্তির ফলে গ্রাহকদের স্বার্থ যে বিঘ্নিত হবে, তা শুরুতেই বলেছিলাম। শুধু ন্যূনতম জমাই নয়, মূল ব্যাঙ্কের সঙ্গে সামঞ্জস্য রাখতে গিয়ে মিশে যাওয়া তুলনায় ছোট ব্যাঙ্কের গ্রাহকদের বহু পরিষেবা পেতেও বেশি টাকা গুনতে হচ্ছে।’’

কী ঘটেছে

• কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত অনুসারে, পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের
(পিএনবি) সঙ্গে মিশেছে
ইউনাইটেড ব্যাঙ্ক (ইউবিআই) ও ওরিয়েন্টাল ব্যাঙ্ক অব কমার্স (ওবিসি)।
• একই ভাবে ইন্ডিয়ান ব্যাঙ্কের সঙ্গে সংযুক্ত হয়েছে এলাহাবাদ ব্যাঙ্ক।
• দুই ক্ষেত্রেই যে ব্যাঙ্কের সঙ্গে মিশেছে, অর্থাৎ যারা মূল ব্যাঙ্ক তাদেরই নিয়ম বিভিন্ন ক্ষেত্রে মানা হচ্ছে।
• যেমন, পিএনবির সঙ্গে তাল রেখে সেভিংস অ্যাকাউন্টের মিনিমাম ব্যালান্স বাড়ানো হয়েছে ইউবিআই এবং ওবিসির গ্রাহকদের।
• আর ইন্ডিয়ান ব্যাঙ্কের সঙ্গে তাল রেখে বেড়েছে এলাহাবাদ ব্যাঙ্কের গ্রাহকদের ন্যূনতম জমা।

ন্যূনতম জমা

আগে ছিল সংযুক্তির পরে
• ইউবিআই ১০০০ ২০০০
• ওবিসি ১০০০ ২০০০
• এলাহাবাদ ব্যাঙ্ক ১০০০ ২৫০০
* হিসেব টাকায়

অভিযোগ

• অনেক ক্ষেত্রে গ্রাহক জানেনই না যে, সেভিংসে মিনিমাম ব্যালান্স বেড়েছে।
• বহু ক্ষেত্রেই সেভিংসে টাকা নতুন সীমার নীচে নামলেই কাটা হচ্ছে জরিমানা।
• এতে এক দিকে যেমন কম সুদে সাধারণ মানুষ টাকা রাখতে বাধ্য হচ্ছেন,
তেমনই হাতের টাকা তুলতে গেলেও সমস্যা হচ্ছে।
• বেশি অসুবিধা হচ্ছে প্রবীণ ও আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া ব্যক্তিদের।
• প্রশ্ন উঠছে, ন্যূনতম জমা যে বাড়ছে, তা সেই তথ্য ঠিকমতো গ্রাহকদের কাছে কি আদৌ পৌঁছনো হয়েছে?
• অতিমারি যখন রুজি-রোজগারে ধাক্কা দিয়েছে, তখনই মিনিমাম ব্যালান্স বাড়ানো এবং তা না-থাকায় টাকা কাটার সিদ্ধান্ত কি মরার উপরে খাঁড়ার ঘা নয়?

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement