Advertisement
১৪ এপ্রিল ২০২৪
BYJU's

ইডি-নির্দেশে চাপ বাড়ল বাইজু’সের

সংস্থার জন্য যন্ত্রাংশ আমদানির উদ্দেশ্যে বিদেশে টাকা পাঠালেও সেই আমদানি সংক্রান্ত নথি দেখাতে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগ উঠেছিল রবীন্দ্রনের বিরুদ্ধে।

বাইজু’সের প্রতিষ্ঠাতা বাইজু রবীন্দ্রন।

বাইজু’সের প্রতিষ্ঠাতা বাইজু রবীন্দ্রন। —ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৮:২৩
Share: Save:

বিদেশি মুদ্রা আইন (ফেমা) লঙ্ঘনের তদন্তে শিক্ষা প্রযুক্তি সংস্থা বাইজু’সের প্রতিষ্ঠাতা বাইজু রবীন্দ্রনের বিরুদ্ধে লুকআউট সার্কুলারের গুরুত্ব বাড়াল (আপগ্রেড) এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। আগের সার্কুলার অনুযায়ী, দেশের বিভিন্ন বন্দরে রবীন্দ্রনের গতিবিধি সংক্রান্ত তথ্য ইডি-কে জানাত অভিবাসন দফতর। এখন তদন্তের দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসারকে সেই তথ্য দেওয়ার আগে রবীন্দ্রনকে দেশের বাইরে বার হতে দেওয়া যাবে না। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে অফিসার এই সংক্রান্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন। ইডি-র নতুন পদক্ষেপে অনলাইন টিউশন সংস্থা বাইজু’স এবং তাদের মূল সংস্থা থিঙ্ক অ্যান্ড লার্নের উপরে চাপ আরও বাড়ল বলে মনে করা হচ্ছে। রবীন্দ্রন অবশ্য এখন দুবাইয়ে।

সংস্থার জন্য যন্ত্রাংশ আমদানির উদ্দেশ্যে বিদেশে টাকা পাঠালেও সেই আমদানি সংক্রান্ত নথি দেখাতে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগ উঠেছিল রবীন্দ্রনের বিরুদ্ধে। আবার প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ (এফডিআই) সংক্রান্ত নথিও পেশ করতে পারেনি তাঁর সংস্থা। এই সমস্ত অভিযোগেই বাইজু’সের প্রধান প্রোমোটার রবীন্দ্রন-সহ কয়েক জনের বিরুদ্ধে বিদেশি মুদ্রা আইনে তদন্ত শুরু করে ইডি।

এ দিকে, সংস্থার নেতৃত্ব থেকে রবীন্দ্রন এবং তাঁর পরিবারকে সরাতে কাল বিশেষ সভার ডাক দিয়েছেন শেয়ারহোল্ডারদের একাংশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Enforcement Directorate
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE