পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক (পিএনবি) কাণ্ডে নীরব মোদীর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে আগেই। তাঁকে গ্রেফতার করে দেশে ফিরিয়ে আনতে ইতিমধ্যেই ইন্টারপোলে গিয়েছে ইডি। আর এ বার সম্প্রতি জারি করা ফেরার আর্থিক অপরাধী বিল সংক্রান্ত অধ্যাদেশের আওতায় দেশে, বিদেশে নীরবের সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের আর্জি জানাতে চলেছে তদন্তকারী সংস্থাটি। যার অঙ্ক প্রায় ৭,০০০ কোটি টাকা।

ওই অধ্যাদেশের আওতায় বিজয় মাল্যের সম্পত্তি ক্রোকেরও আর্জি জানাবে ইডি। একই ভাবে পিএনবি কাণ্ডের অন্যতম অভিযুক্ত মেহুল চোক্সীর বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিলের পরে এই পথে হাঁটা হবে বলে খবর।

এ দিকে, গত অর্থবর্ষে দেশের ২১টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে জালিয়াতির কারণে ২৫,৭৭৫ কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে তথ্যের অধিকার আইনের আওতায় করা এক প্রশ্নের উত্তরে জানা গিয়েছে। এর মধ্যে পিএনবি-র ক্ষতি দাঁড়িয়েছে সবচেয়ে বেশি, ৬,৪৬১.১৩ কোটি টাকা।