Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

প্রচুর লগ্নি, ২০ লক্ষ কর্মসংস্থান! ঘটা করে ঘোষণা রাজ্যের

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও এ দিন বললেন, শিল্পে বিনিয়োগ টানার পাশাপাশি তাঁর সরকারের লক্ষ্য নতুন নতুন ক্ষেত্রে কর্মসংস্থান।

পরামর্শ: আলোচনায় মগ্ন মমতা ও অমিত। বুধবার সম্মেলনে। —নিজস্ব চিত্র।

পরামর্শ: আলোচনায় মগ্ন মমতা ও অমিত। বুধবার সম্মেলনে। —নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৮ জানুয়ারি ২০১৮ ০২:৫৫
Share: Save:

শুধু বড় অঙ্কের লগ্নি নয়। সেই সঙ্গে কাজের সুযোগ তৈরিও যে পাখির চোখ, দু’দিনের বিশ্ব বঙ্গ শিল্প সম্মেলনে বারবার তার স্পষ্ট ইঙ্গিত দিয়েছে রাজ্য। সরকারি ভাবে সেই ঘোষণাও এল বুধবার, সম্মেলনের শেষে। সাংবাদিক বৈঠকে শিল্প তথা অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রের দাবি, এ বার লগ্নির যা প্রস্তাব এসেছে, তাতে ২০ লক্ষ কাজের সুযোগ তৈরি হবে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও এ দিন বললেন, শিল্পে বিনিয়োগ টানার পাশাপাশি তাঁর সরকারের লক্ষ্য নতুন নতুন ক্ষেত্রে কর্মসংস্থান। মানুষকে স্বনির্ভর করা। তাঁর দাবি, মুকেশ অম্বানীর গোষ্ঠী এ রাজ্যে যে বিনিয়োগ করতে চলেছে তাতে অন্তত এক লক্ষ নতুন কর্মসংস্থান হবে।

কাজের সুযোগ তৈরির ক্ষেত্রে রাজ্যের বাজি উব্‌রের মতো অ্যাপ নির্ভর ট্যাক্সি পরিষেবা সংস্থার সঙ্গে মউ। তার হাত ধরে পাঁচ বছরে এক লক্ষ নতুন কাজের সুযোগ তৈরির আশা করছে তারা। রাজ্যের মতে, এ বিষয়ে অগ্রণী ভূমিকা নেবে চর্মশিল্পও। উত্তরপ্রদেশের চর্মপণ্য প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলির হাত ধরে কাজের সুযোগ পাবেন এক লক্ষ জন। এ ছাড়াও রয়েছে, ক্ষুদ্র-মাঝারি, বস্ত্র, হোটেল এবং রেস্তরাঁর মতো ক্ষেত্র। অমিতবাবুর কথায়, বিনিয়োগ হলেই চাকরির সুযোগ বাড়ে। প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কাজের সুযোগ তৈরি হয়।

আরও পড়ুন: পরিকাঠামোয় নজর নেই, স্কুলবাড়ি নীল-সাদা করতে ৫০০ কোটি

বিরোধীরা অবশ্য প্রথম থেকেই রাজ্যের এই বিপুল বিনিয়োগ প্রাপ্তি ও কর্মসংস্থানের দাবি নিয়ে সংশয়ী। রাজ্যের যদিও দাবি, গত ছ’বছরে এখানে যে কর্মসংস্থান হয়েছে, তা আগে কখনও হয়নি।

প্রযুক্তি যে ভাবে কাজ কাড়ছে, তাতে তার নতুন সুযোগ তৈরি চ্যালেঞ্জ হচ্ছে দুনিয়ার প্রায় সব সরকারের কাছে। গত লোকসভা ভোটের আগে বছরে ১ কোটি কাজের সুযোগ তৈরির কথা দিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদী। তার ধারেকাছে না যাওয়া নিয়ে নিয়মিত তাঁকে বিঁধছেন বিরোধীরা। এই পরিস্থিতিতে কর্মসংস্থান নিয়ে মমতার এই প্রতিশ্রুতি রাজনৈতিক ভাবে তাৎপর্যপূর্ণ বলেও ধারণা অনেকের।

এক ঝলকে

• বিনিয়োগ

২,১৯,৯২৫ কোটি টাকা (পরে আরও বাড়ার দাবি)

• কর্মসংস্থান

২০ লক্ষ

সংখ্যা বিচার

• সমঝোতা চুক্তি (মউ) সই: ১১০টি

• সংস্থার মধ্যে বৈঠক: ১০৪০টি

• রাজ্যের সঙ্গে সংস্থার বৈঠক: ৪০টি

কোথায় কত

• উৎপাদন ও পরিকাঠামো: ১,৫৬,৮১১

• ক্ষুদ্র-মাঝারি শিল্প এবং বস্ত্র: ৫২,৯৫২

• পরিষেবা ও পর্যটন: ১,৪৮৩

• তথ্যপ্রযুক্তি ও সংশ্লিষ্ট পরিষেবা: ১,১৪৬

• প্রাণী সম্পদ, খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ, মৎস্য, কৃষি ব্যবসা: ১,৫১৮

• স্বাস্থ্য, শিক্ষা, দক্ষতা উন্নয়ন: ৬,০১৫

* হিসেব কোটি টাকায়

নতুন তিন নীতি

• লজিস্টিক পার্ক উন্নয়ন ও প্রসার • রফতানি উন্নয়ন • রো রো পরিচালনা প্রসার (পরিবহণ)

সমঝোতা চুক্তি

• খনি, বিদ্যুৎ, পরিকাঠামো, পরিবহণ, প্রাণী সম্পদ, খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ, কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, মানবসম্পদ উন্নয়ন, তথ্যপ্রযুক্তি, পর্যটন, কারিগরি শিক্ষা, চর্ম, অ্যানিমেশন, বস্ত্র, নদীপথ পরিবহণ, নগরোন্নয়ন, ক্ষুদ্র শিল্প, মৎস্য ইত্যাদি ক্ষেত্রে

বিদেশ থেকে

• ৩২টি দেশের ৪,০০০ শিল্প প্রতিনিধি • হাজির ইতালি, ফ্রান্স, ব্রিটেন, জার্মানি, চিন, পোল্যান্ড, হাঙ্গেরি, চেক প্রজাতন্ত্র, সংযুক্ত আরব আমিরশাহি ইত্যাদি দেশ

উল্লেখযোগ্য উপস্থিতি

• মুকেশ অম্বানী, লক্ষ্মী মিত্তল, সজ্জন জিন্দল, প্রণব আদানি, নিরঞ্জন হীরানন্দনী, কিশোর বিয়ানি প্রমুখ

এল বহুজাতিকও

• দাসো, অ্যারামকো, স্যামসাং, পেপসিকো, কেমিক্সিল ইত্যাদি

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE