• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বহুতলে আগুন, শিকেয় অগ্নি-সুরক্ষা 

Fire Brigade
ব্যস্ত: আগুন নেভানোর কাজ করছেন দমকলকর্মীরা। বৃহস্পতিবার, পার্ক স্ট্রিটে। নিজস্ব চিত্র

পার্ক স্ট্রিটের একটি বহুতলের তেতলায় থাকা বস্ত্র বিপণিতে বুধবার অনেক রাতে আগুন লাগে। প্রায় আট ঘণ্টার চেষ্টায় বৃহস্পতিবার সকালে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। আগুনের জেরে বহুতলের ওই তলেই থাকা আরও দু’টি দোকানও কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

পুলিশ সূত্রের খবর, শেক্সপিয়র সরণি থানা এলাকায় ৪৮ নম্বর পার্ক স্ট্রিটে একটি ছ’তলা বহুতলের তেতলায় থাকা একটি বস্ত্র বিপণিতে বুধবার রাত সাড়ে ১২টা থেকে একটার মধ্যে আগুন লাগে। স্থানীয়দের একাংশের কথায়, রাতে বন্ধ ছিল বহুতলটি। তেতলার একটি বস্ত্র বিপণি থেকে ধোঁয়া বেরোতে দেখে দমকলকে খবর দেন ওই বহুতলের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা রক্ষীরা। 

দমকলের দাবি, ওই বহুতলে অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা ছিল। রিজার্ভার ছিল, তবে পাম্প কাজ করেনি। বাকি ব্যবস্থাও সচল ছিল না। দমকলের সাতটি ইঞ্জিন পর্যায়ক্রমে ঘটনাস্থলে যায়। কিন্তু আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে বেগ পেতে হয় দমকলকর্মীদের। বহুতলে কেন্দ্রীয় শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা ছিল। দমকলকর্মীরা বাইরে থেকে জানলার গ্রিল কাটেন। কিন্তু তাতেও কাজ হয়নি। দেখা গিয়েছে প্লাইউড দিয়ে ঘেরা রয়েছে দোকানের একাংশ। এর পরে প্লাইউড কেটে ধোঁয়া বাইরে বার করা হয়। সেই প্লাইউড কেটেই আগুনের উৎসস্থলে পৌঁছতে হয়। তার জেরে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সময় লেগেছে বলে দমকল সূত্রের খবর।

দমকল জানিয়েছে, বহুতলের তেতলার সামনের দিকে মহিলাদের একটি বস্ত্র বিপণি ছিল। দোকানের ভিতরে কাপড় থেকে শুরু করে নানা সামগ্রী ছিল। ছিল দাহ্য পদার্থও। এসি মেশিনে শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগে থাকতে পারে প্রাথমিক ভাবে মনে করছে দমকল। আধিকারিকেরা জানান, ঘটনা খতিয়ে দেখা দেখা হচ্ছে। ওই তলে আরও দু’টি দোকান রয়েছে। আগুন সেখানেও ছড়িয়ে পড়ে। সেই দু’টি দোকানও কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে এ দিন সকালে। তার পরে বহুতল ঠান্ডা করার কাজ করেন দমকলকর্মীরা। বহুতলে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে রাখা হয়েছিল।

কেন বহুতলের অগ্নি নির্বাপণ ব্যবস্থা কাজ করল না তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দমকলের ডেপুটি ডিরেক্টর তরুণকুমার সিংহ জানান, কোথা থেকে আগুন লেগেছে তা স্পষ্ট নয়, খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে পুলিশ জানায়, সে সময়ে ওই তলায় কেউ না থাকায় হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন