গাড়ি রাখার সমস্যা দূর করতে শহরের বিভিন্ন এলাকায় পার্কোম্যাট তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন কলকাতা পুর কর্তৃপক্ষ। কিন্তু মূলত স্থানাভাব এবং পরিকাঠামোজনিত কারণে সেই প্রকল্প আপাতত বাতিল করলেন তাঁরা। পার্কোম্যাট তৈরি নিয়ে কলকাতা পুরসভা এবং পুলিশের যৌথ সমীক্ষার যে রিপোর্ট পুর প্রশাসনে জমা পড়েছে, তার ভিত্তিতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুর কর্তৃপক্ষ।

পুরসভার পার্কিং দফতরের ভারপ্রাপ্ত মেয়র পারিষদ দেবাশিস কুমার বলেন, ‘‘পার্কোম্যাট তৈরির পরিকল্পনা থাকলেও পরিকাঠামোজনিত কারণে তা আপাতত বাতিল করতে হয়েছে। পুরসভার কাছে জমা পড়া রিপোর্টে এর কারণ হিসেবে মূলত স্থানাভাবের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এ ছাড়া, আরও নানাবিধ অসুবিধা রয়েছে।’’

পার্কোম্যাট প্রকল্প কী?

পুরসভা সূত্রের খবর, শহরের বিভিন্ন এলাকায় যানজটের কারণে রাস্তার ধারেই গাড়ি দাঁড় করাতে হয়। এর ফলে এক দিকে যেমন রাস্তার পরিসর ছোট হয়ে যায়, তেমনই অসুবিধা দেখা দেয় যান চলাচলে। সে কারণে আধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন পার্কোম্যাট তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন পুর কর্তৃপক্ষ। এই ব্যবস্থায় বহুতল তৈরি করে সেখানে একসঙ্গে বহু গাড়ি রাখা যায়। সে ক্ষেত্রে রাস্তা ফাঁকা থাকে। অন্য দিকে, গাড়ি রাখার সুবাদে পুরসভা রাজস্ব আদায় করতে পারবে। শহরে এই মুহূর্তে নিউ মার্কেটের সামনে ভূগর্ভস্থ পার্কোম্যাট ছাড়াও মধ্য কলকাতার লাউডন স্ট্রিটে আর একটি পার্কোম্যাট রয়েছে। তবে, প্রযুক্তিগত সমস্যা থাকায় নিউ মার্কেটের সামনের পার্কোম্যাট আপাতত বন্ধ আছে।

পুরসভার পার্কিং দফতরের এক আধিকারিক জানান, নতুন পার্কোম্যাট তৈরির জন্য কলকাতা পুলিশ এবং পুর কর্তৃপক্ষ যৌথ সমীক্ষা করেছিলেন। প্রস্তাবিত জায়গা হিসেবে পুরসভার ঠিক উল্টো দিকে একটি জমি চিহ্নিত করা হয়েছিল। এ ছাড়া জনবহুল ব্যাঙ্কশাল কোর্ট এবং বি বা দী বাগে ইন্ডিয়া এক্সচেঞ্জ প্লেসে পার্কোম্যাট তৈরির পরিকল্পনা হয়েছিল। দক্ষিণ কলকাতায় ভবানীপুরের গাঁজা পার্ক ছাড়া গড়িয়াহাটের একটি জায়গাও দেখা হয়েছিল।

পুর কর্তৃপক্ষ জানান, রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে, ব্যাঙ্কশাল কোর্ট, ইন্ডিয়া এক্সচেঞ্জ প্লেস এবং গড়িয়াহাট— এই তিন জায়গার কোথাও পরিসর বেশি নয়। ইন্ডিয়া এক্সচেঞ্জ প্লেসে কয়েকটি দোকান থাকায় সেখানে এই প্রকল্প বাস্তবায়িত করার ক্ষেত্রে সমস্যা রয়েছে। অন্য দিকে, পুরসভার সামনে এবং ব্যাঙ্কশাল কোর্টে পার্কোম্যাট তৈরি করলে রাজস্ব আদায়ের পরিমাণ বেশি হবে না বলে রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে। দক্ষিণ কলকাতায় গাঁজা পার্কে পার্কোম্যাট তৈরির কথা থাকলেও নিকাশির পাম্পিং স্টেশন থাকায় ওই জমিতে তা সম্ভব হবে না। একই ভাবে প্রয়োজনীয় জায়গা না থাকায় গড়িয়াহাটেও এই প্রকল্প শেষ পর্যন্ত বাতিল হয়ে গিয়েছে বলে আধিকারিকেরা জানিয়েছেন।

পুর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, তৃণমূল নিয়ন্ত্রিত পুর বোর্ড প্রথম বার ক্ষমতায় আসার পরে তৎকালীন মেয়র সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে প্রথম পার্কোম্যাট তৈরির প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছিল। পরবর্তীকালে মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ও পার্কোম্যাটের পরিকল্পনা করেছিলেন। তার জন্য জায়গাও ঠিক করা হয়েছিল। সেই পরিকল্পনার ভিত্তিতেই শুরু হয় সমীক্ষা।