কাল, বৃহস্পতিবার থেকে চার দিন বন্ধ থাকছে শিয়ালদহের বিদ্যাপতি সেতুর মধ্যবর্তী অংশ দিয়ে গাড়ি চলাচল। রবিবার রাত পর্যন্ত এই নিয়ন্ত্রণ জারি থাকবে। ওই সময়ে রাজাবাজারের দিক থেকে আসা গাড়ি শিয়ালদহ উড়ালপুল হয়ে মহাত্মা গাঁধী রোড ও মৌলালির দিক থেকে আসা গাড়ি বেলেঘাটা মেন রোডে যেতে পারবে। তবে মৌলালি থেকে রাজাবাজারের মধ্যে বিদ্যাপতি সেতু দিয়ে কোনও গাড়ি চলবে না। কাজ চলাকালীন যান চলাচল মসৃণ রাখতে ব্যবসায়ী সমিতি, হকার ইউনিয়ন, বাস ইউনিয়ন ও ট্যাক্সিচালকদের সঙ্গে বৈঠক করেছে পুলিশ।

সূত্রের খবর, ১৫ অগস্ট বিকেলের পর থেকে বিদ্যাপতি সেতুর স্বাস্থ্য পরীক্ষার কাজ শুরু হবে। সাধারণত শিয়ালদহের ওই এলাকায় প্রতিদিনই গাড়ির চাপ থাকে। প্রথম দিন তেমন সমস্যা না হলেও শুক্রবার কাজের দিনে ওই অঞ্চলে যানবাহনের গতি শ্লথ হতে পারে বলে আশঙ্কা লালবাজারের।

পুলিশ জানিয়েছে, উড়ালপুলের মধ্যবর্তী অংশ বন্ধ থাকার ফলে যাতে গাড়ির গতি বাধা না পায়, সে জন্য ওই রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী সরকারি ও বেসরকারি বাসের পথ বদল করা হয়েছে। পাশাপাশি, মহাত্মা গাঁধী রোড, সিআইটি রোড ও মৌলালি থেকে জগৎ সিনেমা পর্যন্ত এপিসি এবং এজেসি বসু রোডের দু’পাশে গাড়ি রাখা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। রাতে বি বি গাঙ্গুলি স্ট্রিট হয়ে কোলে মার্কেটে বড় লরি ও ট্রাক ঢোকে। ওই বাজারের ব্যবসায়ী সমিতির সঙ্গে বৈঠকে পুলিশ নির্দেশ দিয়েছে, কাজ চলাকালীন রাতে লরি এবং ট্রাক কোলে মার্কেটে এলেও সকাল ছ’টার মধ্যে তা খালি করে দিতে হবে। সকাল থেকে রাত দশটা পর্যন্ত বি বি গাঙ্গুলি স্ট্রিটে গাড়ি রাখা যাবে না। শিয়ালদহ স্টেশন থেকে উত্তর কলকাতা অথবা বি বা দী বাগমুখী গাড়ি বি বি গাঙ্গুলি স্ট্রিট দিয়ে ওই চার দিন যাতায়াত করবে।

বি বি গাঙ্গুলি স্ট্রিটের একটা বড় অংশ দখল করে রয়েছেন হকার এবং আনাজ বিক্রেতারা। আপাতত ঠিক হয়েছে, বৃহস্পতি থেকে রবিবার তাঁদের বসতে দেওয়া হবে না। শিয়ালদহ উড়ালপুলের নীচের রাস্তায় প্রাচী সিনেমার কাছেও যাতে হকারেরা বসতে না পারেন, তার জন্য ট্র্যাফিক পুলিশের তরফে মুচিপাড়া থানাকে অনুরোধ করা হয়েছে।

লালবাজার জানিয়েছে, শিয়ালদহে ট্রেন থেকে নেমে কোনও যাত্রী ট্যাক্সি নিয়ে উত্তর বা মধ্য কলকাতার দিকে যেতে যাতে অসুবিধায় না পড়েন, সে জন্য শিয়ালদহের তিনটি ট্যাক্সি ইউনিয়নকে নিয়ে বৈঠক হয়েছে। পুলিশ জানিয়ে দিয়েছে, ঘুরপথে যাওয়ার কথা বলে চালকেরা অতিরিক্ত ভাড়া হাঁকলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ছাড়াও ১৫ অগস্ট বিকেল থেকে মহাত্মা গাঁধী রোড, কলেজ স্ট্রিট ও লেনিন সরণিতে বন্ধ থাকবে ট্রাম।

ট্র্যাফিক পুলিশ সূত্রের খবর, বিদ্যাপতি সেতুর মধ্যবর্তী অংশ বন্ধ থাকার ফলে উত্তর থেকে দক্ষিণের মধ্যে চলাচলকারী বাসগুলিকে ধর্মতলা বা ওয়েলিংটন দিয়ে ঘুরিয়ে দেওয়া হবে। এর ফলে ক্রিক রো, নির্মলচন্দ্র স্ট্রিট, লেনিন সরণি, এস এন ব্যানার্জি রোড ও চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউয়ে গাড়ির চাপ বাড়ার আশঙ্কা থাকছে। পরিস্থিতি সামলাতে ওই রাস্তাগুলিতে বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হবে।

এর পাশাপাশি পুলিশের তরফে রেলকে অনুরোধ করা হয়েছে, কোন রাস্তায় দাঁড়ালে কোথায় যাওয়ার বাস পাওয়া যাবে তা মাইকে করে যাত্রীদের জানিয়ে দেওয়ার জন্য। সেই সঙ্গে শহর জুড়ে দিক নির্দেশ করে লাগানো হয়েছে প্রায় ৪০০ ফ্লেক্স।