কলকাতা শহরে নির্বাচনের বাকি এক মাসেরও বেশি। তার আগে লালবাজারের চিন্তা বাড়াচ্ছে রামনবমীর মিছিল। ওই মিছিলকে কেন্দ্র করে যাতে শহরের কোথাও কোনও অশান্তি না হয়, ভোটের পাশাপাশি সেই ব্যাপারেও প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে লালবাজার। সোমবার সকালে কলকাতা পুলিশের নতুন কমিশনার রাজেশ কুমার টালিগঞ্জ পুলিশ লাইন্সে দক্ষিণ শহরতলি, দক্ষিণ-পশ্চিম ডিভিশনের ডেপুটি কমিশনার, এসি এবং থানার ওসি-দের সঙ্গে বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে অবাধ নির্বাচনের পাশাপাশি আগামী রবিবার, রামনবমীর দিন পুলিশি ব্যবস্থা নিয়েও নির্দেশ দেন কমিশনার। 

পুলিশের এক কর্তা জানিয়েছেন, এ দিনের বৈঠকে বলা হয়েছে, অনুমতি ছাড়া শহরের রাস্তায় ওই দিন কোনও মিছিল করা যাবে না। মিছিল করতে হলে স্থানীয় থানা নয়, সরাসরি লালবাজারের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে। বড় মিছিলের আগাম অনুমতি নেওয়া হলেও রামনবমীর দিন অলিগলিতে ছোটখাটো এমন অনেক মিছিল বেরোয়, যেগুলির অনুমতি নেওয়া হয় না। নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে এ বার সেই সব ছোট মিছিলের ক্ষেত্রেও অনুমতি নেওয়াটা বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। বৈঠক শেষে পুলিশ কমিশনার বলেন, ‘‘রামনবমী যাতে শান্তিপূর্ণ ভাবে পালিত হয়, তা নিশ্চিত করতেই অফিসারদের সঙ্গে বৈঠক করা হচ্ছে।’’

রামনবমী নিয়ে কেন চিন্তিত পুলিশ? লালবাজারের একটি সূত্রের দাবি, সামনেই নির্বাচন। তাই রাজনৈতিক দলগুলি রামনবমীর দিনটিকে প্রচারের হাতিয়ার করতে চাইবে। সেই জন্য রাস্তায় বেরোবে একাধিক মিছিল। সেই সমস্ত মিছিলকে কেন্দ্র করে যাতে কোনও গোলমাল না হয়, তার জন্যই ছোট-বড় সমস্ত মিছিলের ক্ষেত্রে অনুমতি নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। অনুমতি নেওয়া হলে কোন রাস্তায় কখন, ক’টি মিছিল বেরোচ্ছে, তার হিসেব থাকবে পুলিশের কাছে। শৃঙ্খলা ও শান্তি বজায় রাখতে প্রতিটি মিছিলের সঙ্গে থাকবে পুলিশ এসকর্ট। রামনবমীতে অস্ত্র নিয়ে মিছিল করতে চান অংশগ্রহণকারীরা। কিন্তু অস্ত্র নিয়ে মিছিল করা বেআইনি। ফলে তাতে বাধা দিলে অশান্তি হতে পারে বলে অনুমান। অশান্তি যাতে না হয়, তার জন্য আগেভাগেই প্রস্তুত হচ্ছে কলকাতা পুলিশ।

লালবাজার সূত্রের খবর, এ দিনের বৈঠকে পুলিশ কমিশনার জানতে চান, নির্বাচনের পাশাপাশি রামনবমী নিয়ে কী ধরনের পুলিশি ব্যবস্থা 

গ্রহণ করা হয়েছে? রামনবমীকে কেন্দ্র করে আগে কখনও গোলমাল হয়েছে কি না, তা-ও জানতে চান থানার আধিকারিকদের কাছে। মূলত নির্বাচনের আগে শহর যাতে রামনবমীকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে না ওঠে, তার জন্যই আগেভাগে প্রস্তুতি সেরে নিতে চাইছে পুলিশ। সেই কারণেই পুলিশ কমিশনার এ দিন অধস্তনদের সঙ্গে বৈঠকে রামনবমীর বিষয়টি তুলেছেন বলে পুলিশের একাংশের অনুমান।

পুলিশ জানিয়েছে, গত বছর কলকাতায় ৬০টি মিছিলের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। এ বার সেই সংখ্যা বাড়তে পারে। রামনবমীর মিছিলের জেরে যাতে কোনও বিশৃঙ্খলা তৈরি না হয়, তার জন্য অনুমোদন দেওয়ার সঙ্গে মিছিলের সময় এবং পথ ঠিক করে দেওয়া হবে। এ ছাড়া, মিছিলে কোনও ভাবেই অস্ত্র ব্যবহার করা যাবে না। কেউ যাতে ওই মিছিলে অস্ত্র ব্যবহার না করে, তার জন্য প্রতিটি মিছিলের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ভিডিয়ো রেকর্ডিং করা হতে পারে বলে পুলিশের একটি অংশের দাবি।