পুলিশের তদন্তের আওতায় এল এ বার পূর্ত দফতরও!  মাঝেরহাট ব্রিজ ভেঙে পড়ার কারণ জানতে ইতিমধ্যেই পূর্ত দফতরকে চিঠি দিয়েছে কলকাতা পুলিশ। ওই ব্রিজের দায়িত্বে দফতরের কোন ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন, রক্ষণাবেক্ষণের কোনও গাফিলতি ছিল কি না, কবে শেষ মেরামতি করা হয়েছে, এ সব বিষয়ে দ্রুত জানাতে বলা হয়েছে।

একই সঙ্গে মেট্রো কর্তৃপক্ষকেও চিঠি দিয়েছে স্পেশ্যাল ইনভেস্টিগেশন টিম। পুলিশ জানতে চেয়েছে, মাঝেরহাট ব্রিজের পাশে কবে থেকে মেট্রোর কাজ শুরু হয়েছে এবং কবে থেকে, কোন পদ্ধতিতে পাইলিং করা হয়েছে।

মাঝেরহাটের দুর্ঘটনার পর স্বত:প্রণোদিত মামলা রুজু করে পুলিশ। সেই মামলাতেই পূর্ত এবং মেট্রো কর্তৃপক্ষকে এই চিঠি। এখনও পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার না হলেও, বিষয়টি গুরুত্ব দিয়েই দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: অচৈতন্য বৃদ্ধ দম্পতিকে বেন্টিঙ্ক স্ট্রিটে ফেলেই উধাও হলুদ ট্যাক্সি!

কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা প্রধান (অপরাধ দমন) প্রবীণ ত্রিপাঠি বলেন, “পূর্ত দফতর এবং মেট্রোকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। দ্রুত জবাবও চাওয়া হয়েছে।” 

আরও পড়ুন: ‘অত ভয় পেলে চলবে কী করে’

মাঝেরহাট দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় তিন জনের। আহত হন প্রায় ২০ জন। কার গাফিলতির জন্যে এই দুর্ঘটনা তা নিয়ে চাপানউতর চলছে রেল এবং রাজ্য সরকারের মধ্যে। রাজ্যের দাবি, মেট্রো রেলের কাজ চলার জন্য ভাইব্রেশন হয়েছে এবং সে কারণেই ব্রিজ ভেঙে পড়েছে। আর রেলের দাবি, আগেই পূর্ত দফতরকে চিঠি দিয়ে ব্রিজের বিপজ্জনক অবস্থা জানানো হয়েছিল। কিন্তু বিষয়টিতে গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। তাই এই পরিণতি। ঠিক কী কারণে ঘটনাটি ঘটেছিল, এ ব্যাপারে স্পষ্ট ধারণা পেতেই দু’পক্ষকে চিঠি দিয়ে জানতে চাওয়া হয়েছে। উত্তর পাওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করবে পুলিশ।