• শিবাজী দে সরকার
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

প্রায় তৈরি টালা সেতুর নীচের নতুন লেভেল ক্রসিং

Level Crossing
চিৎপুরের নতুন লেভেল ক্রসিং। নিজস্ব চিত্র

টালা সেতুর বিকল্প পথ হিসেবে বাগবাজার এবং কাশীপুরের মধ্যে সংযোগকারী চিৎপুর রেল ইয়ার্ডের লেভেল ক্রসিং তৈরির কাজ প্রায় শেষ। বৃহস্পতিবার চক্ররেলের লাইনের দু’পাশে রেলগেট বসেছে। সূত্রের খবর, আর সামান্য কাজ বাকি। চলতি মাসের শেষে কিংবা মার্চ মাসের শুরুতেই ওই লেভেল ক্রসিং দিয়ে গাড়ি চলাচল করতে পারবে। 

প্রশাসনের খবর, ওই লেভেল ক্রসিংয়ের মূল কাজ রেল করলেও দু’পাশের রাস্তার কাজ করেছে পুরসভা। মূলত পণ্যবাহী গাড়ি চলাচলের জন্যই ওই লেভেল ক্রসিং তৈরি করা হচ্ছে। টালা সেতু বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে গত কয়েক মাস ধরে বিটি রোড দিয়ে আসা ভারী পণ্যবাহী গাড়িকে শহরে ঢুকতে বেগ পেতে হচ্ছে। ওই লেভেল ক্রসিং চালু হলে সেখান দিয়ে ভারী পণ্যবাহী গাড়ি যাতায়াত করতে পারবে। বুধবার ওই এলাকা পরিদর্শন করেন কলকাতা ট্র্যাফিক পুলিশের যুগ্ম কমিশনার সন্তোষ পাণ্ডে, ডিসি (ট্র্যাফিক) রূপেশ কুমার, এসি (ট্র্যাফিক) রঘুনাথ ভাদুড়ী-সহ পুলিশের কর্তারা। 

প্রশাসন সূত্রের খবর, ওই লেভেল ক্রসিংয়ের এক দিকে রয়েছে কাশীপুরের ব্রজদয়াল সাহা রোড। অন্য প্রান্তে বাগবাজারের দিকে রয়েছে প্রাণনাথ মুখার্জি রোড। লেভেল ক্রসিংয়ের মধ্যে শুধু চক্ররেলই চলাচল করবে। লেভেল ক্রসিংয়ের জন্য ওই ইয়ার্ডের দু’টি লাইনকে আপাতত কাশীপুর সেতুর আগেই শেষ করে দেওয়া হয়েছে। ওই রাস্তাকে গাড়ি চলাচলের উপযুক্ত করে তোলার জন্য রেলের কয়েকটি গুদাম ভাঙতে হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, লেভেল ক্রসিংয়ের রাস্তা তৈরির জন্য ইয়ার্ডের মধ্যে থাকা চারটি বাড়ির বড় অংশও ভাঙা পড়েছে। ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা থাকলেও তা দেওয়া হয়নি। 

রেল সূত্রের খবর, ওই ইয়ার্ডের মধ্যে প্রায় দু’শো মিটার নতুন রাস্তা তৈরি করতে হয়েছে। ভারী গাড়ি চলাচল করলে যাতে রাস্তার কোনও ক্ষতি না হয় তার জন্য প্রায় ১৮ ইঞ্চি পুরু সিমেন্টের ঢালাই করা হয়েছে। তিন লেনের ওই রাস্তা দিয়ে দু’দিকেই গাড়ি চলাচল করতে পারবে। রেল গেট ওঠানামা করার জন্য গেটম্যানের ঘরও তৈরি করা হচ্ছে। ব্রজদয়াল সাহা রোড এবং প্রাণনাথ মুখার্জি রোডের প্রায় তিনশো মিটার রাস্তা নতুন করে তৈরি করেছে পুরসভা। তবে দু’পাশের রাস্তায় বাঁক থাকায় সেখানে গাড়ির গতি বাধা পেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই লেভেল ক্রসিং দিয়ে পণ্যবাহী গাড়ি ছাড়া ছোট গাড়ি, অটো চলাচল করতে পারবে। ওই লেভেল ক্রসিং চালু হলে চিৎপুর লকগেট উড়ালপুলের গাড়ির দিক পরিবর্তন করানো হতে পারে। সে ক্ষেত্রে বর্তমানে ওই উড়ালপুল দিয়ে বাগবাজারের দিক থেকে বিটি রোডের দিকে গাড়ি চললেও পরে তার পরিবর্তন করে শহরমুখী করা হতে পারে। আবার কাশীপুর রোড দিয়ে বরাহনগরের দিকে একমুখী গাড়ি চালানো হতে পারে। 

লালবাজারের এক কর্তা জানান, ওই লেভেল ক্রসিং দিয়ে গাড়ি চলাচল শুরু করলে কাশীপুর রোডের উপরে চাপ বাড়বে। তাই লেভেল ক্রসিং পার করার পরে কাশীপুরমুখী ভারী গাড়িকে ব্রজদয়াল শাহ রোড, স্ট্র্যান্ড ব্যাঙ্ক রোড দিয়ে সর্বমঙ্গলা ঘাট হয়ে কাশীপুর রোডে পাঠানো হতে পারে। তাতে কে সি চ্যাটার্জি রোডের উপরে চাপ বাড়তে পারে। তবে এ সব নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি বলে পুলিশ সূত্রের খবর। 

বৃহস্পতিবার ঘটনাস্থলে পৌছে দেখা যায়, রেলগেট বসানোর কাজ চলছে। রাস্তা পুরো তৈরি হয়ে গেলেও শেষ মুহূর্তের কাজে ব্যস্ত কর্মীরা। একই সঙ্গে রেলগেটের সঙ্গে গেটম্যানের অফিসের যোগাযোগ স্থাপনের কাজ চলছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন