• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বেপরোয়া বাইক আটকে ফের নিগৃহীত পুলিশ

traffic
—ফাইল চিত্র।

Advertisement

রাতের শহরে ফের বেপরোয়া গতির এক মোটরবাইক আটকাতে গিয়ে নিগৃহীত হতে হল একাধিক পুলিশকর্মীকে। সোমবার রাত সাড়ে বারোটা নাগাদ পার্ক সার্কাস ও মল্লিকবাজার মোড়ে। ওই ঘটনায় আহত হয়েছে বাইকচালক। আহতের নাম শেখ আদিল। সে ওয়াটগঞ্জের বাসিন্দা। তার সমর্থনে আসা যুবকেরাই পুলিশের উপরে হামলা চালায় বলে অভিযোগ। তাদের মধ্যে মহম্মদ জিয়া নামে এক জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। খোঁজ চলছে অন্য হামলাকারীদের।

প্রসঙ্গত, মাস দেড়েক আগে কড়েয়ার একটি শপিং মলের সামনে নাকা তল্লাশির সময়ে চরম হেনস্থার শিকার হন এক ট্র্যাফিক কনস্টেবল। আইন ভেঙে বেরিয়ে যাওয়া মোটরবাইকটিকে পিছন থেকে ধরে ফেলেন তিনি। ও ভাবেই তাঁকে একশো মিটার টেনে নিয়ে যায় বাইকচালক। সম্প্রতি ওই চালককে ধরা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রের খবর, সোমবার রাতে মল্লিকবাজার মোড়ে ট্র্যাফিক আইন ভাঙা মোটরবাইকগুলিকে আটকে কেস দিচ্ছিল পুলিশ। তখনই শিয়ালদহ থেকে মল্লিকবাজারের দিকে হেলমেটহীন চালককে বেপরোয়া গতিতে বাইকটি চালিয়ে আসতে দেখা যায়। মল্লিকবাজার মোড়ে গার্ডরেল দিয়ে সেটিকে আটকানোর চেষ্টা করলে চালক গতি বাড়িয়ে দেয় বলে অভিযোগ। পুলিশ জানিয়েছে, ওই বাইকের সামনে গার্ডরেল নিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন বেনিয়াপুকুর থানার অতিরিক্ত ওসি এল টি ভুটিয়া। চালক একেবারে সামনে চলে আসায় নিজেকে বাঁচাতে তিনি গার্ডরেল ছেড়ে দেন। আদিল তখন অতিরিক্ত ওসি-কে ধাক্কা মেরে পড়ে যাওয়া গার্ডরেলে ধাক্কা খেয়ে রাস্তার বাঁ দিকে ছিটকে পড়ে বলে জানা গিয়েছে। প্রথমে তাকে ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এবং পরে একবালপুরের বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

স্থানীয় সূত্রের খবর, আদিলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরেই কয়েকশো স্থানীয় যুবক মল্লিকবাজার, পার্ক সার্কাস সাত মাথার মোড়ে জমায়েত হয়ে উত্তেজনা ছড়ায়। অভিযোগ, পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে দফায় দফায় তাণ্ডব 

চালায় তারা। প্রথমে তারা মল্লিকবাজারের একটি পুলিশ ভ্যান ভাঙচুর করে। এর পরে পার্ক সার্কাস সাত মাথার মোড়ে মা উড়ালপুলে ওঠার সময়ে পাঁচ পুলিশকর্মীকে মারধর করে বলে অভিযোগ। এমনকি, রাস্তার বিভিন্ন প্রান্তের গার্ডরেল ছিটকে ফেলে 

দেওয়া হয়।

বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মোটরবাইকটি আটক করা হয়েছে। চালকের বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় পুলিশ মামলা রুজু করেছে। পুলিশের উপরে হামলাকারী অজ্ঞাতপরিচয় যুবকদেরও খোঁজ চলছে। ট্র্যাফিক পুলিশের এক কর্তা বলেন, ‘‘আইনভঙ্গকারী বাইকচালকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতেই এই ক্ষোভ। কিন্তু এই তল্লাশি 

যথারীতি চলবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন