• অনুপ চট্টোপাধ্যায়
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দূষণ রোধে শহরে আরও বৈদ্যুতিক গাড়ির ভাবনা

Electric Car
ইলেকট্রিক বাস।

যানবাহন থেকে দূষণ রুখতে কলকাতা-সহ সারা রাজ্যে বিদ্যুৎচালিত গাড়ির ব্যবহার বাড়াতে হবে। সম্প্রতি বিদ্যুৎ ভবনে এ বিষয়ে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে এমনই সিদ্ধান্ত হয়েছে। বৈদ্যুতিক গাড়ি ব্যবহারে পশ্চিমবঙ্গকে দেশের মধ্যে ‘মডেল’ করা যেতে পারে— এই ভাবনা থেকে প্রাথমিক ভাবে কলকাতায় এই গাড়ির ব্যবহার বাড়াতে কিছু জরুরি পদক্ষেপ করার কথা ভাবছে রাজ্য সরকার।

বর্তমানে ডিজেল-পেট্রলের যানবাহনে ক্রমাগত বাড়ছে বায়ুদূষণ। খাস কলকাতায় যা দিনে দিনে মারাত্মক আকার নিচ্ছে। বিদ্যুৎ ভবনের ওই বৈঠকে কেন্দ্রীয় সরকারের পরিসংখ্যান উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, ২০২০ সালের মধ্যে পরিবেশে ৩৩০ মিলিয়ন টন কার্বন নিঃসরণের প্রায় ৯০ শতাংশই আসছে সড়ক পরিবহণের সঙ্গে যুক্ত যানবাহন থেকে। তাই দূষণরোধে বিদ্যুৎচালিত গাড়ির ব্যবহারে জোর দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রাজ্য বিদ্যুৎ দফতরের ডাকা ওই বৈঠকে হাজির ছিলেন অতিরিক্ত মুখ্য সচিব (অর্থ), পুর ও নগরোন্নয়ন, পরিবহণ, বিদ্যুৎ এবং পরিবেশ দফতরের প্রধান সচিব-সহ কলকাতার পুর কমিশনার এবং নিউ টাউন কলকাতা ডেভেলপমেন্ট অথরিটির চেয়ারম্যান।

১৯১২ সালে এশিয়ার মধ্যে প্রথম কলকাতা শহরেই বৈদ্যুতিক ট্রাম চলাচল শুরু হয়েছিল। সেই কথার উল্লেখ করে রাজ্য সরকারের পরিকল্পনা রিপোর্টে বলা হয়েছে, এ নিয়ে পশ্চিমবঙ্গ দেশের মধ্যে ‘মডেল’ হয়ে উঠতে পারে। এ জন্য কর্নাটক, তেলঙ্গানা, মহারাষ্ট্র, উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি, অন্ধ্রপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ড এবং গোয়ার মতো রাজ্যে বিদ্যুৎচালিত গাড়ি ব্যবহারে কী কী পদক্ষেপ করা হয়েছে, তা নিয়েও বৈঠকে আলোচনা হয় বলে বিদ্যুৎ দফতর সূত্রের খবর। 

বৈঠকে পেশ করা ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করতে কলকাতার রাস্তায় বিদ্যুৎচালিত গাড়ির সংখ্যা অনেক বাড়াতে হবে। সেই গাড়ি চার্জ করার জন্য যথেষ্ট পরিকাঠামোও প্রয়োজন। কলকাতা পুরসভার তথ্য 

অনুযায়ী, বর্তমানে এ শহরে মাত্র তিনটি চার্জিং স্টেশন রয়েছে, যা প্রয়োজনের তুলনায় নগণ্য। তাই শহর জুড়ে পেট্রল পাম্পের মতোই অসংখ্য বিদ্যুৎচালিত চার্জিং স্টেশন তৈরির কথা বলা হয়েছে। এ ছাড়া বাড়াতে হবে বিদ্যুৎচালিত গাড়ির উৎপাদনও। সে ক্ষেত্রে গাড়ি তৈরি শিল্পের সঙ্গে জড়িত বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকেও এ ব্যাপারে উৎসাহী করতে হবে। দু’চাকা, চার চাকা বা তার থেকেও বড় গাড়ি বিদ্যুতে চালাতে গাড়িমালিকদের ভর্তুকি দেওয়ার কথাও বলা হয়েছে। 

রাজ্য সরকারের সচিব পদমর্যাদার এক অফিসার জানান, কেন্দ্রীয় ভারী শিল্প মন্ত্রক দেশে বিদ্যুৎচালিত 

গাড়ির ব্যবহার বাড়াতে নোডাল এজেন্সি হিসেবে কাজ শুরু করেছে। ২০২২ সালের মধ্যে এ জন্য ১০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করার প্রকল্পও নিয়েছে। সেই প্রকল্পের আওতায় রয়েছে কলকাতাও। পুরসভা সূত্রের খবর, প্রথম পর্যায়ে শহরে ১০০টি বিদ্যুৎ চার্জিং স্টেশন করার কথা হয়েছে। এর মধ্যে ৯১টি স্টেশন তৈরির ভার দেওয়া হতে পারে কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্থ এনার্জি এফিশিয়েন্সি সার্ভিসেস লিমিটেড সংস্থাকে। ওই সংস্থা দেশের অন্য রাজ্যেও এই কাজ করছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন