ঝাঁকড়া চুল কায়দা করে ছাঁটা। ছিপছিপে গড়ন। হাঁটাচলার ধরন আর পাঁচ জনের মতো নয়। এসএসকেএম হাসপাতালের বাতানুকূল যন্ত্র থেকে তামার তার চুরির ঘটনার তদন্তে নেমে এই তথ্যটুকুই শুধু হাতে ছিল পুলিশের। সেই সূত্র ধরেই তদন্তকারীরা গ্রেফতার করেছেন ওই হাসপাতাল থেকে একের পর এক এসি-র তামার তার চুরির ঘটনায় অভিযুক্তকে। সোমবার তাকে পাকড়াও করেন এসএসকেএমের আউটপোস্টের পুলিশকর্মীরা। পরে তাকে তুলে দেওয়া হয় ভবানীপুর থানার হাতে। 

পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতের নাম পিনাকী কর। বাড়ি বাঘা যতীনে। তার কাছ থেকে প্রায় দু’কেজি তামার তার উদ্ধার করা হয়েছে। ধৃতকে আজ, মঙ্গলবার আদালতে তোলা হবে। 

সূত্রের খবর, বেশ কয়েক দিন ধরেই ওই হাসপাতালের রোনাল্ড রস বিল্ডিং ও অ্যাকাডেমি বিল্ডিং-সহ বিভিন্ন জায়গা থেকে এসি-র তামার তার চুরি হয়ে যাচ্ছিল। তদন্তে নেমে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে এক সন্দেহভাজনকে চিহ্নিত করে পুলিশ। তার ঝাঁকড়া চুল। কায়দা করে ছাঁটা। ছিপছিপে গড়ন। এ দিন দুপুরে অ্যাকাডেমি বিল্ডিংয়ের পিছনে পুলিশকর্মীরা একটি এসি-র কাছে পিনাকীকে দেখতে পান। ছবির সঙ্গে মিল থাকায় তাকে পাকড়াও করা হয়। উদ্ধার হয় কেজি দু’য়েক তামার তার। পুলিশের দাবি, দীর্ঘদিন ধরেই পিনাকী চুরি করছিল।