• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কলেজে গোলমাল, ভেস্তে গেল অনুষ্ঠান

Agitation
কলেজে উত্তেজনা। নিজস্ব চিত্র

নানা দাবি-দাওয়া নিয়ে কলেজে বিক্ষোভ দেখালেন পড়ুয়ারা। বৃহস্পতিবার ক্যানিংয়ের ঋষি বঙ্কিম সর্দার কলেজের ঘটনা। এই নিয়ে উত্তেজনা ছড়ালে পুলিশ এসে পরিস্থিতি সামাল দেয়। 

বিক্ষোভকারী ছাত্রদের অভিযোগ, দীর্ঘ দিন ধরে কলেজে সোশ্যাল, নবীনবরণ অনুষ্ঠান বন্ধ। কেরিয়ার গাইডেন্স অ্যাপ বাবদ টাকা নেওয়া হয়েছে। হস্টেল চালু হয়নি। ছাত্রদের কমনরুম বন্ধ করে রাখা হয়েছে। শৌচালয়েরও সমস্যা রয়েছে। 

এ দিন সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ বিক্ষোভ শুরু হয়। অধ্যক্ষ তিলক চট্টোপাধ্যায়কে ঘিরে বিক্ষোভ চলে। প্রথম দফায় ঘণ্টা দেড়েক বিক্ষোভের পরে অধ্যক্ষ এই সমস্ত বিষয় নিয়ে ছাত্রদের সঙ্গে বসে আলোচনার আশ্বাস দেন। মঙ্গলবার পুলিশ-প্রশাসনের আধিকারিকদের উপস্থিতিতে আলোচনার কথা। 

কলেজে এ দিনই কলেজে ছিল অনুষ্ঠান ‘সুন্দরমন’। বিক্ষোভের জেরে তা শুরু করতে কিছুটা দেরি হয়েছে। অনুষ্ঠানে অন্য কলেজের বেশ কিছু ছাত্রছাত্রীও এসেছিলেন। 

কিছুক্ষণ অনুষ্ঠান চলার পরে বিক্ষুব্ধ ছাত্রেরা ফের বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। অনুষ্ঠানের জায়গায় ঢুকে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে স্লোগান দেয়। অনুষ্ঠানে যোগদানকারী ছাত্রছাত্রীরা প্রতিবাদ করলে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে বচসা বাধে। বিক্ষোভকারীরা হুমকি দেয় বলে অভিযোগ। দু’পক্ষের হাতাহাতিও বেধে যায়। 

খবর পেয়ে পুলিশ আসে কলেজে। তবে তার আগেই অনুষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত নেন কলেজ কর্তৃপক্ষ। 

বিক্ষোভকারীদের পক্ষে সাবির হোসেন সর্দার বলেন, ‘‘ছাত্রছাত্রীদের ভুল বুঝিয়ে টাকা নিয়েছেন অধ্যক্ষ। কলেজের বেশ কিছু সমস্যা রয়েছে। এই সব নিয়ে আমরা বিক্ষোভ দেখিয়েছি।” 

অধ্যক্ষ অবশ্য দাবি করেছেন, “পরিকল্পিত ভাবে এ দিনের অনুষ্ঠান বন্ধ করার জন্য বিক্ষোভ দেখিয়েছে কিছু ছাত্র। ওদের সমস্ত প্রশ্নের উত্তর আমি দিয়েছি। মঙ্গলবার ওদের কথামতো পুলিশ-প্রশাসনের সামনে আলোচনায় বসতে চেয়েছি সমস্যা সমাধানের জন্য। তারপরেও অশান্তি সৃষ্টি করে কলেজের সুস্থ পরিবেশ নষ্ট করা হল।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন