• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘লকডাউন’-এ কর্মসূচি নিয়ে অনড় বিজেপি

bard
বিজেপির কর্মসূচি। নিজস্ব চিত্র

রাজ্যে ‘লকডাউন’ আজ, বুধবার। বুধবারই অযোধ্যায় রামমন্দিরের ভূমিপুজো। এই পরিস্থিতিতে রাজ্য বিজেপি আগেই জানিয়েছে, তারা ‘লকডাউন’ মানবে না। বদলে ভূমিপুজো উপলক্ষে রাজ্য জুড়ে হবে নানা কর্মসূচি। এই পরিস্থিতিতে রাজ্য রাজনীতির মতো জেলার রাজনীতিতেও বিজেপি-তৃণমূল চাপান-উতোর চলছেই।

সম্প্রতি আসানসোলে দলীয় বৈঠকে এসে বিজেপির রাজ্য নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, বুধবারের লকডাউন তাঁরা মানবেন না। হবে, দলীয় কর্মসূচি। এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার থেকেই জেলার নানা প্রান্তে বিজেপির কর্মসূচি হতে দেখা গিয়েছে। রামমন্দিরের ভূমিপুজো উপলক্ষে মঙ্গলবার দুর্গাপুরের এমএএমসি টাউনশিপে মোটরবাইক মিছিল, কাঁকসার রাজবাঁধে পদযাত্রা করে বিজেপি। বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, রাজবাঁধেও মোটরবাইক মিছিল করার কথা থাকলেও, পুলিশ সেই অনুমতি দেয়নি। দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছিলেন বিজেপির জেলা সভাপতি লক্ষ্মণ ঘোড়ুই। ভূমিপুজো উপলক্ষে এলাকাবাসীকে আগাম শুভেচ্ছা জানাতে দেখা যায় বিজেপি নেতা-কর্মীদের। দুর্গাপুরের বিজেপির কর্মসূচি ঘিরে কড়া পুলিশি নজরদারি দেখা গিয়েছে।

এ দিন লক্ষ্মণবাবু দাবি করেন, ‘‘বুধবার রাজ্যে ‘লকডাউন’। তবুও দিনটি মানুষ স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে পালন করবেন। রাস্তায় বেরোবেন। শাঁখ ও ঘণ্টা বাজিয়ে, প্রদীপ জ্বালিয়ে পুজো হবে। কীর্তন হবে। লাড্ডু বিলি হবে।’’ তাঁর অভিযোগ, ‘‘রাজ্য প্রশাসন সাধারণ মানুষের ভাবাবেগকে গুরুত্ব না দিয়ে বুধবার লকডাউন ঘোষণা করেছে। কিন্তু মানুষকে আটকানো যাবে না।’’ বিষয়টি নিয়ে সরব হয়েছে তৃণমূল। তৃণমূলের অন্যতম রাজ্য সম্পাদক ভি শিবদাসন বলেন, ‘‘বিজেপি বিশৃঙ্খল দল। কোনও নির্দেশই মানে না। ওদের কাজকর্মেই তা প্রতিফলিত হচ্ছে।’’ দলের জেলা সভাপতি জিতেন্দ্র তিওয়ারির আবার দাবি, ‘‘পরিস্থিতির দিকে প্রশাসন নিশ্চয় নজর রাখছে।’’ দুর্গাপুর ও কাঁকসায় বিজেপির এ দিনে কর্মসূচিকে ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন’ বলে কটাক্ষ করেছেন তৃণমূল নেতা দেবদাস বক্সীও। যদিও বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, দূরত্ববিধি মেনে এ সব কর্মসূচি হয়েছে। আজ, বুধবারও স্বাস্থ্য-বিধি মানা হবে।

এ দিকে, পুলিশ-প্রশাসন এই পরিস্থিতিতে কতটা তৈরি, তা নিয়েও চর্চা রয়েছে জেলায়। আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের ডিসিপি (সেন্ট্রাল) সায়ক দাস বলেন, ‘‘বুধবারের রাজ্যে সার্বিক ‘লকডাউন’। আমরা সরকারের এই নির্দেশ পালন করব।’’ কমিশনারেট সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার ভোর থেকেই রাস্তায় নামবে পুলিশ। সীমানা এলাকাগুলিতে থাকবে বিশেষ নজর। নাকা-চেকিং, জটলা রুখতে বিশেষ পদক্ষেপ করা হবে। পুলিশের এক কর্তা জানান, কোনও ‘কারণ’ ছাড়া, কেউ বাড়ির বাইরে বেরোলে যথাযথ আইনি পদক্ষেপ করা হবে।

তবে প্রশাসনের ‘লকডাউন-প্রস্তুতি’ প্রসঙ্গে বিজেপির জেলা সভাপতি লক্ষ্মণবাবুর দাবি, ‘‘প্রশাসন আটকালেও আমরা পথে বেরোব। আইনি পদক্ষেপ করা হলেও, আমরা পিছিয়ে আসব না।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন