ঠাকুর বিসর্জন করতে গিয়ে পুকুরের জলে তলিয়ে মৃত্যু হল এক কিশোরের। বুধবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে দুর্গাপুরের ডিএসপি টাউনশিপের এডিসন রোড সংলগ্ন ভাবা রোডের ধারে একটি পুকুরে। পুলিশ জানায়, মৃতের নাম অলোক সিংহ (১৫)। বাড়ি হস্টেল অ্যাভিনিউয়ে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এ দিন দুপুরে আরও কয়েকজন বন্ধুর সঙ্গে শোভাযাত্রা করে স্টিল হাউস বস্তি থেকে লক্ষ্মী-গণেশ প্রতিমা বিসর্জন করতে গিয়েছিল অলোক। ভাবা রোডের ওই পুকুরে প্রতিমা বিসর্জনের সময়ে আচমকাই তলিয়ে যায় সে। তার বন্ধুদের চিৎকার-চেঁচামেচি শুনে আশেপাশের লোকজন ছুটে যান। বন্ধুরা নিজেরা জলে নেমে অলোকের খোঁজ করতে থাকেন। উদ্ধারকাজে নেমে পড়েন স্থানীয়দের অনেকে। 

একটি সাঁতার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রশিক্ষক, ষাটোর্ধ অজয়কুমার চক্রবর্তীও নেমেছিলেন উদ্ধারে। তিনি জানান, বাজারে গিয়ে এই ঘটনার খবর পেয়েই দ্রুত ঘটনাস্থলে চলে আসেন। তিনি বলেন, ‘‘কেউ ডুবে গিয়েছে শুনলে আর বয়সের খেয়াল থাকে না। এখানে এসে দেখি কমবয়সী কয়েকজন চেষ্টা করছে। আর দেরি করিনি।’’ ঘণ্টাখানেকের চেষ্টায় শেষ পর্যন্ত অলোককে উদ্ধার করা যায়। পুলিশের গাড়িতে দ্রুত তাকে ডিএসপি হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওই কিশোর কী ভাবে জলে তলিয়ে গেল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানায় পুলিশ। দেহ ময়না-তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে। কাউন্সিলরদের সঙ্গে নিয়ে মেয়র পারিষদ (জল সরবরাহ) পবিত্র চট্টোপাধ্যায় ডিএসপি হাসপাতালে যান। তিনি বলেন, ‘‘দুঃখজনক ঘটনা। মৃতের পরিবারের পাশে রয়েছি আমরা।’’