ন’দিন ধরে শাশুড়িকে তালাবন্ধ বাড়িতে রেখে বৌমা গিয়েছিলেন বাপের বাড়ি। অবশেষে সোমবার  সত্তরোর্ধ্ব ওই বৃদ্ধার  গোঙানির আওয়াজ পান পড়শিরা। খবর পেয়ে, বাড়ির তালা ভেঙে পুলিশ ওই বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে। জামুড়িয়ার শিবমন্দির পাড়ার ঘটনা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃদ্ধার একমাত্র ছেলে বছর দুয়েক আগে রোগে ভুগে মারা গিয়েছেন। ওই বৃদ্ধা বৌমার সঙ্গেই থাকতেন। পড়শিদের অভিযোগ, শাশুড়িকে প্রায়ই তালাবন্ধ রেখে বাইরে চলে যান তাঁর বৌমা। এ দিন বৃদ্ধার গোঙানির আওয়াজ পেয়ে পড়শিরা এক তলা বাড়ির জানলা ভেঙে দেখেন, মেঝেয় কাতরাচ্ছেন ওই বৃদ্ধা। যোগাযোগ করা হয় স্থানীয় কাউন্সিলর শেখ সানদারের সঙ্গে। খবর যায় জামুড়িয়া থানায়।

পুলিশ এসে ওই বাড়ির তালা ভেঙে বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে আকলপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করায়। বৌমাকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, জেরায় ওই মহিলা তাঁদের জানিয়েছেন, চতুর্থীর দিন তিনি বাপের বাড়ি আসানসোলে চলে গিয়েছিলেন। প্রাথমিক তদন্তের পরে পুলিশ জানায়, চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, অন্তত ন’দিন ধরে বৃদ্ধার খাওয়াদাওয়া হয়নি ঠিক মতো। তবে আপাতত তাঁর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। সব দিক খতিয়ে দেখা উপযুক্ত পদক্ষেপ করার কথাও জানিয়েছে পুলিশ। কাউন্সিলর শেখ সানদার বলেন, “আমরা অভিযুক্তের বিরুদ্ধে উপযুক্ত পদক্ষেপ করার জন্য পুলিশের কাছে আর্জি জানিয়েছি।’’