ভিন্‌ জেলা বা ভিন রাজ্যে ছড়িয়ে থাকা অপরাধীদের খুঁজে বের করে সংশ্লিষ্ট মামলাগুলির তদারকি করতে বিশেষ সেল তৈরি করল পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ। এই বিভাগের পোশাকি নাম ‘স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন ইউনিট’।

জেলা পুলিশের এক মহিলা এসআইকে অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) করে ওই সেলের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। দু’মাস আগে তৈরি জেলা পুলিশের ওই ইউনিটে ওসি ছাড়াও তদন্তে দক্ষ চার পুলিশ কর্মী রয়েছেন। জেলা পুলিশ সুপার কুণাল অগ্রবালের কথায়, “বিভিন্ন থানায় নানা রকম অভিযোগ হয়। তদন্তে নেমে দেখা যায় বেশ কিছু ঘটনার সঙ্গে ভিন্‌ জেলা বা রাজ্যের যোগসূত্র পান তদন্তকারী অফিসাররা। সেই ধরণের মামলাগুলির আরও গভীরে ঢুকে মূল মাথাদের চিহ্নিত করে তাঁদের খুঁজে বের করার উদ্দেশেই ওই ইউনিটটি তৈরি করা হয়েছে।”

জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মামলার গুরুত্ব বুঝে ওই সেলের তদন্তকারীদের হাতে তদন্ত ভার তুলে দেওয়া হবে। একসঙ্গে প্রচুর মামলার তদন্ত ভার না দিয়ে গুরুত্ব অনুসারে দু’-তিনটি মামলার মূল অপরাধীদের চিহ্নিত করতে এবং তদন্ত করার দায়িত্ব দেওয়া হবে ওই ইউনিটকে। সম্পূর্ণ গোপনীয়তা বজায় রেখে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশ সুপার।

জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বিশেষ তদন্তকারী দলটি মাদক-সংক্রান্ত মামলা, শিশু ও নারী পাচার সংক্রান্ত মামলার তদন্ত তদারক করার পাশাপাশি জাল নোট ও বোমা-অস্ত্র পাচার সংক্রান্ত মামলায় ভিন রাজ্য বা জেলার অপরাধীদের খুঁজে বের করার জন্য তদন্ত চালাবে। এ ছাড়াও জেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মামলারও নজরদারি করবে ওই তদন্তকারী দল।

বর্ধমান জেলা আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটার (পিপি) সুব্রত হাটি বলেন, ‘‘এতে বিচারের কাজে সুবিধা হবে। তদন্তে অনেক খুঁটিনাটি বিষয় উঠে এলে অপরাধীরা সহজে ছাড়া পাবেন না।” গলসি ও মাধবডিহিতে কয়েক বছর আগের ভিন রাজ্যে নিখোঁজ শিশুর খোঁজে এবং সম্প্রতি পূর্বস্থলীতে উদ্ধার হওয়া প্রচুর পরিমাণের গাঁজা কী ভাবে এল, তার রহস্যভেদে নেমেছে ওই তদন্তকারী দল।