আসন্ন পুর নির্বাচনে কংগ্রেস পরিচালিত কাটোয়া পুরসভায় পরিবর্তনের ডাক দিলেন  রাজ্যের মন্ত্রী তথা বর্ধমান জেলা তৃণমূল সভাপতি (গ্রামীণ) স্বপন দেবনাথ। একই সঙ্গে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে      ফ্লেক্স ছিঁড়ে দেওয়ার অভিযোগও তুলেছে তৃণমূল।

মঙ্গলবার সকালে কাটোয়া শহরের বিভিন্ন ওয়ার্ডে প্রচার করেন তিনি। পরে লেনিন সরণীতে আয়োজিত এক পথসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে স্বপনবাবু বলেন, “কাটোয়াতে আমরা পরিবর্তন চাই। কাটোয়া পুরসভা আমাদের উপহার দিন। আমরা উন্নয়ন করিয়ে দেখিয়ে দেব।” ইতিমধ্যেই পুরভোটের আগে কাটোয়ার বিভিন্ন ওর্য়া়ডে চাপা সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরি হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশ। কয়েকটি ক্ষেত্রে তৃণমূলের বিরুদ্ধেও অভিযোগ উঠেছে। এই প্রসঙ্গে মন্ত্রীর দাবি, তৃণমূল কোথাও সন্ত্রাস করছে না। বরং আক্রান্ত হচ্ছে। তাঁর নালিশ, ‘‘কাটোয়া কলেজের ভোটে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ কর্মীদের প্রচার করতে দেওয়া হয়নি। পুরভোটেও তৃণমূল প্রার্থীদের প্রচার করতে বাধা দেওয়া হচ্ছে। কর্মীদের প্রলোভিত করা হচ্ছে। আমরা কাটোয়া শহরে কোনও অশান্তি বরদাস্ত করব না।’’

তৃণমূলের আরও অভিযোগ, কাটোয়ার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূল প্রার্থীর সমর্থনে টাঙানো বেশ কয়েকটি ফ্লেক্স ছিঁড়ে রাস্তায় ফেলে দেওয়া হয়েছে। ৪ নম্বর ওয়ার্ডে দলের ফ্লেক্স পোড়ানোর চেষ্টা হয়েছে। তৃণমূলের কাটোয়া শহর কমিটির সভাপতি অমর রামের অভিযোগ, প্রতিটি ঘটনায় কংগ্রেস জড়িত রয়েছে। বিষয়টি  নির্বাচন কমিশনে জানানো হয়েছে। অভিযোগ অস্বীকার করে কাটোয়ার কংগ্রেস বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়ের পাল্টা দাবি, “তৃণমূলের সন্ত্রাসের কারণে আমাদের একজন প্রার্থী মনোনয়ন তুলে নিতে বাধ্য   হয়েছে। ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে আমরা প্রচারই করতে পারছি না। এছাড়াও বিভিন্ন জায়গায় আমাদের ফ্লেক্স ছেঁড়া হচ্ছে।”