• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অনড় ব্যবসায়ীরা, মঙ্গলাহাট চালু হওয়া অনিশ্চিত  

Mangla Haat
ফাইল চিত্র।

প্রশাসনের নির্দেশ মেনে শনিবার রাতে মঙ্গলাহাট চালু করতে রাজি নন সেখানকার ব্যবসায়ীরা। সোমবার হাটের ব্যবসায়ীদের সংগঠন সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এই নির্দেশ তারা মানবে না। শনিবার সকাল থেকে হাট বসতে দেওয়ার দাবিতে ব্যবসায়ীরা অনড়। অন্য দিকে এলাকার কোভিড-পরিস্থিতির কথা উল্লেখ করে জেলা প্রশাসনও এ দিন স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে, সকালে কোনও ভাবেই হাট বসতে দেওয়া যাবে না। হাট ব্যবসায়ী এবং জেলা প্রশাসনের এই টানাপড়েনে আগামী শনিবার রাতে হাট চালু হবে কি না, সেটাই এখন ঘোরতর অনিশ্চিত।   

গত শুক্রবার জেলা প্রশাসনের তরফে জানানো হয়, পুজোর মরসুমের কথা ভেবে গত পাঁচ মাস ধরে বন্ধ থাকা মঙ্গলাহাট চালু করা হবে। তবে ব্যবসা করতে পারবেন শুধু স্থায়ী দোকানের মালিকেরাই। শনিবার রাত ৯টা থেকে রবিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত হাট বসবে। তবে প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তে প্রথমেই আপত্তি জানান হাটের ব্যবসায়ীরা। সমাধানসূত্র খুঁজতে এ দিন হাটের সব ক’টি সংগঠন বৈঠকে বসে। 

বৈঠকের পরে হাট ব্যবসায়ী সমন্বয় সমিতি-র পক্ষ থেকে জানানো হয়, শনিবার হাট চালু করার প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত মানলেও রাত ৯টা থেকে বাজার চালুর সিদ্ধান্ত তারা মানছে না। কারণ, রাতে কোনও ভাবেই হাট বসা সম্ভব নয়। সমিতির সহ-সম্পাদক কানাই পোদ্দার বলেন, ‘‘আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, শনিবার সকাল থেকেই হাট বসবে। কোভিডের সুরক্ষা-বিধি মেনেই বেচাকেনা চলবে। তবে রাতে হাট বসা সম্ভব নয়। প্রশাসন চাইলে আমরা কথা বলতে প্রস্তুত।’’

অন্য দিকে হাওড়ার জেলাশাসক মুক্তা আর্য বলেন, ‘‘শনিবার রাতে হাট বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। এর পরে ওঁরা সিদ্ধান্ত নেন কী ভাবে? কোভিড সংক্রমণ বেড়ে গিয়ে ফের হাওড়া জেলা হাসপাতাল বন্ধ করে দিতে হলে সেই দায় কে নেবেন? তা ছাড়া, ব্যবসায়ীরা কেউ আমাদের সঙ্গে আলোচনা করতে আসেননি। তাই এই সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন