প্রায় সাড়ে তিন মাস আগে ডানকুনি কোল কমপ্লেক্সে ছাঁটাই হওয়া ঠিকাকর্মীদের পুনর্বহাল করা হল। সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, ছাঁটাই হওয়া সাতান্ন জন শ্রমিকই সম্প্রতি কাজে যোগ দিয়েছেন।
কারখানা সূত্রের খবর, গত নভেম্বর মাসে তিনটি ঠিকা সংস্থার ওই কর্মীদের বসিয়ে দেওয়া হয়েছিল‌। এ নিয়ে শ্রমিকদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের তরফে অভিযোগ তোলা হয়, ‘অনৈতিক’ ভাবে ছাঁটাই করা হচ্ছে। এ নিয়ে শ্রমিকরা বিক্ষোভ দেখান। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় বিধায়ক স্বাতী খোন্দকার রাজ্যের শ্রমমন্ত্রী মলয় ঘটক এবং অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রের সঙ্গে কথা বলেন। মলয়বাবু ডানকুনি কোল কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন। কোল কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ জানান, প্রায় ১৩ কোটি টাকা বকেয়া পড়ায় নভেম্বর মাস থেকে ‘গ্রেটার ক্যালকাটা গ্যাস সাপ্লাই’কে গ্যাস সরবরাহ করা বন্ধ করে দেওয়া হয়। সেই কারণেই ওই দু’টি বিভাগের (মেকানিক্যাল এবং কোক) ঠিকাকর্মীদের বসিয়ে দেওয়া হয়।
স্বাতীদেবীর দাবি, রাজ্য সরকার সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসে। ‘গ্রেটার ক্যালকাটা গ্যাস সাপ্লাই’কে প্রায় ১০ কোটি টাকা ঋণ দেয় রাজ্য। সেই টাকা দিয়ে কোল কমপ্লেক্সের বকেয়া অনেকটাই তারা মিটিয়ে দেয়। তাতেই সমস্যা মেটে। সোমবার বিধায়ক এবং আইএনটিটিইউসি-র রাজ্য নেতা প্রদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে ওই শ্রমিকরা কাজে যোগ দেন। কাজ ফিরে পাওয়ার আনন্দে শ্রমিকরা চড়ুইভাতি করেন। কারখানার আইএনটিটিইউসি নেতা প্রকাশ রাহা বলেন, ‘‘ওই শ্রমিকদের সঙ্কট কেটেছে। আমরা খুশি। ওই সংস্থাকে শীঘ্রই গ্যাস সরবরাহ 
করা হবে।’’