• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রেলের উচ্ছেদের নোটিসের বিরোধিতায় তৃণমূল বিধায়কের নেতৃত্বে ঝাঁটা নিয়ে মিছিল

Rally
উচ্ছেদের বিরোধিতায় ঝাঁটা নিয়ে মিছিল। নিজস্ব চিত্র।

ব্যান্ডেলের সাহেবপাড়ার রেলের জায়গায় বসবাসকারী শতাধিক পরিবারকে নিয়ে রাস্তায় নামলেন চুঁচুড়ার বিধায়ক অসিত মজুমদার। সম্প্রতি রেলের জায়গা খালি করার নোটিস দেওয়া হয়েছে। তার বিরুদ্ধেই আন্দোলন শুরু হয়েছে। আর গোটা বিষয়টি নিয়ে রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়েছে তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে।

দিন কয়েক আগে সাহেবপাড়ায় গিয়ে অসিত হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, কেউ উচ্ছেদ করতে এলে ঝাঁটা মেরে তাড়াবেন। আর তার পরই বুধবার এলাকার মহিলাদের নিয়ে ঝাঁটা হাতে মিছিল করলেন অসিত। তাঁর দাবি, গত ৪০ বছর ধরে ব্যান্ডেল সাহেবপাড়া এলাকায় রেলের জায়গায় বসবাস করছে শতাধিক পরিবার। এতদিন কেউ উচ্ছেদের নোটিস দেয়নি। কেন্দ্রে বিজেপি সরকার আসার পরই গরিব মানুষকে উচ্ছেদ করতে চাইছে। বিকল্প জায়গায় পুনর্বাসন না দিলে উচ্ছেদের বিরোধিতা চলবে। মিছিল সাহেববাগান থেকে শুরু হয়ে ব্যান্ডেল রেল কলোনির বিভিন্ন এলাকায় ঘোরে।

ব্যান্ডেল স্টেশনের পূর্বদিকে একটি কেন্দ্রীর বিদ্যালয় গড়ে উঠছে। ইতিমধ্যেই যার প্রাথমিক বিভাগ চালু হয়েছে। সেই স্কুলের সম্প্রসারণ করার জন্যই জায়গা খালি করতে চাইছে রেল।

পূর্ব রেলের সিনিয়ার পিআরও বিনোদকুমার শর্মা বলেন, “সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে রেলের জমি জবরদখলকারীদের উচ্ছেদের নোটিস দেওয়া হচ্ছে। শুধু ব্যান্ডেল নয়, সব জায়গাতেই এটা হচ্ছে। তবে পুনর্বাসন নিয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি।”

তৃণমূল বিধায়কের অভিযোগের উত্তরে বিজেপি রাজ্য কমিটির সদস্য স্বপন পাল বলেন, “নির্বাচন আসছে, তাই মানুষকে বিভ্রান্ত করতে নেমে পড়েছেন বিধায়ক। রেলের জায়গায় বেআইনি ভাবে থাকা যায় না, এটা জবরদখলকারীদের বোঝাচ্ছেন না। শুধু বিজেপির বিরুদ্ধে লোক খেপিয়ে কোনও লাভ হবে না। ওখানে কেন্দ্রীয় বিদ্যালয় গড়ে উঠছে, এতে এলাকার মানুষেরই উপকার হবে”।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন