• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এটিএমের পিন জেনে টাকা লোপাট

fraud
প্রতীকী ছবি।

পুলিশ এবং ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের সতর্কবার্তা কাজে আসছে না। চন্দননগরের পর এ বার পোলবার এক মহিলা গ্রাহক ফোনে জানিয়ে দিয়েছিলেন তাঁর এটিএম কার্ডের তথ্য। সহজেই তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা লোপাট করল দুষ্কৃতী। 

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পোলবার পিরতলার অবসরপ্রাপ্ত রেলকর্মী অমিতা চক্রবর্তী একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের গ্রাহক। শনিবার সকালে তাঁর মোবাইলে একটি ফোন আসে। পুরুষ-কন্ঠে একজন নিজেকে ব্যাঙ্কের আধিকারিক পরিচয় দিয়ে অমিতাদেবীকে জানায়, তাঁর এটিএম কার্ডের মেয়াদ শেষ হতে চলেছে। তা পুনর্নবীকরণের জন্য ওই কার্ডের পিন জানাতে বলা হয়। অমিতাদেবী জানানোর কয়েক মিনিটের মধ্যে তাঁর ফোনে ‘মেসেজ’ আসে। তাতে বলা হয়, তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে ৪৪ হাজার ৪৯৫ টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে। এরপরে অমিতাদেবী ব্যাঙ্কের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। পাশবই ‘আপডেট’ করেও তিনি বুঝতে পারেন, প্রতারিত হয়েছেন। অ্যাকাউন্ট ফাঁকা হয়ে গিয়েছে। রবিবার তিনি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ জানায়, অভিযোগের তদন্ত হচ্ছে। সাইবার অপরাধ দমন শাখার মাধ্যমে দুষ্কৃতীদের খোঁজ চলছে। 

কিছুদিন আগে চন্দননগরেও এক গ্রাহকের থেকে তাঁর এটএম কার্ডের ১৬ সংখ্যার নম্বর জেনে অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলে নিয়েছিল দুষ্কৃতীরা। পুলিশ এবং ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ গ্রাহকদের এটএম কার্ডের কোনও তথ্য কাউকে না-জানানোর জন্য সতর্ক করছেন। তবু একই ভুল করে চলেছেন অনেক গ্রাহক। অমিতাদেবী বলেন, ‘‘অবসরকালীন পাওয়া টাকার একাংশ দিয়ে বাড়ি সংস্কার করেছিলাম। বাকিটা ব্যাঙ্কে রেখেছিলাম। শনিবার এমন ভাবে ফোনটা করেছিল যে কিছু বুঝতে পারিনি। সরল মনে ‘পিন’ বলে দিয়েছিলাম। সেটাই কাল হল।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন