• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গেরুয়া গড়ে উত্তরার আবেদন পাশে থাকার 

TmC
মানা হয়নি দূরত্ববিধি। নিজস্ব চিত্র

এ বার একুশে জুলাইয়ের ভার্চুয়াল মঞ্চ থেকে যাঁরা অন্য দলে ভুল বুঝে চলে গিয়েছেন, তাঁদের ফিরে আসার আহ্বান জানিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী স্বয়ং।  তারপরে আদিবাসী গ্রামে গিয়ে হাতজোড় করে তৃণমূল থেকে দূরে সরে না যেতে আবেদন করে বৈঠক করলেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি উত্তরা সিংহ।

বুধবার সকালে চন্দ্রকোনা রোডের নয়াবসত অঞ্চলের ভেলাইটিকরি বুথের কাশিকাটা গ্রামে যান তিনি। গত পঞ্চায়েত ও লোকসভা নির্বাচনে ভেলাইটিকরি বুথ থেকে ‘লিড’ পেয়েছে বিজেপি। ওই বুথের মধ্যে থাকা কাশিকাটা গ্রাম আদিবাসী অধ্যুষিত। সেখানে সমর্থন হারিয়ে চিন্তা বাড়ছিল তৃণমূলের। এ দিন সেখানে গিয়ে হাতজোড় করে উত্তরা বলেন, ‘‘আপনার, আমার মতো সাধারণ ঘরের মেয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আপনাদের ভাল চেয়ে কত চেষ্টা করছেন। আপনারা পাশে থাকলে স্বপ্নপূরণ হবেই।’’ শুধু আবেদনেই না থেমে কয়েকজন গ্রামবাসীকে কাছেও টেনে নেন উত্তরা। করোনা কালে দূরত্ব বিধি উড়িয়েই গ্রামবাসীদের নিয়ে ছবিও তোলেন। পরে ফোনে উত্তরা বলেন, ‘‘ওই গ্রামের মানুষ অভিমান করে দূরে সরে গিয়েছিল। আমি তাঁদের ফেরার আবেদন করেছি। সবাই আমাদের সঙ্গেই থাকবেন বলেছেন।’’  সব দেখে খোঁচা দিতে ছাড়ছে না বিরোধীরা। ওই এলাকার পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য বিজেপির গৌতম কৌড়ি বলেন, ‘‘ওদের দলেরই অনেকে আমাদের সঙ্গে যোগযোগ করছে। তাঁরা দল ছাড়তে চায়। আসলে ডুবে যাওয়ার আগে হাতেপায়ে ধরে ভাল সাজার চেষ্টা করছে তৃণমূল। এতে লাভ হবে না।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন