• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বাকচায় আজ সায়ন্তন, উদ্বেগে পরীক্ষার্থীরা

sayantan
সায়ন্তন বসু।

তৃণমূল-বিজেপি চাপানউতোরে গত দেড় বছর ধরে উত্তপ্ত রয়েছে ময়নার বাকচা পঞ্চায়েত এলাকা। আজ, রবিবার সেখানে কর্মসূচি রয়েছে বিজেপি’র রাজ্য নেতা সায়ন্তন বসুর। ওই কর্মসূচি ঘিরে ফের এলাকায় উত্তেজনা ছড়ানোর যেমন আশঙ্কা করছেন বাসিন্দারা, তেমনই চিন্তিত এলাকার মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের অভিভাবকেরা।

আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি থেকে এ বছরের মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। বাকচার মির্জানগর আড়ংকিয়ারানা হাইস্কুলে মাধ্যমিক পরীক্ষা কেন্দ্রে এবার বাকচা এলাকার বিভিন্ন হাইস্কুলের ৮১০ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষা দেবে। সে জন্য প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছেন স্কুল কর্তৃপক্ষ-সহ স্থানীয় প্রশাসন। আশেপাশের বাকচা, মাধবচক, বরুণা, গোবরাদন, চাঁদিবেনিয়া, আন্ধারিয়া, খিদিরপুর প্রভৃতি গ্রাম থেকে ওই কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীরা আসবে।

পরীক্ষার ঠিক মুখেই সায়ন্তন আসছেন জেলায়। আজ রবিবার, প্রথমে তিনি এবং বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ তমলুকে দলের একটি জেলা সভা করবেন। সেখান থেকে সায়ন্তন যাবেন বাকচায়। আক্রান্ত দলীয় কর্মীদের সঙ্গে দেখা করতে। সায়ন্তনের ওই কর্মসূচি ঘিরে সিঁদুরে মেঘ দেখছেন অনেকেই। এলাকার বহু মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর অভিভাবক জানাচ্ছেন, এমনিতেই এখন বাকচার পরিস্থিতি ভাল নয়। কয়েকদিন আগেই বাকচা তরুণ বুথ এবং চাঁদিবেনিয়া গ্রামে ব্যপক বোমাবাজির পাশাপাশি বাড়ি লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। এর মধ্যে সায়ন্তনের আগমণে পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে বলে তাঁদের আশঙ্কা। চাঁদিবেনিয়া গ্রামের এক পরীক্ষার্থীর অভিভাবক বলেন, ‘‘গত কয়েকমাস ধরে এলাকায় অশান্তি বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। তাই মাধ্যমিক পরীক্ষার সময় নির্বিঘ্নেই কাটবে  বলে আশায় ছিলাম। কিন্তু দিন কয়েক আগে ফের গোলমাল শুরু হয়েছে। আমরা চাই পুলিশ-প্রশাসন এই অশান্তি বন্ধে উপযুক্ত পদক্ষেপ করুক।’’

অভিভাবকদের বক্তব্য, এর আগে সায়ন্তন যতবার জেলায় এসেছেন, প্রায় প্রতিবারই তাঁকে ঘিরে কোনও কোনও উত্তেজনা ছড়িয়েছে। বাকচায় আক্রান্ত দলীয় কর্মীদের বাড়িতে আসার সময়ও যে রবিবার কোনও ঝামেলা হবে না, তার নিশ্চয়তা কে দিচ্ছে! বাকচা  হাইস্কুলের এক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী বলেন, ‘‘কয়েকদিন আগে রাতে ব্যাপক বোমাবাজি হয়েছে। পরীক্ষা দেওয়ার জন্য কয়েক কিলোমিটার রাস্তা পার হয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে যেতে হবে। রাস্তাতেও গোলমালের আশঙ্কা রয়েছে।’’

পুলিশ অবশ্য জানিয়েছে, তাদেরকে বিজেপির কর্মসূচি নিয়ে  কিছু জানানো হয়নি। শনিবারই বাকচার খিদিরপুর গ্রাম থেকে মহেন্দ্র বাড়ই নামে এক বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে পুলিশের উপরে হামলার অভিযোগ রয়েছে। তমলুকের এসডিপিও অতীশ বিশ্বাস বলেন, ‘‘রবিবার বাকচায় বিজেপির কর্মসূচির বিষয়ে আমাদের জানানো হয়নি। মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য প্রকাশ্যে মাইক বাজানো বা সভার কোনও অনুমতি দেওয়া হবে না। তবে বাকচা এলাকায় নিয়মিত ভাবেই পুলিশের টহলদারি চলছে। মাধ্যমিক পরীক্ষার কেন্দ্রে নিরাপত্তার জন্য বাড়তি সতর্কতা নেওয়া হচ্ছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন