• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

চোর সন্দেহে গণপ্রহারে মৃত্যু যুবকের

Man beaten by mob suspecting thief died
এই দোকানঘরেই চুরি হয়েছে বলে অভিযোগ। নিজস্ব চিত্র

বছর দেড়েক আগে তমলুক শহর থেকে কয়েক কিলোমিটার দূরে চোর সন্দেহে গণপিটুনির ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল এক যুবকের। ওই ঘটনার পরেও তমলুক শহর সহ জেলার বিভিন্ন এলাকায় চোর সন্দেহে গণপিটুনির শিকার হয়েছেন ভিন রাজ্যের যুবক থেকে মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিও।

গণপিটুনির ঘটনা রুখতে কড়া শাস্তির জন্য আইন করেছে রাজ্য সরকার। কিন্তু তারপরেও গণপিটুনি বন্ধ হয়নি জেলায়। মঙ্গলবার রাতে তমলুক শহর থেকে ময়নাগামী রাজ্য সড়কে নন্দকুমারের বহিচবেড়িয়া গ্রামে চোর সন্দেহে গণপ্রহারে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। অভিযোগ, স্থানীয় একটি মুদির দোকানে চুরি করতে এসে বাসিন্দাদের হাতে পড়ে ওই যুবক। ধরে ফেলার পর চলে গণপ্রহার। তাতে সে মারা যায় বলে অভিযোগ। পুলিশ জানিয়েছে বছর তিরিশের ওই মৃত যুবকের নাম সমীরণ জানা। তাঁর বাড়ি হলদিয়ার ভবানীপুর থানার চাউলখোলা গ্রামে। গণপিটুনির ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৬ জনকে আটক করা হয়েছে। এঁদের মধ্যে দোকানের মালিক প্রণব ভৌমিকও রয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, মঙ্গলবার রাত দেড়টা নাগাদ একটি ছোট লরিতে চেপে একদল দুষ্কৃতী বাহিচবেড়িয়া গ্রামে রাস্তার ধারে একটি মুদির দোকানে ঢুকে জিনিসপত্র চুরি করছিল। সেই সময় সড়কে যাতায়াতকারী মাছের গাড়িতে থাকা লোকজনের তা নজরে পড়ে যায়। তাঁদের চিৎকারে স্থানীয় বহিচবেড়িয়া ও বাড়বসন্ত গ্রামের বাসিন্দারা ছুটে আসেন। তার আগেই দুষ্কৃতীদলের তিনজন গাড়ি নিয়ে পালিয়ে যায়। ধরা পড়ে একজন। উত্তেজিত গ্রামবাসীরা ওই যুবককে আটকে দোকানের সামনেই গণপিটুনি দেয় বলে অভিযোগ। তার ফলে ওই যুবক গুরুতর জখম হন। খবর পেয়ে রাতেই নন্দকুমার ও তমলুক থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই যুবককে উদ্ধার করে তমলুক জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত যুবকের বিরুদ্ধে আগেও তমলুক এলাকায় চুরির অভিযোগ রয়েছে। মঙ্গলবার রাতে চুরির অভিযোগে ওই যুবককে গণপিটুনি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে একদল গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে। বুধবার সকালে বহিচবেড়িয়া গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, সড়কের ধারে ওই মুদির দোকান বন্ধ। এলাকায় মোতায়েন রয়েছে পুলিশ। এলাকায় বাড়িঘরে কেবল মহিলা ও শিশুরা রয়েছে। পুরুষ সদস্যরা বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে। যদিও মঙ্গলবার রাতের ঘটনা নিয়ে গ্রামের কেউ মুখ খুলতে চাননি।

তমলুকের এসডিপিও অতীশ বিশ্বাস বলেন, ‘‘দোকানে চুরির অভিযোগে গণপিটুনিতে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তদন্ত শুরু হয়েছে। ওই ঘটনায় জড়িতদের ধরতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৬ জনকে আটক করা হয়েছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন