• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পিকে-র সংস্থার কর্মীকে ঘেরাও

TMC office
তৃণমূল কার্যালয়ের সামনে। চন্দ্রকোনা ২ ব্লকে। নিজস্ব চিত্র
জমে থাকা খাজনা মোটে ভাল কাজ না। কিন্তু জমে থাকা ক্ষোভ!

মঙ্গলবার প্রকাশ পেয়েছে জেলা তৃণমূলের পদাধিকারীদের তালিকা। বুধবার চন্দ্রকোনায় রীতিমতো বিক্ষোভের মুখে পড়লেন ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের সংস্থার এক প্রতিনিধি। গোয়ালতোড়ে আবার সদ্য নির্বাচিত যুব তৃণমূলের এক ব্লক সভাপতি শুভেন্দু অধিকারীর ছবি দেওয়া প্ল্যাকার্ড গলায় ঝুলিয়ে মিছিল করলেন। যদিও সেই প্ল্যাকার্ডে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবিও ছিল। গোয়ালতোড়ের রাস্তায় এ দিনই আবার পুরনো কায়দায় পথে নামেন শুভেন্দুর অনুগামীরা।  সেখানে কিন্তু প্ল্যাকার্ডে অবশ্য অনুপস্থিত ছিলেন মা-মাটি মানুষের নেত্রী।

চন্দ্রকোনা-২ ব্লক সভাপতির দায়িত্ব পেয়েছেন জগজিৎ সরকার। তিনি বিধায়ক ছায়া দোলই ও চন্দ্রকোনা-২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি হীরালাল ঘোষের অনুগামী। ব্লক সভাপতির নাম ঘোষণার পরই মঙ্গলবার রাত থেকেই চন্দ্রকোনা জুড়ে অস্থির পরিস্থিতি তৈরি হয়। সমাজমাধ্যমেও নানা কটূ মন্তব্য ভাইরাল হয়। তারপর এ দিন চন্দ্রকোনা- ২ ব্লক কাযার্লয়ে  এসে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন শাসক দলের একাংশ। অফিসের ভিতরে গোলমালেও জড়িয়ে পড়েন তাঁরা। ব্লকের সহ সভাপতি রামকৃষ্ণ রায়, প্রাক্তন কাযর্করী সভাপতি সঞ্জিত মিদ্যার নেতৃত্বে দলেরই একটি অংশ  পতাকা হাতে নিয়ে তৃণমূল নেতৃত্বদের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন। পিকের টিমের স্থানীয় কর্মীকে ঘিরেও বিক্ষোভ দেখান। পরে ব্লক কার্যালয়ে  প্রেস বিবৃতি দিয়ে ব্লকের কয়েক জন অঞ্চল সভাপতি-সহ ব্লকের নানা স্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতৃত্বেরা সাংগঠনিক পদ থেকে পদত্যাগ করার দাবি তোলেন। জগজিৎ বলেন, “আমি দলের একজন কর্মী। এই নিয়ে কোনও মন্তব্য করব না।’’ জেলা সভাপতি অজিত মাইতির প্রতিক্রিয়া, “কী হয়েছে, খোঁজ নেব।”

গোয়ালতোড়ের মাকলি অঞ্চলের বাসিন্দা দীর্ঘদিনের যুবকর্মী দীপক পাত্রকে মঙ্গলবারই ব্লকের যুব সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এ দিন ছিল দলের পূর্বঘোষিত মাঠে মাঠে আন্দোলন কর্মসূচি। কেন্দ্রের নীতির বিরুদ্ধে এদিন তৃণমূলের কিসান ও ক্ষেতমজুর সেলের পক্ষ থেকে মাঠে, খেতখামারে, ধান, আনাজের জমিতে মিছিল করা হয়। এ দিন সেরকমই এক মিছিল হয় মাকলি অঞ্চলের হাঁড়িমারা বুথে। মিছিলের সামনের সারিতে মমতা ও শুভেন্দুর ছবি দেওয়া প্ল্যাকার্ড গলায় ঝুলিয়ে হাঁটতে দেখা যায় সদ্য নির্বাচিত ব্লকের যুব সভাপতি দীপক পাত্রকে। দীপক বলেন, "আমাদের দলের সর্বোচ্চ নেতানেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, শুভেন্দু অধিকারী। মানুষকে অনুপ্রাণিত করতেই তাঁদের ছবি নিয়ে মিছিল হয়, আমরাও করেছি।’’ এ দিনই গোয়ালতোড় থেকে হুমগড় যাওয়ার রাস্তায় শুভেন্দুর অনুগামীরা পথচারী, দোকানদার, যাত্রী, চালকদের মাস্ক-স্যানিটাইজ়ার দেন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন