• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ভাঙচুরের চেষ্টা মদের দোকানে

Wine shop
দোকানের শাটার ভাঙার চেষ্টা। নিজস্ব চিত্র

লকডাউনে দোকান খুলে মদ বিক্রির অভিযোগ উঠেছিল আগেই। এবার সেই দোকান ভাঙচুরের চেষ্টা চালালেন স্থানীয় মহিলারা। কাঁথি-৩ ব্লকের নাচিন্দা সংলগ্ন কানাইদিঘির ওই ঘটনায় মঙ্গলবার উত্তেজনা ছড়ায়।

মারিশদা থানা সূত্রের খবর, সরকারি অনুমোদনপ্রাপ্ত ওই মদ দোকানটি তৃণমূল নেতা তথা পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ অমৃতাংশু প্রধানের স্ত্রীয়ের নামে রয়েছে। গত ২০ এপ্রিল লকডাউন চলাকালীন দোকানটি নিয়ম ভেঙে খোলার অভিযোগ ওঠে। মদ কিনতে জড়ো হন বহু মানুষ।  পরে দোকান বন্ধ করে দেওয়া হয়। এমন ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পরের দিন ক্ষিপ্ত এলাকাবাসী ওই মদের দোকানের জড়ো হন এবং স্থানীয় মহিলারা দোকান ভাঙচুরের চেষ্টা করেন বলে অভিযোগ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মহিলার কটাক্ষ, ‘‘যেভাবে প্রশাসন মদ বিক্রিকে সমর্থন করছে, তাতে মনে হয় মদ খেলেই করোনা সেরে যেতে পারে।’’

দোকানে ভাঙচুরের চেষ্টার বিষয়টি তাঁর জানা বলে দাবি পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষের। তিনি বলেন, ‘‘ভাঙচুরের কোনও ঘটনা জানি না। আমি দোকানের মালিকও নই।’’ সরকারি অনুমোদন প্রাপ্ত ওই মদের দোকানটি তৃণমূল নেতার স্ত্রীর নামে রয়েছে বলে স্থানীয় মারিশদা থানা সূত্রে খবর। সরকারি অনুমোদন থাকা একটি মদের দোকান কীভাবে নিয়ম ভেঙে খোলা হল এবং পুলিশ বা আবগারি দফতর তাতে কোনও পদক্ষেপ করল না কেন? এ ব্যাপারে আবগারি দফতরের জেলা সুপার জতন মণ্ডলকে ফোন করা হয়।  কিন্তু নেটওয়ার্কের সমস্যা থাকায় তাকে ফোনে পাওয়া যায়নি। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পুলিশ সুপার ইন্দিরা মুখোপাধ্যায়কেও ফোন করা হয়। কিন্তু তিনি ফোন ধরেননি। তবে জেলা পুলিশের এক আধিকারিক বলেন, ওই ধরনের ঘটনায় ওই মদের দোকানদার কোনও লিখিত অভিযোগ জানাননি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন