নিকাশি নালার পাশ থেকে মৃত ভ্রূণ উদ্ধার হল জিয়াগঞ্জে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, জিয়াগঞ্জের চার নম্বর ওয়ার্ড এলাকায় নর্দমার পাশে আবর্জনার মধ্যে ওই ভ্রূণটি পড়ে ছিল। জানা গিয়েছে, ওই এলাকায় একটি বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের সামনের নর্দমা বৃহস্পতিবার সকালে পরিষ্কার করছিলেন পুরসভার এক সাফাইকর্মী। তিনিই প্রথম আবর্জনার মধ্যে একটি ব্যাগ পড়ে থাকতে দেখেন। সন্দেহ হলে তিনি ব্যাগটি খুলে দেখেন। এরপর তিনি দেখেন ব্যাগের মধ্যে একটি প্লাস্টিক জড়ানো অবস্থায় রয়েছে ভ্রূণটি। এরপর তিনি পথচলতি কয়েকজনকে বিষয়টি জানান। এদিকে, সাতসকালে রাস্তার ধারে মৃত ভ্রূণ পড়ে থাকার খবরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তেই উৎসুক জনতার ভিড় জমে যায় ওই এলাকায়। শুভ সাহা নামে এক স্থানীয় বাসিন্দার কথায়, ‘‘ওই সাফাইকর্মীই ভ্রুণটি পড়ে থাকার খবর আমাদের জানান। আমরা পরে ফোন করে জিয়াগঞ্জ থানায় বিষয়টি জানাই। এরপর পুলিশ এসে মৃত ভ্রূণটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। 

এ বিষয়ে জিয়াগঞ্জ থানার ওসি অভিজিৎ বসুমল্লিক জানান, প্রাথমিক তদন্তে তাঁদের অনুমান, মৃত ভ্রূণটি ওই জায়গায় কে বা কারা ফেলে দিয়ে গিয়েছে। এ ব্যাপারে তাঁরা খোঁজখবর চালাচ্ছেন। আপাতত অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়েছে। মৃত ভ্রূণটি ময়নাতদন্তের জন্য লালবাগ মহকুমা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। জিয়াগঞ্জের ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক সৌমিক মণ্ডল জানান,  প্রাথমিক পরীক্ষার পর তাঁদের অনুমান, উদ্ধার হওয়া মৃত ভ্রূণটির বয়স মাসছয়েক। 

এবার শুধু খবর পড়া নয়খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।