এক সময় তিনি পথে পথে ভবঘুরের মতো ঘুরতেন। গান গাইতেন লোকাল ট্রেনে। সোস্যাল মিডিয়ার দৌলতে এখন তিনি তারকা। বৃহস্পতিবার কলকাতায় একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল সাক্ষাৎকার নিল রানু মণ্ডলের। সেখানে গানও গাইলেন তিনি। পরিচিত অনেকেই বলছেন, জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছেন রানু। শুরু হয়েছে তাঁর স্বপ্নের উড়ান।

আগামী বুধবার কন্যাশ্রী দিবস উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে রানাঘাট ২ নম্বর বিডিও অফিসে তাঁর যাওয়ার কথা। এ ছাড়াও মুম্বইয়ের এক বেসরকারি টিভি চ্যানেলও তাঁকে গান গাওয়ার জন্য ডেকে পাঠিয়েছে।   

 রানাঘাট ২ নম্বর ব্লকের বৈদ্যপুর ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের বেগোপাড়ায় থাকেন বছর পঞ্চাশের রানু। এ দিন সকাল এগারোটা নাগাদ গাড়িতে কলকাতায় পাড়ি দিয়েছিলেন তিনি। এগিয়ে দিয়েছিলেন প্রতিবেশীরা। রানুর জীবনে এই অপ্রত্যাশিত পরিবর্তনে সকলেই খুশি। স্থানীয় এক গৃহবধূ বলেন, “কয়েক দিন আগেও গ্রামের রাস্তায় এলোমেলো ঘুরে বেড়াতেন রানুদি। রানাঘাট স্টেশনে তাঁকে উদ্দেশ্যহীন ভাবে ঘুরতে দেখেছেন অনেকেই। আজ তাঁকে চেনার উপায় নেই। ভাগ্য সত্যিই এক দিনে মানুষকে কোথা থেকে কোথায় নিয়ে যায়!”